মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে)

বর্তমান সময়ের খবর, অনুযায়ী আপনি যদি অনুসন্ধান করে থাকেন। মালয়েশিয়া কলিং ভিসা কবে চালু হবে। বা মালয়েশিয়া কলিং ভিসা কিভাবে করতে হয় এ বিষয়ে জানতে চান? তাহলে আপনি সঠিক একটি জায়গায় প্রবেশ করেছেন।

আমরা এখানে মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করব। তাই আপনি ধৈর্য্য ধরে আমাদের লেখা মালয়েশিয়া কলিং ভিসার বিষয়ে জেনে নিন।

মালয়েশিয়া ভিসা সম্পর্কে

বাংলাদেশ হতে মালয়েশিয়া কলিং ভিসায় কর্মী নিয়েগ এর ক্ষেত্রে, মালয়েশিয়া সরকার প্রদত্ত সিস্টেম নিয়ে। বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে হ্যাঁ বা না কোন ধরণ এর সাড়া না পাওয়ায়। আজও বাংলাদেশ কর্মী মালয়েশিয়া যাওয়ার পথ নিশ্চিত করতে পারে নাই।

কিন্তু কত বছর ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে কুলালামপুরে উভয়ই দেশ এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবার পরে। যে, আশা যুবক’রা সেটি যেন ক্রমশ হতাশায় পর্যবসিত হচ্ছে।

অন্যদিকে কর্মী নিয়োগ ইস্যুতে মালয়েশিয়া এর সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের ইন্দোনেশিয়া এবং ভারত গমন করার বার্তা দিচ্ছে। এতে করে শঙ্কিত শ্রম মার্কেট এর বিনিয়োগকারীরা।

তারা দ্রুত এ সমস্যার সমাধ্যন করতে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীকে অনুরোধ করে। তারা অভিবাসন প্রত্যাশী যুবক ও তাদের পরিবার সুদূর বাংলাদেশ থেকে ফোন করে জানতে যাচ্ছে। কবে মালয়েশিয়া কলিং ভিসায় লোক নেবে। কবে মালয়েশিয়া কলিং ভিসা খোলবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রের মাধ্যমে জানা গিয়েছে। জিটুজি প্লাস এর সময় অতিরিক্ত অভিবাসন, ব্যয় এর ইস্যুটি খোদ মাহাথির সরকার উস্থাপন করে, পূর্ববর্তী সরকারের সিদ্ধান্ত ভুল প্রমান করার প্রয়াসনে।

মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে)
মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে)

তবে খোদ মাহাথির সরকারর মন্ত্রী সেই দেশের পার্লামেন্ট ঘোষণা করে যে, সিস্টেম কোন সমস্যা নাই। এবং কোনি দূর্ণীতি পাওয়া যায় নাই।

অন্যদিকে জিটুজি প্লাস চুক্তির অধীনে আসা কর্মীদের কাজ না পাওয়ার ঢালাও কোন ঘটনা নাই। যা ২০০৬ ও ২০০৭ সালে ঘটেছিল। মালয়েশিয়ায় কিছু এনজিও অভিবাসী কর্মীদের মধ্যে নেপাল, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলংকা, পাকিস্তান, ভারত ইত্যাদি জরিক করে কর্মীদের অতিরিক্ত অভিবাসন ব্যয়ের প্রসঙ্গ চলে আসে।

বাংলাদেশে হাইকোর্ট এ একটি বিট করে বলা হয় যে, সরকার ১০ টি রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রবেশ করে। এবং অন্যান্য রিক্রুটিং এজেন্সির অধিকার খর্ব করে।

আরো পড়ুনঃ

অন্যদিকে বিএমইটি বলেছে জিটুজি প্লাস প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশের ৩ শতাধিক রিক্রুটিং এজেন্সি মালয়েশিয়া কর্মী প্রবেশ করেছে।

হাইকোর্ট এর রিটের জবাব দিতে, মন্ত্রণালয় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে একটি সন্ধান কমিটি করে সে, কমিটিও প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে যে, বাংলাদেশ এর ১০ টি রিক্রুটিং এজেন্সি মালয়েশিয়া সরকার কর্তৃক নিবন্ধিত।

মালয়েশিয়া কলিং ভিসার খবর ২০২২

মালয়েশিয়া কলিং ভিসা, শ্রম বাজার- মালয়েশিয়ার প্রবাসী সম্পর্কিত সকল তথ্য আমাদের এই আর্টিকেলে শেয়ার করা হবে। আমরা দীর্ঘ অপেক্ষার পরে ২০২২ সালে মালয়েশিয়া কলিং ভিসা করার সুযোগ পাচ্ছি।

মালয়েশিয়ার পক্ষ থেকে ঘোষণা

মালয়েশিয়ার কোম্পানি বা নিয়োগ দাতা অনেক দ্রুত সোর্স কান্ট্রি গুলো থেকে। কলিং ভিসায় অনুমোদিত কর্মসংস্থান এর জন্য প্রতিটি সেক্টরে বিদেশী কর্মী নিয়োগ এর প্রক্রিয়ার জন্য, অনলাইন আবেদন জমা দিতে পারেন বলে জানিয়েছেন।

মালয়েশিয়ার মানব সম্পন মন্ত্রী দাতুক এটি জানিয়ে দেন। তিনি বলেন দ্রুত মালয়েশিয়ার কোম্পানি বা মালিকদের কলিং ভিসায়, বিদেশি কর্মী নিয়োগ এর জন্য অনলাইন আবেদন করা যাবে। যা চলতি ২০২২ সালের জনু মাস থেকেই।

তিনি আরো বলেন নিয়োগকর্তাদের পরামর্শ দিতে চাই। যে, আবেদন সিস্টেম দ্রুত করার উদ্দেশ্যে কোন দালাল মধ্য স্থতাকারী বা তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে কোন টাকা প্রদান করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

কারণ মালয়েশিয়া কলিং ভিসা করা অনেক সহজ ও অল্প টাকায় ভিসা করা যায়। তাই কোন দালাল এর সাথে যুক্ত না হয়ে নিজে নিজেই মালয়েশিয়া কলিং ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া কলিং ভিসার খরচ কত হবে?

মালয়েশিয়ার বিমান টিকেট ছাড়া ১,৬০,০০০/- (এক লক্ষ ষাট হাজার) টাকা মালয়েশিয়া কলিং ভিসা, প্রসেসিং করার খরচ বাবদ সিন্ডিকেট কে দিতে হয়।

তবে মালয়েশিয়া যেতে একজন শ্রমিক এর খরচ কত হবে- মালয়েশিয়া কলিং ভিসার ফ্লাইট শুরু হলে, বিমান টিকেট এর দাম বৃদ্ধি পাবে। টিকেট বাবদ খরচ হতে পারে ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার টাকা।

পাম, বাগান ও কৃষি কাজ ছাড়া অন্যান্য সেক্টর গুলোর ভিসা কোম্পানির কাছে থেকে কিনতে খরচ হতে পারে, ৩৫০০ রিংগিত বা ৪৫০০ রিংগিত।

আপনি যদি এজেন্সির মাধ্যমে কলিং ভিসা কিনেন তাহলে তারা লাভ করবে ২০ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা। এ সকল এজেন্সির বাহিরে যে এজেন্সি গুলোর অন্যান্য খরচ হবে প্রায় ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা।

তো চলুন জেনে নেওয়া যাক, কলিং ভিসা পাওয়ার জন্য মোট খরচ কতঃ

  • ভিসা প্রসেসিং ফি ১,৬০,০০০/০ (এক লক্ষ ষাট হাজার) টাকা।
  • বিমান টিকেট ফি ৩৫,০০০/- (পয়ত্রিশ হাজার) টাকা।
  • ভিসা ক্রয় বাবদ খরচ ৯০,০০০/- (নব্বই হাজার) টাকা।
  • এজেন্সির লাভ অংশ ২০,০০০ (বিশ হাজার) টাকা।
  • অন্যান্য খরচ ৫,০০০/- (পাচঁ হাজার) টাকা।
  • সর্বমোট ৩,৫৫,০০০/- (তিন লক্ষ পনচান্ন হাজার) টাকা।

উক্ত যে হিসাবটি দেওয়া হলো সেটি গড় আকারে করা হয়েছে। তবে উক্ত হিসাব থেকে খরচ কম বেশি হতে পারে।

মালয়েশিয়া ভিসার ধরণঃ

  • মালয়েশিয়া কলিং ভিসা।
  • মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি ভিসা।
  • মালয়েশিয়া এন্ট্রি ভিসা।
  • মালয়েশিয়া এম্প্লয়মেন্ট ভিসা।
  • মালয়েশিয়া মেডিকেল ভিসা।
  • মালয়েশিয়া স্টুডেন্ট ভিসা।
  • মালয়েশিয়া বিজনেস ভিসা ইত্যাদি।

আপনি যদি মালয়েশিয়াতে গমন করতে চান? সেক্ষেত্রে আপনি উক্ত ভিসা গুলো নিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া কলিং ভিসা আবেদন করার লিংক

আপনি যদি, মালয়েশিয়াতে কলিং ভিসায় যেতে চান? তাহলে আপনাকে অনলাইনের মাধ্যমে, ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। তবে আপনার মনে প্রশ্ন হতে পারে যে, মালয়েশিয়া কলিং ভিসার জন্য কিভাবে অনলাইন আবেদন করব।

বন্ধুরা, চিন্তার কোন কারণ নাই। আমি এই পোস্টে আপনাকে জানাব কিভাবে আপনি মালয়েশিয়ার কলিং ভিসার জন্য আবেদন করবেন।

আপনি যদি অনলাইনে মালয়েশিয়া কলিং ভিসার আবেদন করতে চান। তাহলে www.visasmalaysia.com এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। তারপরে সেখানে আপনার নির্বাচিত মালয়েশিয়া কলিং ভিসার জন্য আবেদন ফরম পেয়ে যাবেন। নিচে দেওয়া ছবির মতো-

উক্ত ছবিতে যে সকল অপশন দেখতে পারছেন, সেগুলো আপনি সঠিক ভাবে স্টেপ বাই স্টেপ পূরণ করে সাবমিট দিবেন। তারপরে ভিসা অফিসে যোগাযোগ করে, আপনি বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

আপনি অনলাইনে আবেদন করার পরে অবশ্যই সেই কপি নিয়ে ভিসা অফিসে যোগাযোগ করবেন। অল্প সময়ের মধ্যে আপনি মালয়েশিয়া কলিং ভিসা নিতে নিয়ে মালয়েশিয়াতে যেতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, উক্ত লেখাতে আপনি জানতে পারলেন মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ সম্পর্কে। আপনি যদি মালয়েশিয়াতে গমন করতে চান, তাহলে উক্ত আলোচনা অনুসরণ করে আপনি মালয়েশিয়া কলিং ভিসা করে নিতে পারবেন।

ট্যাগঃ মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে) মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে) মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে) মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে)

মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে) মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে) মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে) মালয়েশিয়া কলিং ভিসা ২০২২ (জেনেনিন এখানে)

আমাদের লেখা আর্টিকেল পড়ে আপনার, কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। এবং এটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap