Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে)

বর্তমান সময়ে অনলাইনে আয় করার অসংখ্য উপায় আছে। যার মধ্যে জনপ্রিয় একটি অনলাইন আয়ের মাধ্যম হলো ফ্রিল্যান্সিং। এই সময়ে যারা নতুন ফ্রিল্যান্সার আছে তারা সব সময় জানতে চায় যে, আপওয়ার্ক কি ? upwork কিভাবে কাজ করে।

তাই আমাদের এই পোস্টে, আপনাদের সাথে আলোচনা করব Upwork কি এবং আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করতে হয়। যাবতীয় তথ্য জানতে নিচে দেওয়া লেখা গুলো শেষ পর্যন্ত মনযোগ দিয়ে পড়ুন।

আমরা জানি, যারা নতুন ফ্রিল্যান্সিং শুরু করে, একজন ফ্রিল্যান্সিং হিসেবে ক্লায়েন্ট খুঁজে পাওয়া একটি চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার।

অনেক নতুন ফ্রিল্যান্সার আছে কাজ শেখঅর পরে সঠিক ক্লায়েন্ট খুঁজে না পেয়ে কাজই ছেড়ে দেয়।

আপওয়ার্ক এমন একটি প্লাটফর্ম যার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সার ও একজন ক্লায়েন্ট এর মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করে থাকে। এখানে দ্রুত যে কোন ফ্রিল্যান্সার ও ক্লায়েন্ট পাওয়া যায়।

উক্ত আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেস এর মাধ্যমে আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে ক্লায়েন্ট খুঁজেন তাহলে সহজেই পেয়ে যাবেন। আর যদি একজন ক্লয়েন্ট হিসেবে ফ্রিল্যান্সার খুঁজেন তাহলে দ্রুত যোগাযোগ স্থাপন করতে পারবেন। কাজ করার জন্য এবং কাজ করিয়ে নেওয়ার জন্য।

আমরা জানি, আপওয়ার্ক এ বর্তমানে প্রায় এক কোটির বেশি ফ্রিল্যান্সার কাজ করে যাচ্ছে। উক্ত প্লাটফর্মে কাজের পরিমাণ আছে চার লক্ষ এর বেশি।

আপনার যদি ফ্রিল্যান্সিং এ ভালো কাজের অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে সহজ ভাবে কাজ পেয়ে যাবেন।

আপনি যদি আপওয়ার্কে কাজ করতে চান। তাহলে আপনাকে আগে জানতে হবে, Upwork কি ? তো চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে)
Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে)

আপওয়ার্ক কি? (What is Upwork)

আপওয়ার্ক হচ্ছে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য সব চেয়ে বড় অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস। আগের সময়ে মানে ২০১৩ সালে ‍মার্কেটপ্লেসটির নাম ওডেক্স তবে বর্তমান সময়ে এটির নাম হরো Upwork.

আপওয়ার্ক হলো একটি অনলাইন ওয়েবসাইট। এই সাইটটির প্রধান কাজ হলো একজন ফ্রিল্যান্সার ও একজন ক্লায়েন্ট এর মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করা।

উক্ত কাজ  ‍গুলো পুরো ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আপওয়ার্ক ওয়েবসাইট এর মধ্যে পুরোপুরি ভাবে সম্পূন্ন হয়ে থাকে। ফ্রিল্যান্সার’রা তাদের আয় করার টাকা আপওয়ার্ক কে কিছু টাকা ভাগ দিতে হয়।

একজন ফ্রিল্যান্সার যখন একজন ক্লায়েন্ট এর কাছ থেকে যে, পরিমাণের টাকা কাজের বিনিময়ে ইনকাম করে, সেখান থেকে নির্দিষ্ট একটি ফি কেটে নিয়ে থাকে আপওয়ার্ক।

মনে করুন একজন ফ্রিল্যান্সার আপওয়ার্ক থেকে কাজ করে একজন ক্লায়েন্ট এর কাছ থেকে ১০০ ডলার ইনকাম করে তখন সেই ডলার থেকে ৫% ফি দিতে হয় আপওয়ার্ক মার্কেটপ্লেস কে।

আর যখন আপনি এখানে ৫০০ থেকে ১০০০ ডলার উপার্জন করবেন তখন আপওয়ার্ক ১০% ফি কেটে নিবে। আর যখন কোন ফ্রিল্যান্সার কাজের বিনিময়ে ১০ হাজার ডলার আয় করবে তখন ৫% ফি কেটে নিবে আপওয়ার্ক।

আপনি আপওয়ার্ক থেকে যত বেশি টাকা আয় করবেন তত কম পরিমাণের ফি কেটে নিবে আপওয়ার্ক। এরকম ভাবে যা ক্লায়েন্ট থঅকে তাদের থেকে বিভিন্ন ধরণের ফি নিয়ে থাকে আপওয়ার্ক।

আমরা আশা করি, উক্ত আলোচনা থেকে জানতে পারলেন, আপওয়ার্ক কি। এখন আমরা আপনার সাথে আলোচনা করব, আপওয়ার্কে কি কি কাজ পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ

আপওয়ার্কে কি কি কাজ পাওয়া যায়

বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট গুলোতে সব থেকে বড় অনলাইন মার্কেপ্লেস হচ্ছে- Upwork.

আপওয়ার্ক ওয়েবসাইট এ আপনি বিভিন্ন প্রকার কাজ পেয়ে যাবেন। এর মধ্যে কিছু জনপ্রিয় কাজের বিষয়ে আপনাকে জানাব। যেমন-

  • সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন
  • ডাটা এন্ট্রি
  • গ্রাফিক্স ডিজাইন
  • লোগো ডিজাইন
  • ওয়েব ডিজাইন
  • অ্যাপ (App) ডেভেলপমেন্ট
  • ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
  • ডিজিটাল মার্কেটিং
  • ভিডিও এডিটিং
  • আর্টিকেল রাইটিং ইত্যাদি।

আপওয়ার্কে  কিভাবে কাজ করব

আপনি যদি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আপওয়ার্কে কাজ করতে চান। তাহলে উক্ত তালিকা থেকে যে কোন কাজ শেখা থাকলে, সহজেই কাজ করে ভালো টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

উক্ত যে কোন কাজ করার আগে আপনাকে অবশ্যই সেই বিষয় গুলোর উপর দক্ষা অর্জন করতে হবে।

আপনার যে কোন বিষয়ে কাজ শেখা সম্পন্ন হলে, আপনি ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করার জন্য, আপনাকে আপওয়ার্কে একটি একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

কিভাবে আপওয়ার্কে একটি একাউন্ট তৈরি করবেন, সেই বিষয়ে নিচের অংশে বিস্তারিত আলোচনা কর।

আপওয়ার্কে একটি একাউন্ট তৈরি করার পরে, প্রোফাইল এ আপনার কাজ ও কাজের অভিজ্ঞতা ফুটিয়ে তুলতে হবে। এবং আপনি আপওয়ার্কে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কত টাক/ডলার আয় করতে চান, তার একটি অর্থ যোগ করে দিতে পারবেন।

আপনি যদি ‍উক্ত আপওয়ার্কে কাজ করতে চান। তাহলে আপনি এখানে ঘন্টা হিসেবে কাজ করতে পারবেন। এবং আপনি যদি মাসিক হিসেবে কাজ করতে চান সেটিও করতে পারবেন।

তবে আপওয়ার্কে আপনি কোন ক্লায়েন্ট এর কাজ করতে চাইলে, তার সাথে আপনার কাজের একটি ডিল করে নিবেন। এবং সেই কাজের বিনিময়ে যে টাকা আয় করবেন।

সেটি আপওয়ার্ক একাউন্টে জমা হবে। আপনি ফ্রিল্যান্সিং করে বেশি টাকা আয় করতে পারলে আপওয়ার্ক আপনার আয় করা টাকা হতে কম টাকা কেটে নিবে।

আর আপনি আপওয়ার্কে একাউন্ট তৈরি করার পরে কাজ পাওয়ার জন্য, আপনার অভিজ্ঞতা থেকে যে কাজ গুলো করতে পারেন।

তার প্রপোজাল আপনার ক্লায়েন্ট দের কাছে পাঠাতে পারবেন। সরাসরি আপওয়ার্কে বা ফেসবুক একাউন্ট এর মাধ্যমেও কাজের অর্ডার নিতে পারনে।

আরো পড়ুনঃ

আপওয়ার্ক (Upwork) একাউন্ট তৈরির নিয়ম

আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হোন এবং আপওয়ার্কে একাউন্ট তৈরি করে, কাজ করতে চান। তাহলে আপনাকে আপওয়ার্ক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে।

আপনি উক্ত আপওয়ার্কে দুই ভাবে একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। তো চলুন একাউন্ট খোলার নিয়ম নিচের অংশ থেকে জেনে নেওয়া যাক।

  • একাউন্ট তৈরির জন্য শুরুতে Upwork.com ওয়েবসাইটে গিয়ে Sign Up অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে কাজ করতে চান, তাহলে “I’m a freelancer, looking for work” অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • এছাড়া আপনি যদি একজন ক্লায়েন্ট হয়ে কাজ করাতে চান, তাহলে “I’m a client hiring for a project” অপশনে ক্লিক ক্লিক করতে হবে। নিচের ছবিটি দেখুন?

  • তারপরে “Apply as a Freelancer” অপশনে ক্লিক করুন। নিচের ছবিটি দেখুনঃ

  • তারপরে আপনাকে আরো একটি বক্স দেওয়া হবে। সেখানে আপনার একাউন্ট তৈরি করার ব্যক্তিগত তথ্য দিতে হবে। যেমন
  • First Name, Last Name, Email, Password, Bangladesh সিলেক্ট করে Create My Account অপশনে ক্লিক করতে হবে। নিচের ছবিটি দেখুনঃ

  • উক্ত ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন, Create my account, সেখানে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনাকে আরো একটি বক্স দেওয়া হবে। সেখান থেকে আপনার ইমেইল ভেরিফাই করে নিতে হবে।
  • তারপরে, আপনার আপওয়ার্ক একাউন্ট এপ্রোভ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

উক্ত নিয়ম অনুযায়ী কাজ করতে পারলে, আপনি দ্রুত একাউন্ট তৈরি করে নিতে পারবেন। যখন আপনার একাউন্ট এপ্রোভাল দেওয়া হবে, তখন আপনি আপওয়ার্কে কাজ করার সুযোগ পেয়ে যাবেন।

একাউন্ট খোলা শেষ হলে অবশ্যই আপনার একাউন্ট সুন্দর করে কাস্টমাইজ করে নিবেন। যাতে করে আপনার একাউন্ট ক্লায়েন্ট দেখে বুঝতে পারে, আপনি একজন দক্ষ ফ্রিল্যান্সার।

আপওয়ার্কেকিভাবে কাজ পাবেন ?

আপনার আপওয়ার্ক সাইট লগইন করার পরে, Find Work অপশনে প্রবেশ করে ফিড অপশনে থেকে আপনার পছন্দ মতো যে কোন কাজ খুঁজে নিতে পারবেন।

আপনি যে কাজটি সিলেক্ট করবেন সেই কাজের বিষয় বিস্তারিত পড়ে জেনে নিবেন। আপনার যদি সেই কাজটি সহজ মনে হয় তাহলে Send a Proposal অপশনে ক্লিক করবেন।

তারপরে, আপনার নিজের পরিচয়, কাজের দক্ষতা, কাজের বিনিময়ে অর্থের পরিমান লিখে দিবেন।  তারপরে, ক্লায়েন্ট যদি আপনার বিষয়ে জেনে পছ্ন্দ করে, তাহলে ক্লায়েন্ট আপনার সাথে যোগাযোগ করবে।

আপওয়ার্ক থেকে টাকা তুলার উপায় ?

আপওয়ার্ক থেকে টাকা তুলার জন্যে, আপনি বাংলাদেশে থেকে বিভিন্ন পেমেন্ট মেথড যুক্ত করতে পারবেন।

কিন্তু বাংলাদেশ থেকে যারা ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করছে। তারা তাদের আপওয়ার্কে কাজ করে কাজের বিনিময়ে যে টাকা আয় করে, সেটি পেওনিয়ার একাউন্ট এর মাধ্যমে ‍উত্তলণ করে থাকে।

আপনি একটি পেওনিয়ার একাউন্ট তৈরি করে আপওয়ার্ক থেকে টাকা তুলতে পারবেন। কিভাবে পেওনিয়ার একাউন্ট তৈরি করতে হয়, সেই বিষয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে একটি আর্টিকেল পাবশিল করার আছে। চাইল সেটি দেখে নিতে পারেন।

আপনি পেওনিয়ার ছাড়াও আরো অন্যান্য একাউন্ট ব্যবহার করে টাকা তুলতে পারবেন যেমন- পেপাল একাউন্ট থেকেও টাকা উত্তলণ করতে পারবনে।

আরো পুড়নঃ

শেষ কথা

তো বন্ধুরা আজ আমাদের এই আর্টিকেল থেকে জেনে নিতে পারলেন, আপওয়ার্ক কি ? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করতে হয়। এবং কিভাবে একটি একাউন্ট তৈরি করতে হয় সেই সম্পর্কে।

আপনি যদি ‍উক্ত আলোচনা মনযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে আপনিও আপওয়ার্ক সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা নিতে পারছেন। আমাদের দেওয়া আর্টিকেল কেমন লাগলো, একটি কমেন্ট করে জানাবেন।

ট্যাগঃ Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে) Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে) Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে)

Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে) Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে) Upwork কি? আপওয়ার্কে কিভাবে কাজ করব (বিস্তারিত এখানে)

আমাদের আর্টিকেল শেষ পর্যন্ত মনযোগ দিয়ে পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap