কপি পেস্ট এর কাজ করে অনলাইনে আয় [copy past]

কপি পেস্ট করেও আয় করা যায়। কথাটি শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্যিই কপি পেস্ট করে অনলাইনে ইনকাম করা যায়। তবে, এই কাজটি শুনতে যতোটা সহজ মনে হচ্ছে, আসলে এটি তেমন সহজ নয়। এটি খুবই কষ্টকর একটি কাজ। এর জন্য আপনাকে দীন রাত পরিশ্রম করতে হবে। সধারণত, কোন দক্ষতা না থাকলে নিতান্তই টাকার অভাবে এই কাজটি করে থাকে। তবে, এই কাজ করে আপনি মোটামুটি নিজেকে চালানোর মতো অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। 

অতিরিক্ত কোন দক্ষতা থাকা লাগে না বলে এই কাজকে ছোট করে দেখার কোন সুযোগ নেই। এই কাজটি করার জন্য আপনার হয়তো আলাদা কোন দক্ষতার প্রয়োজন হবে না। কিন্তু, আপনার প্রচুর ধৈর্যশক্তি থাকতে হবে; যেটা সবার মাঝে থাকে না। 

পাশাপাশি বলে রাখা ভালো, আজকের যাদেরকে দেখে আপনারা অনলাইনে কাজ করতে উৎসাহিত হন, তাদের অনেকেই এই কাজ দিয়ে অনলাইনের পদযাত্রা শুরু করেছিলেন। আস্তে আস্তে, এই কাজ থেকে পাওয়া অর্থ থেকে কিছু অর্থ অন্যান্য দক্ষতা অর্জনের জন্য ব্যবহার করেছেন। তারপর, সেই দক্ষতা দিয়ে আজকের এই অবস্থানে এসেছেন। সে হিসেবে বলাই যায়, কপি পেস্টের কাজটি আপনার জীবনের প্রথম ভালোবাসা, যাকে ভালবেসেছিলেন কিন্তু পাননি। তবে, তার থেকে নতুন জীবনের শিক্ষা অর্জন করে বহুদূর এগিয়ে গেছেন।

কপি পেস্ট করে অনলাইনে আয়
কপি পেস্ট করে অনলাইনে আয়

কী কী লাগে কপি পেস্টের কাজ করতে?

মূলত, তেমন কিছুই লাগে না কপি পেস্টের কাজ করতে তারপরও, নীচের এই সরঞ্জামগুলো ছাড়া আপনি এই কাজ খুব একটা ভালোভাবে করতে পারবেন না। 

১। দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংযোগ

২। মোটামুটি মানের একটি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ 

কেন করবেন কপি পেস্টের কাজ?

কপি পেস্টের কাজ করা যায় ঘরে বসেই

এই কাজটি করতে আপনার আলাদা কোন অফিসে যাওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। পড়বে না একটা ঘড়ি ধরে প্রতিদিন একই সমইয়ে কাজ করার। আপনার যখন সুযোগ হবে, তখনই ঘরে বসে এই কাজটি করতে পারবেন। যার কারণে, এই কাজটি অতিরিক্ত উপার্জনের জন্য খুবই সুবিধে জনক।

কপি পেস্ট করতে লাগবে না কোন দক্ষতা কিংবা কোন শিক্ষাগত যোগ্যতা

এই কাজটি করার জন্য আপনার আলাদা কোন দক্ষতার প্রয়োজন হবে না। প্রয়োজন হবে না, নির্দিষ্ট কোন বিষয়ে ডিগ্রী অর্জন করা। যার কারণে, প্রায় সবাই কাজটি করতে পারবেন। 

কপি পেস্টের কাজ তেমন কোন কঠিন কাজ নয়

কপি পেস্টের কাজটি খুব একটা কঠিন কাজ নয়। এই কাজে আপনি নিজেই নিজেকে মনিটর করবেন। আপনি নিজেই নিজেকে বিচার করবেন। তাই, এই কাজটি করতে খুব একটা খারাপ লাগে না। 

বাড়তি আয়ের সুযোগ 

কপি পেস্টের কাজ করে আপনি বড়লোক হতে পারবেন না। তবে, আপনি অতিরিক্ত কিছু টাকার প্রয়োজন হলে কিংবা বিপদে পড়লে, এই কাজ করে উপার্জন করতে পারবেন। 

কপি পেস্টের কাজ করবেন কীভাবে?

অধিকাংশ সময় কোন কন্টেন্ট থেকে কপি করে এবং অন্য ফাইলে পেস্ট করাই মূলত কপি পেস্টের কাজ। এক্ষেত্রে, আপনাকে ডাটা কোন ফাইল থেকে কপি করে এমএস ওয়ার্ড ডকুমেন্টে পেস্ট করতে হতে পারে। 

ডাটা হতে পারে যেকোনো ধরণের। হতে পারে তা কারো নাম, কারো ইমেইল এড্রেস, হতে পারে হোম এড্রেস, হতে পারে ফোন নাম্বার ইত্যাদি। তবে, অবশ্যই আপনাকে এক্সেল এবং ওয়ার্ড ডকুমেন্টের বেসিক ফর্মেট নখদর্পনে রাখতে হবে। 

আবার, কিছুক্ষেত্রে আপনার কাজ হবে একটা লিংক তৈরি করা। তারপর,  সেই লিংকটি আপনি মার্কেটিং করবেন। 

আপনার তৈরি করা লিংটিতে যতো বেশি সংখ্যক লোক ক্লিক করবে, আপনার ইনকাম ততোবেশি হবে।

কপি পেস্টের কাজ করে উপার্জিত অর্থ কীভাবে পাবেন? 

পেমেন্ট মেথড পুরোটাই নির্ভর করে আপনি যে সাইটে কাজ করবেন তার উপর।  তবে, এক্ষেত্রে আপনার কাজ থেকে তারা কী কী উপকার পাচ্ছে, তা জেনে রাখতে হবে। কেননা, আপনি যদি নাই জানেন আপনার কাজ থেকে তারা কীভাবে উপকৃত হচ্ছে, তাহলে সে কাজ করার অর্থ নেই। পাশাপাশি, এক্ষেত্রে ৯০% সম্ভাবনা আপনি সাইট থেকে পেমেন্ট পাবেন না। কেননা, অদিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যাবে আপনি স্প্যাম সাইটে কাজ করেছেন।  

কপি পেস্টের কাজ কোথায় করবেন?

এবার, আপনাকে বেশ কিছু সাইটের কথা বলা হবে, যেখান থেকে শতভাগ নিশ্চিত আপনি ইনকাম করতে পারবেন।  মূলত, এদের সব গুলো একই রকম একই কাজ করে থাকে। শুধু মাত্র সাইটগুলো আলাদা। আর তাদের পেমেন্ট মেথড  আলাদা। পাশাপাশি, তাদের  অর্থ দেবার পরিমাণ ভিন্ন ভিন্ন হবে। তাই, আপনি যদি একটি সাইটগুলো সম্পর্কে ধারনা নিতে পারেন, তবে এই সাইটগুলোতে কাজ করতে আপনার কোন অসুবিধেই হবে না।  

মূলত, এই সাইটগুলো আপনাকে পেমেন্ট করবে আপনার তৈরি করা লিংকের ট্রাফিক কোয়ালিটির উপরে। আপনার লিংকে যতো বেশি ট্রাফিক হবে, ততো বেশি তাদের সাইটে ভিজিট হবে। ফলে, তাদেরও ইঙ্ককাম হবে, সাথে আপনারও হবে। আর, যার ট্রাফিক যতো বেশি হবে, তার ইনকামও ততো বেশি হবে।

এবার, সাইটগুলোর নাম ও কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য নীচে উল্লেখ করা হলো।

১. অও.আইও

সাইটি সম্পর্কে প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য,

পেমেন্ট মেথড: পেপাল এবং পেঁজা

সর্বনিম্ন উইথড্রো: সর্বিনিম্ন ৫ ডলার 

রাফারেন্স হিসেবে উপার্জন: ২০% কমিশন 

আলেক্সা র‍্যাংক (সারাবিশ্ব): ৪০৮ 

২. লিংকশ্রিঙ্ক.নেট

সাইটি সম্পর্কে বিস্তারিতকিছু তথ্য,

পেমেন্ট মেথড: পেপাল, পেঁজা এবং বীটকয়েন

সর্বনিম্ন উইথড্রো: সর্বিনিম্ন ৫ ডলার 

রাফারেন্স হিসেবে উপার্জন: ২০% কমিশন 

আলেক্সা র‍্যাংক (সারাবিশ্ব): ৬০৬

৩. বিসি.ভিসি

প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য সাইটি সম্পর্কে,

পেমেন্ট মেথড: পেপাল এবং পায়োনিয়ার

সর্বনিম্ন উইথড্রো: সর্বিনিম্ন ১০ ডলার 

রাফারেন্স হিসেবে উপার্জন: ১০% কমিশন সারাজীবনের জন্য

আলেক্সা র‍্যাংক (সারাবিশ্ব): ১,১৩১

৪. সরটি.এসটি

সাইটি সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য,

পেমেন্ট মেথড: পেপাল, পায়োনিয়ার এবং ওয়েবমানি 

সর্বনিম্ন উইথড্রো: পেপালে  ৫ ডলার, পায়োনিয়ারে ২০ ডলার, এবং ওয়েবমানিতে ৫ ডলার  

রাফারেন্স হিসেবে উপার্জন: ২০% কমিশন সারাজীবনের জন্য 

আলেক্সা র‍্যাংক (সারাবিশ্ব): ২,২৯৪

৫ এডফ.লি

গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য সাইটি সম্পর্কে,

পেমেন্ট মেথড: পেপাল এবং পায়োনিয়ার

সর্বনিম্ন উইথড্রো: সর্বিনিম্ন ৫ ডলার 

রাফারেন্স হিসেবে উপার্জন: ২০% কমিশন সারাজীবনের জন্য 

আলেক্সা র‍্যাংক (সারাবিশ্ব): ৯২

দেশ অনুসারে কতো পেমেন্ট করে?

পেমেন্টের পরিমাণ বোঝার জন্য আপনাকে প্রথমে জানতে হবে, সিপিএম। সিপিএম হলো কসট পার মাইল। এর অর্থ হলো প্রতি ১০০০ ভিজিটরের জন্য আপনাকে তারা কতো পে করবে। আর এটিকে বলা হয় সিপিএম। এই সিপিএম আবার বিভিন্ন দেশের জন্য বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। তবে, সাধারনত এটি সর্বনিম্ন ১ ডলার থেকে ১৫ ডলার পর্যন্ত হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জাপান- এই দেশ গুলোর সিপিএম রেট আনেক ভাল হয়ে থাকে। তাই, যে দেশের সিপিএম রেট বেশি, সেই দেশগুলতে যদি লিংক শেয়ার করতে পারেন, তবে আপনার জন্য ভালো হয়। কেননা, তখন ঐ লিংকে ক্লিক করলে, আপনি প্রতি ১০০০ ক্লিকের জন্য মিনিমাম ১ ডলার হতে ১৫ ডলার বা তারও বেশি উপার্জন করতে পারবেন। 

কীভাবে পাবেন পেমেন্ট?

এই ধরণের সাইট গুলো সব আলাদা আলাদা পেমেন্ট মেথড ব্যাবহার করে থাকে। তাই, প্রতিটি সাইটে কাজ করার আগে তারা কীভাবে পেমেন্ট করে থাকে, সে সম্পর্কে ধরনা নিয়ে নিন। তারপর, সেই হিসেবে নিজে পেমেন্ট নেওয়ার ব্যবস্থা করে ফেলেন। 

তবে, সাধারনত প্রায় বেশির ভাগ সাইটই পেপালে পেমেন্ট করে থাকে। তাই, সবচেয়ে ভালো হয় আপনার একটা পেইপাল একাউন্ট থাকলে। কেননা, তাহলে আপনি যে কোনো সাইট থেকে পেমেন্ট নিতে পারবেন। এবং, আপনি বিভিন্ন পেমেন্ট মেথড ব্যবহার করার বিভ্রান্তি থেকে মুক্তি পাবেন। 

আশা করি, কপি পেস্ট জব সম্পর্কে আপনার বিস্তারিত ধারণা হয়ে গেছে। তবে, আর দেরি কেনো। বসে না থেকে আজই শুরু করুন কপি পেস্টের কাজ। 

 

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

You May Like

1 thought on “কপি পেস্ট এর কাজ করে অনলাইনে আয় [copy past]”

Leave a Comment