কানাডা জব ভিসা খরচ ২০২২ (বিস্তারিত)

বর্তমান সময়ে, কানাডা জব ভিসা বাংলাদেশ ও ইন্ডিয়ানদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। আর এখনকার সময়ে কানাডা কাজের ভিসা অনেক সহজ করেছে কানাডা প্রধানমন্ত্রি ট্রডো।

কানাডা জব ভিসা ২০২২ সাল এর জন্য জব অফার এবং জব কার্ড সহ ওয়ার্ক পারমিট তুলনা মূলক ভাবে অনেক সহজ করেছে।

কিন্তু কানাডা যাওয়া যতটা সহজ বলা হয় ততটা সহজ না। যদি সহজই হতো তাহলে বাংলাদেশের 50% মানুষ কানাডায় যেত।

কানাডা ভিসা যদি সহজ হতো তাহলে, লোকেরা দুবাই, সৌদি আরব, মালয়েশিয়া ইত্যাদি দেশে যেত চাইত না।

তাই আমরা এই পোস্টে, আপনাদের জনাব, কানাডা জব ভিসার খরচ সম্পর্কে। আপনি যদি উক্ত বিষয়ে সঠিক তথ্য জানতে চান তাহলে নিম্নোক্ত লেখা গুলো শেষ পর্যন্ত অনুসরণ করুন।

কানাডা জব ভিসা খরচ ২০২২ (বিস্তারিত)
কানাডা জব ভিসা খরচ ২০২২ (বিস্তারিত)

কানাডা জব ভিসা ২০২২

বার্তমানে বাংলাদেশের নাগরিক এবং ইন্ডিয়া সহজ বিদেশ ভ্রমণ কিংবা জব এর উদ্দেশ্যে তাদের প্রথম পছন্দ কানাডা জব ভিসা।

আমরা জানি, কানাডা জব ভিসা 2022 পূর্বের থেকে অনেক সহজ করেছে। সে দেশের প্রধানমন্ত্রি এ বিষয়ে ঘোষণা দিয়েছে।

কানাডা জব ভিসা এর জব কার্ড এবং জব অফার কানাডা ওয়ার্ক পারমিট তুলনা মূলক ভাবে অনেক সহজ করা হয়েছে বলে যায়।

মানুষের কথা শুনে বুঝা যায় কানাডা যাওয়া কতটা সহজ। কিন্তু কানাডা যাওয়া কিন্তু অতটা সহজ না। আর যদি তাই হতো তাহলে মানুষ কানাডা ছেড়ে অন্যান্য দেশে গমন করতো না। সব দেশ বাদ দিয়ে লোকেরা কানাডাই যেত।

কানাডা ভিসা ক্যাটাগরি

কানাডা ভিসায় উন্নত জীবন যাপন এবং আধুনিক নাগরিক জীবনের সকল সুবিধা থাকার জন্য প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক সংখ্যক মানুষ নায়াগ্রা জলপ্রপাতের এই দেশটিতে পাড়ি জমায়।

দীর্ঘদিন বিরতির পরে সম্প্রতি আবার 50 টি ক্যাটাগরিতে দক্ষ শ্রমিকদের ভিসা প্রদানের ঘোষা করেছে কানাডা।

কানাডা সরকার জানিয়েছে। স্বাস্থ্য, প্রকৌশল, ব্যবসা এবং তথ্য প্রযুক্তি সহ একাধিক খাতে কাজ করতে সমর্থ ও অভিবাসনে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবে।

আবেদনকারী যোগ্য বলে বিবেচিত হলে নিঃশর্তে পূর্ণকালিন কানাডা জব ভিসা প্রদান করা হবে।

অর্থনৈতিক সক্ষমতা ও জ্ঞান বিজ্ঞানে কানাডা’র অর্জন অন্য দেশ গুলোর কাছে ঈর্ষণীয়। কানাডা সরকার জাতিগত বৈচিত্র্য ধরে রাখার লক্ষ্যে অভিবাসীদের সাদরে বরণ করে নেন।

এর পাশাপাশি বিভিন্ন কর্মসূচি’র অধীনে অভিবাসনে ইচ্ছুকদের কে কানাডায় পাড়ি জমানোর সুযোগ দিয়ে থাকে।

এই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘদীন বিরতির পরে সম্প্রতি আবার পঞ্চাশটি ক্যাটাগরিতে দক্ষ শ্রমিকদের জব ভিসা প্রদান এর ঘোষণা করেছে কানাডা।

কানাডা সরকার আরো বলেছে। ইচ্ছুক ব্যক্তিরা নিজেই সরাসরি অনলাইনের মাধ্যমে কানাডা জব ভিসার জন্য আবেদন করতে পারবে। কোন মধ্যস্ততাকারী বা দালালেদের প্রয়োজন পড়বে না।

আরো দেখুনঃ

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট (জব) ভিসা ২০২২

কানাডায় প্রতি বছর তিন হাজার এর বেশি মানুষ ওয়ার্ক পারমিট ভিসায় কানাডা এসে থাকেন।

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট স্থায়ী ভাবে আবাস কিংবা নাগরিক তথ্য ইমিগ্রেশন থাকলে সরকারি ভাবে স্বীকৃতি এখন পর্যন্ত পাওয়া যায় নি।

শেষ পর্যন্ত উক্ত ভিসার দিকে যাত্রার প্রথম ধাপ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। স্থায়ী ভাবে বসবাসের জন্য এটি এখন পর্যন্ত অন্য কোন বড় মাইগ্রেশনের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়ার্ক পারমটি রুট হিসেবে ধরা হয়েছে।

কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা পাওয়াটা জটিল হতে পারে। কিন্তু তারপরেও এটি একটি ভালেঅ মাধ্যম বা পথ বলা যায়।

দক্ষ ও দ্রুততার সাথে এবং বিরামহীন ভাবে প্রক্রিয়াটি অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে আমাদের এবং নিয়োগ কর্তার পাশাপাশি কাজ করতে হবে।

শুরুতে আপনাকে একটি কানাডিয়ান নাগরিক হতে জব এর জন্য অফার পেতে হবে। এবং সেটি গ্রহণ করতে হবে, যদি অফারটি অবশ্যই অস্থায়ী ভাবে করতে হবে।

যদি নৈমিত্তিক কাজের কথা উল্লেখ করছি না। শুধু কাদের অফারটি আপনি পেয়েছেন সাধারণত আপনার নির্ধারিত সেই দৈর্ঘ্যের এই কাজের জন্য আপনার কয়েক বছর লেগে যাবে।

কানাডার ভিসা পাওয়ার নিয়ম?

আপনি যদি স্থায়ী বা অস্থায়ী ভাবে কানাডা’তে বসবাস করতে চান। তাহলে আপনাকে কিছু মাধ্যম অবলম্বন করতে হবে। কিছু নিয়ম অনুসরণ করে, যার মাধ্যমে আপনি কানাডা ভিসা পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করবেন।

তাদের শর্ত গুলো আপনাকে মেনে নিতে হবে। তাহলে আপনি তাদের কানাডা ভিসার জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

আর যদি আপনি এ গুলো শর্ত না মানতে পারেন। তাহলে আপনি কানাডা ভিসার আশা ছেড়ে দেন। অন্য কোন দেশে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিন।

আরো পড়ুনঃ

কানাডার ভিসা পাওয়ার জন্য যে গুলো থাকা লাগবে?

আপনি যদি কানাডা জব ভিসা করতে চান তাহলে আপনার কিছু যোগ্যতা থাকতে হবে। সেগুলো হলো-

  • আপনাকে কমপক্ষে এইচএসসি পাশ হতে হবে।
  • তারপরে আপনাকে ইংরেজি জানার দক্ষতা থাকতে হবে।
  • আপনাকে যে কোন একটি কাজের উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। এবং কমপক্ষে এক বছর কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • এছাড়া ব্যাংকে লেনদেন এর তথ্য থাকা লাগবে, ৩০ লক্ষ টাকা আপনি লেনদেন করেছেন তার একটি ডকুমেন্ট আপনার কাছে থাকতে হবে।

আপনার কাছে যদি উক্ত সকল কিছুর কাগজ পত্র থাকে। তাহলে আপনি কানাডা জব ভিসা করার শর্ত পূরণ করে, দ্রুত কানাডা ভিসা নিয়ে কানাডায় গমন করতে পারবেন।

কানাডা জব ভিসা খরচ ২০২২

আমরা এখন আপনাকে জানাব, কানাডা জব ভিসার খরচ ২০২২ সম্পরেক। কানাডা যাওয়ার জন্য কত টাকা খরচ হতে পারে। এবং কানাডা যাওয়ার জন্য কত টাকা লাগতে পারে। তো চলুন নিচে দেওয়া তথ্য গুলো দেখে নেওয়া যাক।

  • কানাডা জব ভিসা খরচ = সাত লক্ষ টাকা
  • কানাডা ওয়ার্ক পারমিট ভিসা খরচ = পাঁচ লক্ষ টাকা
  • কানাডা কৃষি ভিসা খরচ = পাঁচ লক্ষ টাকা

আরো দেখুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আমাদের এই আর্টিকেল থেকে আপনাকে জানানো হলো, কানাডা জব ভিসা ২০২২ সম্পর্কে।

আপনি যদি কানাডায় যেতে চান। তাহলে তাদের শর্ত গুলো পুরণ করে দ্রুত ভিসার জন্য অনলাইনে আবেদন করে নিন।

আমাদের লেখা আপনার কাছে, কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। এবং এই বিষয়ে আপনার বন্ধুদের জানাতে নিচে দেওয়া বাটন থেকে একটি শেয়ার করে দিন। ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

3 thoughts on “কানাডা জব ভিসা খরচ ২০২২ (বিস্তারিত)”

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap