রাউটার কি ? রাউটার কত প্রকার এবং এর কাজ কি ? (বিস্তারিত জেনেনিন)

আমাদের এই পোস্টে আপনাকে জানাব রাউটার কি? রাউটার কত প্রকর এবং রাউটার এর কাজ কি। এছাড়া রাউটার সম্পর্কে আরো বিস্তারিত অনেক তথ্য জানিয়ে দেব।

আপনি যদি রাউটার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে চান। তাহলে আমাদের দেওয়া আর্টিকেল শেষ পর্যন্ত মনযোগ দিয়ে পড়ুন।

বর্তমান সময়ে যারা কম্পিউটার বা স্মার্ট মোবাইল ফোন ব্যবহার করে তারা সকলেই কিন্তু ইন্টারনেট ব্যবহার করে।

এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমরা সকলেই কোন না কোন কাজ করে থাকি যেমন- ইমেইল, বিদ্যুৎ বিল, অনলাইন শপিং, অনলাইন আয় ইত্যাদি।

আজ প্রতিটি সেক্টরে ইন্টারনেট এর মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার অফিসিয়াল কাজ গুলো করা হয়। সত্যি বলতে ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আমরা আমাদের কাজ গুলো সহজ ভাবে সম্পন্ন করতে পারি।

এছাড়া বর্তমান সময়ে লোকেরা অফিসিয়াল অনেক কাজ নিজের ঘরে বসে সম্পন্ন করতে পারে ইন্টারনেট ব্যবহার করে।

এমনিতে ইন্টারনেট বর্তমানে সকলেই ব্যবহার করছে এবং ইন্টারনেট এর সাথে জরিত অনেক বিষয় গুলো নিয়েও আমরা সকলেই কিছু না কিছু জানি।

তবে এখনও অনেক লোক আছে যারা নতুন করে, ইন্টারনেটের ব্যবহার করছেন। তাই তাদের জন্য ইন্টারনেট এর সাথে জরিত একটি অনেক জরুরী বিষয় হচ্ছে রাউটার। তাই রাউটার নিয়ে এখানে কিছু তথ্য শেয়ার করব।

একটি রাউটার ও ইন্টারনেটের মধ্যে থাকা সম্পর্ক অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তো চলুন রাউটার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

রাউটার কি ? রাউটার কত প্রকার এবং এর কাজ কি ? (বিস্তারিত জেনেনিন)
রাউটার কি ? রাউটার কত প্রকার এবং এর কাজ কি ? (বিস্তারিত জেনেনিন)

রাউটার কি?

রাউটার হচ্ছে এমন একটি নেটওয়ার্কিং হার্ডওয়ার যাকে একটি কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং ডিভাইস বললেও চলে।

উক্ত নেটওয়ার্কিং ডিভাসের মাধ্যমে বিভিন্ন কম্পিউটার নেটওয়ার্ক এর সাথৈ যুক্ত হয়ে তাদের মধ্যে ডাটা পেকেট গুলোকে ফরোয়াড বা মুভ করা হয়।

একটি রাউটারের কাজ হচ্ছে বিভিন্ন কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মধ্যে যোগাযোগ করার মাধ্যম সৃষ্টি করে।

এছাড়া নেটওয়ার্কের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করার জন্য আইপি এড্রেস এর ব্যবহার করা হয়।

তার জন্য রাউটারের সংজ্ঞা কি এই বিষয়ে বলতে গেলে রাউটার কে এমন একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস বা এক্সটারনার হার্ডওয়ার বলা যেতে পারে। যার মাধ্যমে বিভিন্ন আলাদা আলাদা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক গুলোকে যুক্ত করা হয়।

এই জন্য একটি রাউটার এই কাজটি Wired বা Wireless কানেকশনের মাধ্যমে করতে পারে। ওয়্যারলেস বা বেতার মাধ্যমে যে গুলো রাউটার বিভিন্ন কম্পিউটার নেটওয়ার্ক গুলোতে যুক্ত করে, সেগুলোকে বলা হ য় ওয়াইফাই রাউটার।

রাউটার হচ্ছে এমন একটি ডিভাইস যা একটি কম্পিউটার নেটওয়্যার্ক কে আরেকটি কম্পিউটার নেটওয়র্কের সাথে যুক্ত করে।

যদি ইন্টারনেট এর ক্ষেত্রে বলা হয়- রাউটার হলো সেই মাধ্যম যার ব্যবহার করে, একটি নেটওয়্যার্ক থেকে ইন্টারনেট ডাটা অন্য কম্পিউটার নেটওয়ার্ক গুলোতে ফরওয়ার্ড করা হয়।

এছাড়া রাউটারের ফলে অন্য কম্পিউটার নেটওয়ার্ক গুলো একটি বিশেষ ইন্টারনেট কানেকশন কম্পিউটার নেটওয়ার্ক থেকে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটি গ্রহণ করতে পারে।

রাউটার নাম এই নেটওয়ার্ক ডিভাইস টি প্রথম মডেল 1974 সালে ডেভেলপ করা হয়। কিন্তু মনে রাখবেন রাউটার এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ডাটা বা ট্রাফিক অন্যান্য কম্পিউটার গুলোতে প্রদান করার জন্য আগে রাউটার টি নিজে একটি মডেমের সাথে যুক্ত করা থাকতে হবে।

তার কারণ হলো একটি মডেমের মাধ্যমেই রাউটার ইন্টারনেট ডাটা গ্রহণ করে থাকে। আমরা আশা করি উক্ত আলোচনাতে থেকে পরিষ্কার ধারনা নিতে পারছেন যে, রাউটার আসলে কি?

রাউটার কত প্রকার ও কি কি?

একটি রাউটারের অনেক ধরনের প্রকার আছে। কারণ বর্তমান সময়ে অনেক আলদা আলাদা রাউটার রয়েছে।

কিন্তু আমি নিচের অংশে আপনাকে কিছু জনপ্রিয় রাউটারের প্রকার গুলো বলব। যেমন-

  • Broadband routers (Wired routers)
  • Wireless routers (Wi-fi routers)
  • Core routers
  • Edge routers
  • Inter provider border routers

Broadband routers (Wired routers)

Broadband routers (Wired routers) এই ধরণের রাউটার গুলো দুটি বা তার থেকে অধিক কম্পিউটার গুলোতে যুক্ত করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

এরকম Broadband রাউটার গুলোর মাধ্যমে অনেক হাই স্পেড ইন্টারনেট ব্যবহার করা সম্ভব। রাউটার গুলা একটি Wired Connection এর মাধ্যমে মডেম থেকে ইন্টারনেট সার্ভিস গ্রহণ করে।

এবং তারপরে আপনার ঘরে বা অফিসে থাকা অন্যান্য ডিভাইস গুলোকে সেই ইন্টারনেট কানেকশনের সাথে যুক্ত হওয়ার পথ করে দেয়।

Wireless Routers

বর্তমানে wireless router এর ব্যবহারের অনেক চাহিদা রয়েছে। ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য বা অফিসিয়াল কাজে আমাদের বাসা দপ্তরে বেশির ভাগ সময় wireless router গুলো বেশি ব্যবহার হয়।

উক্ত wireless router রাউটার গুলোর মাধ্যমে একটি কম্পিউটার কোন তার ছাড়াই অন্য একটি কম্পিউটার যুক্ত করে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

তার জন্য এই রাউটারকে বলা হয় wireless router তার ছাড়া। এই সকল রাউটার গুলো একটি wireless সিগনালের নির্ধারিত এরিয়া তৈরি করে থাকে।

যে নির্ধারিত এরিয়ার ভেতরে থাকে wireless সিগনাল এর সাথে একটি কম্পিউটার, মোবাইল, ল্যাপটপ ইত্যাদি ডিভাইসে যুক্ত করে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন।

Core Router

Core router এর মাধ্যমে বিভিন্ন আলাদা আলাদা জায়গা থেকে রাউটার গুলো এক সাথে যুক্ত করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

মনে করুন- আপনার কোম্পানিতে ৫ টি রাউটার আলাদা আলাদা জায়গায় আছে। এখন সেই ৫ টি আলাদা আলাদা রাউটার গুলো একসাথে পরস্পরে যুক্ত করার কাজ করে এই Core router.

Edge Routers

Edge Routers রাউটার গুলোকে ইন্টানেট সার্ভিস প্রোভাইডার বা ISP এর পাশে রাখা হয়। বাহিরের প্রটোকল যেমন- Border Gateway Protocal গুলোকে অন্যান্য ISO এর BGP এর সাথে কনফিগার করে।

Inter Provider Border Routers

আপনারা ISP সম্পর্কে অবশ্যই জানেন। আইএসপি ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার। যেমন- Airtel, Reliance, BSNL ইত্যাদি। যে গুলোর মাধ্যমে আমরা আমাদের মোবাইল কিংবা পিসিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি।

এই সকল আইএসপি গুলোকে পরস্পর সংযুক্ত করার জন্য এই Inter provider border routers ব্যবহার করা হয়।

আপনি যদি উক্ত আলোচন সঠিক ভাবে অনুসরণ করে থাকেন। তাহলে রাউটার কি, রাউটার কত প্রকার, রাউটার এর কাজ কি এই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পারছেন।

রাউটার এর কাজ কি?

মোট কথা- রাউটার এর কাজ হলো- আপনি যদি কম্পিউটার বা মোবাইলের মাধ্যমে ওয়াইফাই ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই রাউটার ব্যবহার করতে হবে।

রাউটার ব্যবহার করার ফলে আপনার ইন্টারনেট সংযুক্ত পাওয়া যায়। আর আপনার ওয়াফাই ব্যবহারের জন্য রাউটার ছাড়া কোন ভাবেই ইন্টারনেট সংযুক কাজ করবে না।

তাই রাউটার দ্বারা ইন্টারনেট কানেকশন যুক্ত করা হয়।

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজ আমাদের এই পোস্ট থেকে জানতে পারলেন, রাউটার কি, কত প্রকার এবং এর কাজ কি। আপনি যদি উক্ত আলোচনা মনযোগ দিয়ে পড়নে তাহলে রাউটার সম্পর্কে পূর্ণ ধারণা নিতে পারছেন।

আমাদের দেওয়া আর্টিকেল আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই একটি কমেন্ট করে জানাবেন। আর নতুন নতুন আর্টিকেল পড়তে চাইলে নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবদা।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap