বন্ধুদের রেফার করুন আর আয় করুন আনলিমিটেড

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা জে– আইটি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছে নতুন একটি আর্নিং ফিচার। আপনি আপনার বন্ধুদের রেফার করে প্রতি রেফার থেকে ইনকাম করতে পারবেন যত …

আরও পড়ুনবন্ধুদের রেফার করুন আর আয় করুন আনলিমিটেড

গ্রাফিক্স ডিজািইন করে আয় করার 13 টি জনপ্রিয় উপায়

graphic design income

আপনি যদি ক্রিয়েটিভ সৃজনশীল মন মানসিকতার মানুষ হন তাহলে আপনি চাইলেই গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে ঘরে বসে আয় করতে পারবেন প্রতি মাসে 50 হাজার থেকে 1.5 …

আরও পড়ুনগ্রাফিক্স ডিজািইন করে আয় করার 13 টি জনপ্রিয় উপায়

লেখা শেয়ার করে ঘরে বসে আয় করুন যত ইচ্ছা তত

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা জে–আইটি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছে আর্টিকেল শেয়ার করে ঘরে বসে আয় করার নতুন এক পদ্ধতি। চাইলে আমাদের এই প্রোগ্রামের যুক্ত নিয়ে আপনিও …

আরও পড়ুনলেখা শেয়ার করে ঘরে বসে আয় করুন যত ইচ্ছা তত

অনলাইনে আয় করার আকর্ষণীয় ও সহজ 6 টি পদ্ধতি

আর্টিকেল লিখে আয় করার 6 টি জনপ্রিয় সাইট আসলে এখন অর্থোপার্জন আগের মত কোন  কষ্টের বিষয় নয়। পৃথিবীতে সহজ কাজের মধ্যে অর্থ উপার্জন ও একটি …

আরও পড়ুনঅনলাইনে আয় করার আকর্ষণীয় ও সহজ 6 টি পদ্ধতি

আজ থেকেই আয় শুরু করুন Upwork এর থেকে

আপওয়ার্ক থেকে আয় করুন

অনলাইনের মাধ্যমে আপওয়ার্কে  আয় শুরু করার পুরো  গাইডলাইন বর্তমান পৃথিবীতে অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর মধ্যে যেগুলো সবচাইতে বড় তার মধ্যে অন্যতম হল আপওয়ার্ক। শুরুতে এটি ওডেস্ক …

আরও পড়ুনআজ থেকেই আয় শুরু করুন Upwork এর থেকে

৩ টি মাইক্রো জব সাইট। যেগুলোতে কাজ করা মুটামুটি সহজ।

১. Rapid worker এ সাইটে কাজ করা অনেক সহজ। এ সাইটের মাধ্যমে আপনি ০.০১$ – ২.০০$ পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এখানে আপনি বেশি পরিমাণে আয় …

আরও পড়ুন৩ টি মাইক্রো জব সাইট। যেগুলোতে কাজ করা মুটামুটি সহজ।

ফ্রিল্যান্সিং-এর ভবিষ্যৎ কী?

ফ্রিল্যান্সিং-এর ভবিষ্যৎ এক কথায় অনেক ভালো।  কারণ যত দিন যাচ্ছে পৃথিবী ততই উন্নত হচ্ছে।  মানুষের বিভিন্ন রকম চাহিদা বাড়ছে।  বিভিন্ন নতুন নতুন কোম্পানি গঠন হচ্ছে। …

আরও পড়ুনফ্রিল্যান্সিং-এর ভবিষ্যৎ কী?

ঘরে বসে আয় করুন Freelancer থেকে । ফ্রিল্যান্সার গাইড

earn money from frellancer.com

বর্তমানে অনলাইনে ঘরে বসে আয় করার মত অনেকগুলো মাধ্যম রয়েছে। আমি ইতিমধ্যে বেশ কিছু আলোচনা করেছি। আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব, ঘরে বসে পার্ট টাইম জব করে সেখান থেকে অনলাইন থেকে আয় করার একটি জনপ্রিয় মাধ্যম freelancer.com নিয়ে. আপনি যদি অনলাইনে বিভিন্ন ভাবে বিভিন্ন প্রয়োজনে সার্চ করে থাকেন তাহলে এই নামটি অবশ্যই এর আগে আপনার নজরে পড়েছে। এটি খুবই জনপ্রিয় বিশ্বাসযোগ্য একটি ওয়েবসাইট। মাট ব্যারি নামে এক ব্যাক্তি 10/02/2010 সালে, সিডনী, অষ্ট্রেলিয়া থেকে এই ওয়েব সাইট এর যাত্রা শুরু করেন।

