ওয়েবসাইট থেকে আয় করার কৌশল

ওয়েবসাইট থেকে আয় : বর্তমানে নিজেদের ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে মানুষ লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে। এটি একটি স্মার্ট ক্যারিয়ার হিসেবে সবাই নিয়েছে। নিজের ওয়েবসাইট এর উপরে পরিশ্রম এবং সময় দিতে পারলে ভবিষ্যতে আপনার ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ক্যারিয়ার উজ্জ্বল হয়ে যাবে। ওয়েবসাইট থেকে নানাভাবে আয় করা যায়। আমি এখানে কিছু উপায় বলবো যেগুলোর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইট থেকে আয় করতে পারবেন।

এই উপায় গুলো দিয়ে সঠিকভাবে কাজ করতে পারলে আপনি প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ওয়েবসাইট থেকে আয় করার উপায়
ওয়েবসাইট থেকে আয় করার উপায়

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়:

ওয়েবসাইট থেকে আয় করার মাধ্যমগুলোর মধ্যে জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হলো  এফিলিয়েট  মার্কেটিং। এখানে আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানির পণ্য বিক্রি করে দিতে হবে। আপনি যখন অন্য কোম্পানির কোন পণ্য আপনার নিজের ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে বিক্রি করতে পারবেন তখন আপনাকে সেই বিক্রয় কৃত অর্থ থেকে কমিশন দেওয়া হবে। এভাবে আপনি কোম্পানির প্রচার করে এবং পণ্য বিক্রি করে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

বিজ্ঞাপন থেকে আয়:

আপনি আপনার ওয়েবসাইটে অন্য কোন কোম্পানির বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করিয়ে আয় করতে পারেন। আমরা প্রায়ই বিভিন্ন ওয়েবসাইটে গিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির বিজ্ঞাপন দেখতে পাই। এই বিজ্ঞাপনগুলো ওয়েবসাইটে প্রদর্শন করার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করবেন। আপনার ওয়েবসাইটে যে কোম্পানির বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করাবেন সেই কোম্পানি আপনাকে একটি নির্দিষ্ট মূল্য পে করবে তাদের বিজ্ঞাপন আপনার ওয়েবসাইটে প্রদর্শনের জন্য।

Read More:

ডাইরেক্ট স্পনসর্ড আর্টিকেল:

এরকম অনেক ওয়েবসাইট আছে যেখানে কোনো বিজ্ঞাপন দেখানো হয় না। এই ওয়েবসাইট গুলো ইনকাম করে ডাইরেক্ট স্পনসর্ড বা পোস্ট পাবলিশ করে। এক্ষেত্রে কোম্পানি গুলো কিছু ওয়েবসাইটগুলোকে তাদের প্রোডাক্ট সার্ভিস এর সাথে জড়িত আর্টিকেল লেখার জন্য বলেন। তখন ওয়েবসাইটগুলোতে কোম্পানির প্রোডাক্ট গুলোর বিষয়ে তথ্য বহুল আর্টিকেল লেখা হয়। এই আর্টিকেলগুলো লেখার বিপরীতে কোম্পানিগুলো ভালো পরিমাণ টাকা দিয়ে থাকে।

নিজের পণ্য বিক্রি করে আয়:

যদি আপনার তৈরি করা কোন প্রোডাক্ট হয়ে থাকে তাহলে নিজের ওয়েবসাইটে সেগুলো বিক্রি করে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন।এক্ষেত্রে সম্পূর্ণটাই আপনার লাভ হবে।

ইমেইল কালেকশন:

আমরা যখন বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে বই বা মুভি ডাউনলোড দিতে যাই তখন আমাদের ইমেইল এড্রেস দিতে বলে। আমরা ইমেইল এড্রেস দিলে তারপর সেটা আমাদের ডাউনলোড করতে দেয়। সে ওয়েবসাইটগুলো আপনি যে ইমেইল এড্রেস দেন সেটি সংরক্ষন করে রেখে দেয়। এভাবে যতজন ওই গান বা মুভি ডাউনলোড করবে ততগুলো ইমেইল এড্রেস তাদের কাছে সংরক্ষণ থাকবে।

এভাবে অনেকগুলো ইমেইল এড্রেস তারা ইমেইল মার্কেটারদের কাছে কাছে বিক্রি করে। ইমেইল মার্কেটারদের মার্কেটিং এর জন্য একটিভ ইমেইল এড্রেস এর তালিকা দরকার পড়ে। এজন্য বিভিন্ন মার্কেটাররা ইমেইল এড্রেস কিনে নেয় মার্কেটিংয়ের জন্য।

আর আপনি আপনার ওয়েবসাইট থেকে এভাবে অনেক ইমেইল এড্রেস সংগ্রহ করে ইমেইল মার্কেটার দের কাছে বিক্রি করতে পারবেন এবং সেখান থেকে আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুন: ইমেইল মার্কেটিং করে প্রতি মাসে আয় করুন 70000 টাকা। 

পেইড রিভিউ করে আয়:

নানা কোম্পানিগুলোর বিভিন্ন প্রোডাক্ট এবং সার্ভিসগুলোর বিষয়ে নিজের ওয়েবসাইটে রিভিউ লিখুন এবং কোম্পানিগুলোর সাথে সংযুক্ত হয়ে তাদের প্রত্যেককে এর রিভিউ এর বিপরীতে টাকা আদায় করে নিতে পারেন। ইন্টারনেট এরকম অনেক ওয়েবসাইট আছে সেখানে গিয়ে আপনারা পেইড রিভিউ-এর কাজ পেয়ে যাবেন এবং টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ওয়েবসাইট তৈরি করে আয়:

যদি আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে বিভিন্ন রকমের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন তাহলে নিজের তৈরি ওয়েবসাইট গুলো বিক্রি করে আয় করতে পারেন।এছাড়া flippa ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিজের তৈরি করা ওয়েবসাইট গুলো সরাসরি বিক্রি করতে পারেন।

ই-বুক বিক্রি করে আয়:

নিজের ওয়েবসাইটে ই-বুক বিক্রি করে আয় করতে পারেন. আপনি নিজেই কিছু আর্টিকেলগুলো কে ই-বুক বানিয়ে তারপর সেগুলো নিজের ওয়েবসাইটে বিক্রি করতে পারেন। কিন্তু এই ই-বুক গুলো নিজের অভিজ্ঞতা জ্ঞান এবং দক্ষতা দিয়ে বানাতে হবে. কেননা সাধারণ ইবুক লোকজন কিনবে না। আপনি যদি অভিজ্ঞতা দিয়ে ভালো মানের ই-বুক তৈরি করতে পারেন তাহলে সেগুলো বিক্রি করে খুব সহজে টাকা আয় করতে পারবেন।

ই-কমার্স ওয়েবসাইট শুরু করুন:

বর্তমানে সবার অনলাইনে কেনাবেচার আগ্রহ রয়েছে। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আপনিও আয় করে নিতে পারেন।আপনি যে কোনো এক বা একাধিক প্রোডাক্ট নিয়ে অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট চালু করতে পারেন।যখন লোকজন আপনার এই ওয়েবসাইটের কথা জানতে পারবে তখন আপনি প্রোডাক্টগুলো বিক্রি করে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

আপনার ওয়েবসাইট ট্রাফিক বিক্রি:

যদি আপনার ওয়েবসাইটে প্রচুর ভিজিটর হয়ে থাকে তাহলে আপনি অন্য ওয়েবসাইটে নিজের নিজের ওয়েবসাইটের ভিজিটর পাঠিয়ে বিক্রি করতে পারবেন। এরকম অনেক ওয়েবসাইট আছে যারা ভিজিটরস পাওয়ার জন্য তার বিপরীতে টাকা দিয়ে থাকে। তাই আপনি এরকম ওয়েবসাইট এর সাথে যুক্ত হয়ে টাকার বিনিময়ে নিজের ওয়েবসাইট থেকে ভিজিটর পাঠিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ডোনেশনস:

আপনি আপনার ওয়েবসাইটে donation বা please donate button ব্যবহার করে টাকা আয় করতে পারেন। যখন আপনার ওয়েব সাইটের কনটেন্ট লোকজনের পছন্দ হবে তখন ওয়েবসাইট ভিজিটরস রা চাইলে donate button ব্যবহার করে নিজের ইচ্ছে হিসেব অনুযায়ী টাকা দিয়ে দিতে পারবেন। এভাবে ডোনেট বাটনের মাধ্যমে নিজের ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করা যায়।

উপরোক্ত উপায় গুলো ব্যবহার করে আপনি ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারেন। মোটকথা খুব ধৈর্য্য ও পরিশ্রম দিয়ে যদি ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করা যায় তাহলে এর মাধ্যমেই অনেক টাকা আয় করা সম্ভব।

Read More

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top