Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম

Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম : বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের অনেক নাগরিক রয়েছে। যাদের এনআইডি কার্ডের ভুল রয়েছে।

আর এন আই ডি কার্ড সংশোধনের আবেদন করার পরে, অনেকের মনে হতে পারে, এনআইডি কার্ড সংশোধন না করলেও চলবে।

আপনি যদি এনআইডি কার্ড সংশোধনের জন্য আবেদন করে ফেলেন, তাহলে কি করবেন।

Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম
Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম

অবশ্যই আপনাদের উচিত হবে, Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করা। তবে কিভাবে এনআইডি সংশোধনের আবেদন বাতিল করবেন।

আপনি তো, সকল প্রকার কাগজপত্র দিয়ে সংশোনের আবেদন সাবমিট করে ফেলেছেন। এছাড়া, আপনার আবেদন এর কার্যক্রম গ্রহণে চলে এসেছে।

হ্যাঁ বন্ধুরা অনেকেই এমন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকে। কিন্তু এত বেশি চিন্তা করার কারণ নাই।

আপনারা চাইলে, খুব সহজেই আপনার Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করে দিতে পারবেন।

তাই, আজ আমি আপনাদের জানাচ্ছি, Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম সম্পর্কে। জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন আবেদন বাতিল করতে চান।

তাহলে আমাদের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

আপনাদের যেকোনো কারনেই এনআইডি কার্ড সংশোধন আবেদন করার পর যদি দেখা যায়। এনআইডি কার্ড সংশোধন না করলেও চলবে। এনআইডি কার্ড সংশোধনের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে অনেকেই হতাশ হয়ে পড়ে। তারা এই ভেবে যে, আবেদন অনুমোদন হয়ে গেলে, তো আরো একটি ঝামেলা হয়ে যাবে।

তখন হয়তো আপনি নির্বাচন অফিসে অবশ্যই যোগাযোগ করবেন। সেখান থেকে অবশ্যই আপনাকে পরামর্শ দেয়া হবে।

কিন্তু সেই পরামর্শ আরো এক ধরনের চিন্তায় পড়ে যাবেন।

কারণ নির্বাচন অফিসে বলা হয়। আপনি একটি আবেদন করেন, আপনার এনআইডি কার্ড সংশোধন বাতিল করে দেব।

এখানে, আপনি কিন্তু আবেদন করবেন কিভাবে, সে বিষয়ে হয়তো ভালো করে জানেন না।

তাই, আপনি যদি এমন সমস্যায় পড়ে থাকেন। এবং এই আর্টিকেলটি পড়তে থাকেন। তাহলে অবশ্যই এনআইডি কার্ড সংশোধন বাতিলের আবেদন কিভাবে লিখতে হয়।

এছাড়া, আবেদন ফরম টি আমরা ডাউনলোড করার একটা লিংক দিয়ে দেবো। সেটা সঠিকভাবে পূরণ করে, আপনারা নির্বাচন অফিসে জমা দেওয়ার পর। আপনার এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করে দিতে পারবেন।

Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম

Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করে দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসার বরাবর একটি দরখাস্ত লিখতে হবে।

আপনার আবেদনে উল্লেখ থাকতে হবে আপনি আপনার এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন করেছিলেন এবং সেটি চলমান আছে।

কিন্তু বর্তমানে আপনি এনআইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করতে চান না।

এন আই ডি সংশোধন আবেদন বাতিল করার জন্য মহোদয় বরাবর আবেদন করবেন।

আপনি একটি A4 সাইজের, কাগজে লিখে এবং কম্পিউটার টাইপিং করে এছাড়া আমাদের ডাউনলোড লিঙ্ক থেকে ডাউনলোড করে।

নিজের হাতে পূরণ করে আবেদনটি সাবমিট করতে পারবেন।

কিন্তু বর্তমান সময়ের সব কিছু ডিজিটাল হওয়ার ক্ষেত্রে আপনাদের পক্ষে, কম্পিউটার টাইপিং করে আবেদনটি দেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছি।

আপনি যদি এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন বাতিল করতে চান। তাহলে নিচে দেওয়া আবেদনপত্রটি অনুসরণ করুন।

আমরা যে আবেদনের নমুনা দিয়েছি সে অনুযায়ী আপনি যদি একটি দরখাস্ত লিখে নির্বাচন অফিসে জমা দেন তাহলে আপনার এনআইডি সংশোধনের আবেদন বাতিল হবে।

Nid সংশোধন আবেদন বাতিল করার দরখাস্ত

তারিখ : ০১ জানুয়ারি ২০২৩ ইং

বরাবর

উপজেলা নির্বাচন অফিসার

ঝিনাইগাতী, শেরপুর।

বিষয়ঃ এনআইডি কার্ড (Nid Card) সংশোধনের আবেদন বাতিল করা প্রসঙ্গে।

জনাব,

বিনীত নিবেদন এই যে আমি মোঃ/ মোছাঃ (ব্যক্তির নাম লিখবেন), পিতাঃ মোঃ (পিতার নাম লিখবেন), মাতাঃ মোছঃ (মাতার নাম লিখবেন), গ্রামঃ (নিজের বর্তমান ঠিকানা লিখবেন গ্রাম), ডাকঘরঃ (আপনার ডাকঘরটি লিখবেন), উপজেলাঃ (আপনি যে উপজেলায় বসবাস করেন সে উপজেলার নামটি উল্লেখ করবেন), জেলাঃ (আপনি যে জেলায় বসবাস করেন সেই জেলার নামটি উল্লেখ করবেন)। আমি বিগত ৩০/১১/২০২২ ইং তারিখে অনলাইনের মাধ্যমে আমার এনআইডি কার্ড সংশোধন এর আবেদন করেছি। যার এনআইডি নম্বর- ১১১২২২৩৩৩৪৪৪৫৫৫০০। আমার সংশোধনের আবেদন টি এখনো অনুমোদন হয়নি পেন্ডিং অবস্থায় রয়েছে।

এমতাবস্থায় আমি আমার এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন বাতিল করতে ইচ্ছুক। যে সমস্যার জন্য আমি আমার এনআইডি কার্ড এর তথ্য সংশোধন করার জন্য আবেদন করেছিলাম সেই সমস্যার সমাধান হয়ে গেছে বিধায় আমার এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন বাতিল করা প্রয়োজন।

অতএব, মহোদয় সমীপে বিনীত প্রার্থনা এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন বাতিল করে পুনরায় ব্যবহার করার সুযোগ দিতে আপনার সু-আজ্ঞা হয়।

বিনীত নিবেদক/নিবেদিকা

স্বাক্ষর দেবেন

আপনার নাম লিখবেন

Nid নং : ১১১২২২৩৩৩৪৪৪৫৫৫০০

মোবাইল নম্বর: ০১৯******১১

আপনি যদি এ দরখাস্ততে লিখতে না পারেন তাহলে আপনার জন্য আমরা সহজ একটি মাধ্যম এখানে যুক্ত করে দিয়েছি।

আর সেটি হচ্ছে, এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করতে চাইলে। পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করে, আবেদনপত্রটি নির্বাচন অফিসে সাবমিট করতে পারবেন। কিন্তু সেখানে আপনার নাম ঠিকানা যুক্ত করতে হবে।

ডাউনলোড করুনঃ Nid সংশোধন আবেদন বাতিল ফরম পিডিএফ

আপনারা উপরের আলোচনা থেকে আবেদনপত্র লেখার নমুনা দেখেছেন। সেই অনুযায়ী আপনি যদি একটি দরখাস্ত নির্বাচন অফিসার বরাবর করতে পারেন। তাহলে আপনার এনআইডি সংশোধনের আবেদন বাতিল করতে পারবেন।

যখন নির্বাচন অফিসে আপনার দেওয়া পৌঁছবে। তখন নির্বাচন অফিস করতে আপনার বিষয়টি নিয়ে কাজ করবে।

আর বিশেষ করে এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করার জন্য আবেদনকারীর নিজের উপস্থিত হয়ে আবেদনপত্র দাখিল করতে হবে।

এক্ষেত্রে আবেদন করলে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আপনার আবেদনটি গ্রহণ করবে না।

শেষ কথাঃ

এনআইডি কার্ড সংশোধন আবেদন বাতিল করার বিষয়ে যদি আপনার কোন প্রশ্ন থাকে। তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানিয়ে দিতে পারেন। আমরা যত দ্রুত সম্ভব উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

তো বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলটি আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই জানিয়ে দেবেন। আর বিশেষ করে এই বিষয়টি আপনার বন্ধুদের জানাতে একটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করবেন।

আর আমাদের ওয়েবসাইট থেকে এনআইডি কার্ড সম্পর্কে নতুন নতুন টিপস এন্ড ট্রিক্স পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap