VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা

বর্তমান সময়ে যারা এন্ড্রোয়েড মোবাইলে গেম খেলে। তাদের সবচেয়ে পছন্দের একটি অ্যাপস হলো ভিপিএন। আমারা যখন ইন্টারনেট ব্যবহার করি, তখন অনেক সময় দেখা যায় ইন্টারনেট স্পিড কমে যায়। তখন আমাদের সামনে অপশন চলে আসে ভিপিএন এর।

বেশির ভাগ মানুষ এখনও ভিপিএন কে একটি ফ্রি ইন্টারনেট এর মাধ্যম। তবে এই কথাটি মোটেও সত্যি না। কারণ আপনি যদি ভিডিএন ব্যবহার করতে চান। সেই ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই, ডাটা খরচ করে ব্যবহার করতে হবে।

এই সময়ে যারা, ভিপিএন কি, এই বিষয়ে জানেন। তারা এটির ব্যবহার করে কিছু Blocked ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে থাকেন। আসলে ইন্টারনেটে এমন কিছু ওয়েবসাইট আছে। যে গুলো বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বন্ধ আছে।

সেই সকল ওয়েবসাইট গুলোতে প্রবেশ করার জন্য ভিপিএন সফটওয়্যার বা অ্যাপ ব্যবহার করা হয়।

এছাড়া বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঠিক সেরকম ভাবে ইন্টারনেট এর মাধ্যমে লোকদের পার্সোনাল ডাটা চুরি করার মতো হ্যাকারদের সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এই জন্য আপনার সকল পার্সোনাল ডাটা গুলো সুরক্ষিত রাখার জন্য ভিপিএন এর ব্যবহার করতে হবে। এবং ভিপিএন ব্যবহারে চাহিদা প্রচুর বৃদ্ধ পাচ্ছে।

আপনি ভিডিএন ব্যবহার করার ফলে, আপনি কোন স্থানে বসে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন। সেই জায়গাটি লুকিয়ে দেওয়া হবে। আপনি ভিপিএন এপসে যে জায়গা নির্ধার করবেন ঠিক সেই জায়গায় আপনার ঠিকানা দেখানো হবে।

মনে করুন আপনি বাংলাদেশ থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন। কিন্তু আপনার লোকেশন বা ঠিকানা ইন্টারনেটে বাংলাদেশ দেখাবেন না। সেই ক্ষেত্রে আপনি অন্য কোন দেশের লোকেশন বা ঠিকানা দেখাবেন।

ঠিক তখনই আপনি ভিপিএন কানেক্ট করে, আপনার পছন্দ মতো দেশ দেমন মালয়েশিয়া, কানাডা, দুবাই, ইউএসএ ইত্যাদিতে লোকেশন দেখাতে পারেন। আপনি বাংলাদেশে বসে যে কোন দেশের লোকেশন দিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করে আপনার ডাটা সুরক্ষিত রাখতে চান, তাহলে আপনাকে যে কোন একটি দেশের লোকেন বেছে নিয়ে কাজ করতে হবে। তাহলে আপনার কোন ডাটা কেও চুরি করতে পারবে না।

আরো পড়ুনঃ

তার জন্য, বর্তমান সময়ে ইন্টারনে জগতে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্যে VPN ব্যবহার করাটা অনেক জরুরী। আমাদের এই আর্টিকেলে আপনাকে জানাব, ভিপিএন কি? ভিপিএন ব্যবহারে নিয়ম এবং সুবিধা সম্পর্কে।

উক্ত আলোচনা মূল তথ্য গুলো জানতে আমাদের লেখা শেষ পর্যন্ত অনসুরণ করুন।

VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা
VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা

VPN কি ?

ভিপিএন হলো এমন একটি সুরক্ষিত কানেকশন। যার মাধ্যমে আমরা ইন্টারনেট এর মাধ্যমে  যে কোন ডিভাইস কে সুরক্ষিত ভাবে নেটওয়ার্ক এর সাথে যুক্ত করতে পারি।

ভিপিএন ইন্টারনেট কানেকশন এ অধিক সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসি যুক্ত করে। যে কোন পাবলিক নেটওয়ার্ক, প্রাইভেট নেটওয়ার্ক, অপেন ওয়াইফাই, হটস্পট কানেকশন কে সুরক্ষিত রাখে।

উক্ত সুবিধার জন্য আপনার নিজের ডিভাইস কে অনলাইন হ্যাকরদের কাছে থেকে বাচিয়ে রাখতে পারবেন। বর্তমান সময়ে ভিপিএন ব্যবহারের চাহিদা অনেক বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ভিপিএন ব্যবহার করার ফলে, আপনার ইন্টারনেট ইউজ করা মোবাইল, ল্যাপটপ বা কম্পিউটার এর আইপি এড্রেস গুলো পরিবর্তন করে দেওয়া হয়।

আপনার আইপি ঠিকানার জায়গায় অন্য দেশ এর একটি আইপি ঠিকানা দেখানো হয়। যার ফলে, আপনি কোন জায়গায় থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন সেটি খুজে পাওয়া যায় না।

আপনি যদি পেই বা প্রিমিয়াম সার্ভিস ভিপিএন ব্যবহার করেন, তাহলে নিজের ইচ্ছা মতো দেশ গুলো নির্বাচন করতে পারবেন। আর যদি ফ্রি ভার্নস এর ভিপিএন অ্যাপ বা সফটওয়ার ব্যবহার করেন, সেক্ষেত্রে তাদের দেওয়া দেশ গুলোতে আপনি যুক্ত হতে পারবেন।

মনে করুন- আপনি যদি প্রিমিয়াম ভার্সনে ভিপিএন ব্যবহার করেন। এবং সেখান থেকে মালয়েশিয়া সিলেক্ট করেন।

সেক্ষেত্রে আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন, তারপরেও আপনার লোকেশন দেখাবে, মালয়েমিয়াতে।

আর আপনার সাথে যারা অনলাইনে যোগাযোগ করে, তারা মনে করবে আপনি মালয়েশিয়াতে বসবাস করে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন।

আমরা আশা করি উক্ত আলোচনাটি অনুসরণ করে, আপনি জেনে নিতে পারছেন যে, ভিপিএন আসলে কি? যদি না বুঝে থাকেন। তাহলে উক্ত আলোচনাটি আরো একবার পড়ে নিবেন।

এখন আমরা আপনাকে জানাব, ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম। তাই নিচে দেওয়া ধাপ গুলো ভালো ভাবে অনসুরণ করুন।

ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম

আপনি চাইলে যে কোন ডিভাইসে ভিপিএন ব্যবহার করতে পারবেন। যেমন- মোবাইল, ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে।

আপনি এক ভাবে ভিপিএন ব্যবহার করতে পারলে যে, কোন ডিভাইসে ব্যবহার করার যোগ্যতা অর্জন করবেন।

কারণ আপনি মোবাইলে যেভাবে প্রয়োজনীয় অন্যান্য অ্যাপস এবং কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরণের দরকারী সফটওয়্যার গুলো ইনস্টল করেন। ঠিক সেরকম ভাবে আপনার ডিভাইসে ভিডিএন ইনস্টল করতে পারবেন।

ভিপিএন অ্যাপস বা সফটওয়্যার গুলো ডাউনলোড করার পরে, আপনি সেই সার্ভিস গুলো Enable On করে দিবেন। তারপরে আপনার ইন্টারনেট সংযোগ অটোমেটিক ভাবে ভিপিএন সুরক্ষিত নেটওয়ার্ক দ্বারা যুক্ত হয়ে যাবে।

মোবাইলের জন্য ভিপিএন অ্যাপস

বর্তমান সময়ে কম্পিউটার ব্যবহারের তুলনায় অধিকাংশ মানুষ স্মার্ট মোবাইল ব্যবহার করে। তার জন্য আপনার মোবাইলে অবশ্যই একটি ভিপিএন অ্যাপ থাকা দরকার।

তো চলুন জেনে নেওয়া যাক মোবাইলের জন্য ফ্রি ভিপিএন অ্যাপস গুলোর বিষয়ে।

আরো দেখুনঃ

HotspotShield VPN

আপনি যদি মোবাইলে ফ্রি ভিপিএন অ্যাপস ব্যবহার করতে চান? তাহলে প্রথমে HotspotShield VPN ব্যবহার করতে পারেন। বর্তমান সময়ে এই অ্যাপসটি 100M+ ডাউনলোড করা হয়েছে।

উক্ত  HotspotShield VPN এর মাধ্যমে দৈনিক 500 এমবি ডাটা ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার সুবিধার জন্য এখানে HotspotShield VPN এর একটি ছবি দেওয়া হলো।

ডাউনলোড করুনঃ HotspotShield VPN

TunnelBear VPN

TunnelBear VPN ব্যবহার করে আপনি মাসে 500  ্এমবি ডাটা খরচ করতে পারবেন একদম ফ্রিতে। আপনি উক্ত ভিপিএন মোবাইল এবং কম্পিউটার মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন।

আমরা আপনাকে এই ভিপিএন ডাউনলোড করার লিংক শেয়ার করবো। উক্ত ভিপিএন আজ পর্যন্ত প্লে স্টোর থেকে 10M+ ডাউনলোড করা হয়েছে। তাহলে বুঝতেই পারছেন। এই অ্যাপ মানুষের কাছে কতটা জনপ্রিয়। নিচের ছবিটি দেখুন।

ডাউনলোড করুনঃ TunnelBear VPN

Turbo VPN Lite

আপনি যদি মোবাইলে ভিপিএন অ্যাপস ব্যবহার করে নিজের লোকেশন লুকিয়ে রাখতে চান। তাহলে উক্ত ভিপিএন, গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।

এছাড়া আপনি এখানে এক ক্লিক করেই Turbo VPN Lite অ্যাপসটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। আমরা জানি, উক্ত অ্যাপস প্লে স্টোর থেকে 50M+ এর মতো ডাউনলো হয়েছে। বুঝতেই পারছেন, এটি কতটা জনপ্রিয় ভিপিএন।

ডাউনলোড করুনঃ Turbo VPN Lite

কম্পিউটারের জন্য জনপ্রিয় ভিপিএন সফটওয়্যার

আপনি যদি কম্পিউটারের জন্য ভিপিএন সফটওয়্যার ব্যবহার করতে চান। তাহলে অনলাইনে অনেক মার্কেপ্লেস আছে সেখান থেকে ফ্রিতেই ভিপিএন সফটওয়্যার ডাউনলোড করে কাজ করতে পারবনে।

আপনি যদি ফ্রি ভার্সন ভিপিএন ব্যবহার না করে, প্রিমিয়াম ভিপিএন সফটওয়্যার ব্যবহার করেন। তাহলে আপনি অনেক ভালো ভাবে কাজ করতে পারবেন।

কারণ পেইড- প্রিমিয়াম ভিপিএন ব্যবহারের ক্ষেত্রে আপনার পছন্দ মতো যে কোন দেশের লোকেশন ব্যবহার করতে পারবেন। আর যদি ফ্রি ভিপিএন ব্যবহার করেন। তাহলে আপনারা পছন্দ মতো কোন দেশের লোকেশন নিয়ে কাজ করতে পারবেন না।

তারপরেও আমরা আপনাদের সুবিধার জন্য এখানে কিছূ ফ্রি ভিপিএন সফটওয়্যার দেখাব। যে গুলো ব্যবহার করে আপনি মোটামুটি লাভজনক হতে পারবেন। যেমন-

Windscribe VPN Software

আপনি যদি কম্পিউটার এর মাধ্যমে ফ্রি ভিপিএন ব্যবহার করতে চান। তাহলে windscribe সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন।

মজার বিষয় হলো আপনি এই সফটওয়্যার উইন্ডোজ এবং গুগল ক্রোম এ এক্সটেশনের মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি ফ্রি ভিপিএন সফটওয়্যার ব্যবহার করলে প্রতিদিন 330 এমবি ডাটা ব্যবহার করতে পারবেন। এরকম ভাবে আপনাকে প্রতি মাসে 10 জিবি ফ্রি ডাটা দেওয়া হবে।