তো চলুন আমরা জেনে নেই কিভাবে এখান থেকে টাকা ইনকাম করা যায়ঃ

earn money from frellancer.com
earn money from frellancer.com

আমি কি পারবঃ

মূল কাজে যাবার আগে বলে নিচ্ছি কেউ কেউ মনে করে থাকেন, আমি কি এখন থেকে আয় করতে পারবো? কত টাকা আয় হবে? কিভাবে করব? বিভিন্ন প্রশ্ন মনের ভিতর, ভয় পাওয়ার কিছু নেই আজকে আপনার মনের সকল প্রশ্নের উত্তর এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে দিয়ে দেব।

হ্যাঁ আপনিও পারবেন এখান থেকে আয় করতে কেননা আপনার মত আমার মত হাজারো মানুষ এখান থেকে কাজ করে প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করছে। এবং এটা সম্পূর্ণ রিয়াল এবং সত্যি। তাহলে চলুন সামনে যাওয়া যাক:

কি কি লাগবে

আমি যদি এখান থেকে আয় করতে চাই তাহলে আমার কি কি জিনিসের প্রয়োজন আছে বা কি কি লাগবে? আপনি যদি এখন থেকে আয় করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার,

  • একটি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ লাগবে।
  • মোটামুটি মানের একটি ইন্টারনেট কানেকশন লাগবে

যেটা আপনি ঘরে বসে কাজ করবেন। কেননা এই কাজটি সম্পন্ন ইন্টারনেটের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। এবং বিভিন্ন লোকের সাথে আপনার যোগাযোগ স্থাপন করতে হবে কম্পিউটার ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে।

কিভাবে আয় করব

কিভাবে আয় করব প্রশ্নটিই আসলে এভাবে নয়, কোথা থেকে টাকা আসবে বা কে আপনাকে টাকা দিবে প্রশ্নটিই এইভাবে আসতো। যাই হোক, freelancer.com একটি আন্তর্জাতিক ওয়েবসাইট যেখানে বিভিন্ন লোক তাদের কাজ অন্য লোকদের দাড়া করিয়ে নেয়, এখানে বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে আপনি যে কাছে পারেন অবশ্যই সে কাজটি আপনি করার জন্য এখানে অ্যাকাউন্ট করবেন। আপনি যদি ভাল লিখতে পারেন তাহলে আপনি আর্টিকেল রাইটার হিসেবে এখানে যোগদান করবেন, আপনি যদি লোগো ডিজাইন করতে পারেন তাহলে অবশ্যই লোগো ডিজাইন এর জন্য আবেদন করবেন, এছাড়াও এখানে গ্রাফিক্স, ওয়েব ডিজাইন, এসইও, রাইটিং, ট্রানসলেশন, ফটো এডিটিং, আর্কিটেকচার, এনিমেশন, ভিডিও ইত্যাদি আরো অনেক ধরনের কাজ এখানে রয়েছে।

টাকা কে দেবে

Freelancer.com এ আপনাকে টাকাটা দিবে, সেখানে বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন কাজ পোস্ট করে থাকে, এবং সেই কাজের জন্য সেই ব্যক্তি আপনাকে পেমেন্ট করবে। আপনি যদি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হন, তাহলে সেখানে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর উপরে কাজের জন্য আবেদন করবেন। ফ্রিল্যান্সিংয়ের ভাষায় বলে বিট করা। এবং যে ব্যক্তি পোস্ট করেছে সে আপনার সম্পর্কে জানবে এবং আপনার সাথে যোগাযোগ করবে, আপনি যদি ভাল পারফরম্যান্স করতে পারেন তাহলে আপনাকে তিনি কাজটা করে দিতে বলবে এবং কাজের সম্পূর্ণ তথ্য, বর্ণনা আপনাকে দিয়ে দেবে। আপনি সে অনুযায়ী কাজ করবেন, এবং আপনি কাজটি করা শেষ হলে সেখানে সাবমিট করবেন এবং আপনি যার কাজটি করেছেন সে কাজটি বুঝে ফেলে আপনাকে একটি ফিডব্যাক বা উত্তর দেবে। তখন সে কাজের নির্ধারিত মূল্য টি আপনার একাউন্টে জমা হয়ে যাবে।

যেভাবে একাউন্ট খুলতে হয়

সবই তো বুঝলাম এখন কিভাবে একাউন্ট করব, আমি দেখিয়ে দিচ্ছি প্রথমে freelancer.com এ প্রবেশ করুন। তারপর নিচের মত একটি পেজ আসবে।  সেখান থেকে রেড মার্ক করা আইডি তে ক্লিক করে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হবে।

সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনার যাবতীয় তথ্য দিয়ে প্রোফাইল টা ঠিক করে নেবেন, এবং বিট করার জন্য লগইন করতে হবে।

যে ভাবে বিট করতে হবে

আপনার একাউন্ট সম্পন্ন হয়ে গেলে তখন আপনি আপনার ড্যাসবোর্ডে বিভিন্ন জবের অফার দেখতে পাবেন।এবং আপনি যে কাজটির জন্য আবেদন করতে চান বা বিড করতে চান সেটিতে ক্লিক করুন। এরকম একটি প্যাজ আসবে।

এবং সেখান থেকে যেকোন একটি হবে আপনি ক্লিক করবেন ক্লিক করলেই নিচের পেজ এর মত আসবে এবং সেখানে আপনি প্রপোজাল লেটার ঠিকঠাক ভাবে লিখে, কাজটির জন্য আপনি কত ডলার চান, কয় দিন সময় লাগবে, বিস্তারিত ওকে করে প্লেস বিট এ ক্লিক করবেন।

তখন আপনার সম্পূর্ণ হয়ে যাবে এবং বায়ার আপনাকে নক করে কন্টাক্ট করবে। এবং আপনি এলিজেবল হলে আপনাকে কাজটি দিয়ে দেবে এবং সেই সময়ের মধ্যে আপনাকে কাজটি করে দিতে হবে। বিনিময়ে আপনার একাউন্টে পেমেন্ট জমা হয়ে যাবে।

কত টাকা আয় হবে

উপরের তথ্যগুলো দেখার পর এখন আর আপনার মনে হয় না বোঝার বাকি আছে যে আপনি কত টাকা আয় করবেন। আপনি যত টাকার জন্য হায়ার হবেন বায়ার আপনাকে ততটা কে দেবে। আপনি কোন কাজটি কত টাকায় করবেন সেটি আপনি নির্ধারণ করে দেবেন সেই রাতে যদি কোন বার আপনাকে দিয়ে কাজ করায় তাহলে আপনি কাজ করতে পারবেন।

কি কাজ করতে হবে

উপরে সম্পূর্ণ দেওয়া আছে এখানে কি ধরনের কাজ আছে, কিভাবে করতে হবে, ইত্যাদি।

টাকা কিভাবে হাতে পাব

হ্যাঁ এটা একটা খুবই জরুরী প্রশ্ন। এখানে যারা কাজ করে তারা বেশির ভাগই পেপাল, বা যেকোন মাস্টারকার্ড দিয়ে এখান থেকে টাকা উইথড্র করে নেয়। আপনি চাইলে সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে নিতে পারবেন সেক্ষেত্রে আপনার 5 থেকে 7 কর্মদিবস সময় লাগবে।

অ্যাডভান্স টিপস

আপনি যদি এখানে কাজ করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই freelancer.com এর কাজগুলোকে ভালোভাবে দেখে নিতে হবে। বিড করার পূর্বে ভালোভাবে পড়ে নিতে হবে, তারপর আপনাকে বিট করতে হবে। বায়ারের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতে হবে। বায়ার কি চায় কিভাবে কাজটি করতে হবে সে বিষয়ে ভালোভাবে বুঝে নিতে হবে। কত টাকা হলে আপনি সে কাজটি করতে পারবেন সেই হিসেবে আপনি বিড করবেন।

প্রথম অবস্থায় কাজ পাওয়ার জন্য একটু কম রেটে বিড করাটাই ভালো, তবে আবার এত কম করা যাবে না যাতে বায়ার মনে করে যে সে কাজ জানে না।

সর্বশেষে যদি এই আর্টিকেলটি যদি আপনার ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করবেন, এবং কোন কিছু জানতে চাইলে নিচে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাবেন। আমরা আপনার কমেন্টে রিপ্লাই করবো ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ হাফেজ–

হোস্টেড এবং ননহোস্টেড এডসেন্স কি? কিভাবে আপগ্রেড করবেন?

গুগোল অ্যাডসেন্স  হোস্টেড একাউন্ট এবং গুগল এডসেন্স নন হোস্টেড একাউন্ট এই দুইটা নিয়ে অনেকেই দ্বিধার মধ্যে থাকেন। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব হোস্টেড এডসেন্স …

আরও পড়ুনহোস্টেড এবং ননহোস্টেড এডসেন্স কি? কিভাবে আপগ্রেড করবেন?