মোবাইলে টাকা আয় করার উপায়

আসসালামু আলাইকুম।

আজকে আলোচনা করব মোবাইলে টাকা ইনকামের কিছু উপায় নিয়ে। চলুন আলোচনায় যাই।

মোবাইলে টাকা আয় এর উপায়:

মোবাইলে অনলাইনে আয় :

বন্ধুগণ আপনি কি বাড়িতে বসে অনলাইনে আয় করার চিন্তাভাবনা করছেন,কিন্তু আপনার কাছে কোন কম্পিউটার বা ল্যাপটপ নেই? চিন্তা করার দরকার নেই, আপনার এই স্বপ্ন পূরণ হয়ে যাবে আজ,তাও আবার কোন ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের ছাড়া।

ফ্রেন্ডস ,আপনাদের সকলের পকেটে রয়েছে যে ডিভাইস টা রয়েছে,হয়তো এই পোস্ট টি পড়ছেন সেটার কথা বলছি।হ্যাঁ,আপনি ঠিক ভেবেছেন মোবাইল কে কাজে লাগিয়ে ঘরে বসে একটি ফুল টাইম ইনকাম কিভাবে জেনারেট করবেন তার মেথড বা পন্থা গুলি এই আর্টিকেলে আলোচনা করবো।তাই আজ জেনেনিন কিভাবে আপনি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করবেন ২০২০ তে।

 

যে কোন ব্যাক্তি যেকোনো পারসেন পৃথিবীর যেকোন জায়গা থেকে এই পন্থা দ্বারা আয় শুরু করতে পারেন।আপনি একজন বিজনেসম্যান হন বা প্রফেশনাল জব করেন অথবা বেকার ঘরে বসে আছেন অথবা একজন স্টুডেন্ট ই হন যেকোনো দেশ থেকে এই মেথড দ্বারা আয় করতে পারবেন –

যেকেউ এই অপরচুনিটি কে কাজে লাগিয়ে নিজের স্বপ্নকে পূরণ করতে পারবেন। সফল এবং স্বনির্ভর জীবনযাপন করতে চাইলে এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন এবং সেটি নিজের মধ্যে অ্যাপ্লাই করার চেষ্টা করুন।

এন্ড্রোইড মোবাইলে দিয়ে টাকা আয়? ঘরে বসে মোবাইলে অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায় 2020

ফ্রেন্ডস আজ থেকে আট দশ বছর আগে আমি যখন ইন্টারনেট সঙ্গে পরিচিত হয়, তখন ভারতবর্ষ বা বাংলাদেশের মতো দেশে গুলোতে ইন্টারনেট এত ফেমাস ছিল না।

তখন মাত্র 7 থেকে 8 পার্সেন্ট লোক ইন্টারনেট ব্যবহার করত এবং ইন্টারনেট সাধারণত কম্পিউটার এর মধ্যে বেশি ব্যবহার করা হতো।

কিন্তু এই চিত্রটা কয়েক বছরের মধ্যেই পাল্টে যায়,হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক,ইউটিউব এই সমস্ত বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং খুব তাড়াতাড়ি গ্রোথ করতে শুরু করে।

রিলায়েন্স এর মত নেটওয়ার্ক প্রোভাইডাররা জিও সিম লঞ্চ করে মানুষের ঘরে ঘরে সস্তায় ইন্টারনেট পৌঁছে দেয়।

আজ ভারতবর্ষের মতো দেশে অসংখ্য মানুষের কাছে স্মার্টফোন আছে এবং প্রায় প্রত্যেকেই ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

আপনি স্মার্টফোন দিয়ে ইউটিউবে ভিডিও দেখেন,আর্টিক্যাল পড়েন,হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাট করেন আরও বিভিন্ন ধরনের কাজ করেন,কিন্তু সেই মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা যায় তাহলে কেমন হবে সেটা বলুন তো?

এই ডিজিটাল নেটওয়ার্কিং জগতে অনলাইনে স্মার্টফোনের সাহায্যে ভারতবর্ষে হাজার হাজার লোক প্রচুর টাকা ইনকাম করছেন।

যদি আপনিও এদের মত মোবাইলে অনলাইনে আয় করতে চান তাহলে নিচে কয়েকটি পয়েন্ট উল্লেখ করব সেগুলো ভালোভাবে পড়ুন-

মোবাইলে টাকা আয়ের ৭ টি সহজ উপায় (Earn Money On Your Phone)

ফ্রেন্ডস আর্টিকেলটি শুরু করার আগে প্রথমে আমি কিছু কথা বলেদি আপনি ইউটিউবে অনেক ভিডিও ও  ব্লগে অনেক আর্টিকেলে দেখতে,পড়তে পাবেন। যেখানে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপস ডাউনলোড করে ইনকাম করতে পারবেন গেম ডাউনলোড করে খেলে, ভিডিও watch করে হাজার হাজার টাকা আয় করা যায় এই ধরণের ভিডিও ইউটউব এ ভুরি ভুরি ।

এদের কাজ থেকে প্রচুর অ্যাপস এর প্রচার শুনতে পাবেন, কিন্তু এগুলো বেশির ভাগই ফ্রড এগুলো viewers  দেড় আকর্ষণীয় করতে ইউটউব এ ভিডিও তৈরী করে থাকে। সাধারণত এই টপিক এর ভিডিও বেশি করে ইউসার রা ওয়াচ করে সেই জন্য এধরণের ভিডিও বা আর্টিকেল লিখে থাকেন।

তবে আমি এখানে যে ইনফরমেশন গুলো আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করবো সেগুলো ১০০% genuine এবং এখান থেকে ইনকাম করতে হলে আপনাকে যথেষ্ট পরিশ্রম করতে হবে।

যাইহোক,আমি এটাই বলতে চাইছি যে,ওই ধরণের ইউটউব ভিডিও থেকে যতটা পারবেন দূরে থাকার চেষ্টা করবেন।

এখানে কয়েকটি অপরচুনিটি আছে যেগুলা আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করব এবং সেগুলোকে আপনি নিজের মধ্যে প্রয়োগ করে এই ডিজিটাল জগতে আশা করি সফল হতে সক্ষম হবেন।

ইন্টারনেট থেকে পয়সা ইনকাম করার দুটো রাস্তা আছে এই  দু’রকম পন্থা অবলম্বন করে আয় করা যায় ।

একটা হচ্ছে shrot trem আর একটা হচ্ছে long term। যেমন আপনি কোন গেম ডাউনলোড করলেন এবং সেই গেম খেলে কিছু পয়সা পেলেন 100 200 500 1000 মাসে এ ধরণের পয়সা আয় করা যায় ।

আর দ্বিতীয় টা হচ্ছে long term যেখানে আপনি প্ল্যানিং করবেন ভাবনা-চিন্তা করে এগোবেন কিন্তু এখানে পয়সা ও সফলতা অনেক বেশি যেটা shrot trem থেকে অনেক গুন্ ভালো।

আমার এই পোস্টে long term এ আয় করার মেথড বা পন্থা গুলি বেশি আলোচনা করবো তবে দু একটি shrot trem এর পন্থা ও বলে দেব।

মোবাইল দিয়ে ভিডিও তৈরি করুন :

আপনি কখনো ভেবে দেখছেন এই দ্রুত গতিতে বেড়ে চলা ইন্টারনেট জগতে সবথেকে বেশি গ্রোথ কোন জিনিসের মধ্যে হচ্ছে ? আমি বলে দিচ্ছি ভিডিও ইন্ডাস্ট্রি (video industry).

এই ভিডও ইন্ডাস্ট্রি  খুবই দ্রুত গতিতে বাড়ছে। মানুষ আর্টিকেল টেক্সট ফটোজ এই ধরনের কনটেন্ট থেকে ভিডিও কনটেন্ট এর প্রতি প্রচুর ঝুঁকছেন।

আমি এখানে আপনাদের একটা তথ্য বা পরিসংখ্যা দিচ্ছি শুধু ইন্ডিয়াতে 26 কোটি মানুষ প্রত্যেক মাসে ইউটিউব ব্যবহার করেন।

মাত্র দুই বছরে টিকটক এর মতো প্লাটফর্মে কুড়ি কোটিরও বেশি লোক যুক্ত হয়েগেছে।আজ শুধু ইউটিউব এ একমাত্র ভিডিও প্লাটফর্ম নেই,ইউটিউব এর মতো টিকটক,ফেসবুক,স্ন্যাপচ্যাট আরো বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট বেরিয়ে এসেছে যেখানে কোটি কোটি মানুষ যুক্ত হচ্ছেন।

এই সব সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট থেকে ভিডিও রিভিউ দেখে মানুষ অনলাইন থেকে শপিং করছে,ভিডিও দেখে অনলাইন থেকে জ্ঞান অর্জন করছে ,এন্টারটেনমেন্ট করছে,মানুষ ব্র্যান্ডিং করছে প্রচার করছে এড করছে ভিডিও এর মাধ্যমে এবং শেষে মানুষ ভিডিও তৈরী করে ইনকাম করছে।

ইন্টারনেটে এত সংখ্যক দর্শক এর জন্য আপনি কনটেন্ট তৈরি করে কিছু আর্নিং করতে পারবেন তার জন্য আপনার কোন কম্পিউটার বা ল্যাপটপের এর দরকার নেই আপনার মোবাইলে যে ভিডিও ক্যামেরা আছে সেখান থেকে আপনি রেকর্ড করুন।

আপনি যে ফিল্ডে এক্সপার্ট আপনি স্টুডেন্টবা আপনি একজন শিক্ষক আপনার মধ্যে নলেজ আছে সেটাই আপনি ভিডিও বানিয়ে পাবলিকের সঙ্গে শেয়ার করুন।

আপনি ভালো সায়েরি বলে মানুষকে এন্টারটেইনমেন্ট করাতে পারেন, কমেডি করে মানুষকে হাসাতে পারেন,গান গাইতে পড়েন, কুকিং এর ভিডিও বানিয়ে নিজের এক্সপেরিয়েন্স কে ভিডিও দ্বারা শেয়ার করুন ।আপনি যে ফিল্ডে এক্সপার্ট তার ভিডিও বানিয়ে পাবলিক এর সঙ্গে শেয়ার করুন এবং সেখান থেকে ইনকাম করুন।

অনলাইনে বিভিন্ন প্লাটফর্ম আছে যেখানে আপনি ভিডিও শেয়ার করে আয় করতে পারবেন,তবে আমি বলবো আপনি ইউটউব এ একটি চ্যানেল তরী করুন এবং খুব তারাতারি সেখানে ভিডিও আপলোড করতে পারেন।

আজ আর নয়। আমার পূর্ববর্তী কন্টেন্ট পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

­

Read More

2 thoughts on “মোবাইলে টাকা আয় করার উপায়”

  1. আপনাদের জে আইটিতে কিছুতেই রেজিষ্ট্রেশন করতে পারছিনা ৷

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top