আপনি যদি উক্ত ভিপিএন সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে চান? তাহলে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।

ডাউনলোড করুনঃ windscribe VPN

Speedify VPN Software

কম্পিউটার এর মাধ্যমে ভিপিএন সফটওয়্যার ব্যবহার করতে চাইলে Speedify অন্যতম একটি ভিপিএন। আপনি এর মাধ্যমে অনেক দ্রুত ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবনে।

এছাড়া আপনি এই সফটওয়্যার ব্যবহার করে মাসে 5 জিবি ফ্রি ডাটা ব্যবহার করার সুযোগ পাবেন। তাই আপনার উচিত উক্ত সফটওয়্যার ব্যবহার করা।

ডাউনলোড করুনঃ Speedify

Tunnelbear VPN Software

যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য প্রথম ভিপিএন ব্যবহার করতে চান। তারা Tunnelbear ব্যবহার করতে পারেন। এছাড়া আপনি উক্ত ভিপিএন মোবাইল, কম্পিউটার এর মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি এই ভিপিএন সফটওয়্যার ব্যবহার করে মাসে 500 এমবির মতো ফ্রি ডাটা খরচ করতে পারবেন।

কম্পিউটারের জন্য আর অন্য কোন ভিপিএন সফটওয়্যার না খুজে এখনি এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে কাজ শুরু করুন।

ডাউনলোড করুনঃ Tunnelbear

ভিপিএন ব্যবহারের সুবিধা গুলো

আপনি যখন ভিপিএন সার্ভিসের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন। তখন আপনার পার্সোনাল তথ্য গুলো সুরক্ষা থাকবে।

যার মাধ্যমে হ্যাকরাদের নজর থেকে অনেক দুরে বসবাস করতে পারবেন।

কোন প্রকার চিন্তা ভাবনা ছাড়া আপনি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন, আপনার পছন্দ মতো দেশ গুলোর লোকেশন নিয়ে। ভিপিএন ব্যবহার করে আপনার ইন্টারনেট পরিচয় গোপন রাখতে পারবেন।

আপনি কোন দেশ বা শহর থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন সেটি গোপন রাখতে পারবেন। ভিপিএন ব্যবহার করে আপনি ব্লগ ওয়েবসাইট, অ্যাপস গুলোতে মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন।

আপনার নিজের আইপি ঠিকানা পরিবর্তন করে, অনেক সহজে অন্য দেশের আইপি এড্রেস যুক্ত করতে পারবেন। এতে আপনার চোখে ভেলকি লেগে যাবে।

উক্ত ভিপিএন ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আপনি যদি ফ্রি ভিডিএন ব্যবহার করেন। তাহলে আপনার ইন্টারনেট স্পিড কম হওয়া সম্ভবনা থাকবে।

তাই আপনি সব সময় কিছু টাকা খরচ করে প্রিমিয়াম ভিপিএন অ্যাপস বা সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করার চেস্টা করবেন।

আপনি যদি উক্ত বিষয় গুলো ভালো করে মনযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে আপনিও ভিপিএন এর সুবিধা গুলো জানতে পারছেন। আপনি যদি কোন খারপ লক্ষ্য নিয়ে ভিপিএন (VPN) ব্যবহার করেন।

তাহলে ভিডিএন কোম্পানি সহজে আপনার IP Address বের করতে পারবে। তাই কোন খারাপ কাজের জন্য ভিপিএন ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজ আমাদের এই আর্টিকেলে আপনাকে জানানো হলো- ভিপিএন (vpn) কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম ও সুবিধা গুলোর সম্পর্কে।

ট্যাগঃ VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা

VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা VPN কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা

আপনি যদি উক্ত আর্টিকেল পড়ে উপকৃত হন তাহলে একটি কমেন্ট করে জানাবেন। এবং আপনার বন্ধুদের জন্য একটি শেয়ার করবেন। আমাদের সাথে শেষ পর্যন্ত সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap