ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য করণীয় এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আমাদের মাঝে এমন অনেক লোক আছে যাদের ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার প্রয়োজন। তবে ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য করণীয় কি?

ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলো কি কি লাগে সেই বিষয়ে অনেকের ধারণা নেই।

ভোটার এলাকা পরিবর্তন/ স্থানান্তর করার নিয়ম সম্পর্কে জানাতে আজকের এই পোস্ট লেখা হয়েছে। যাদের ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার দরকার তারা অবশ্যই আমাদের দেওয়া পরামর্শ গুলো অনুসরণ করতে পারেন।

ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য করণীয় এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য করণীয় এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আমরা জানি মানুষ অনেক কর্ম ব্যস্ত জীব। প্রতিদিনের প্রয়োজনীয়তার জন্য মানুষ সব সময় নিজের স্থায়ী ঠিকানায় বসবাস করতে পারেন না।

এমন অসংখ্য লোক আছে। যারা পড়াশোনা, চাকরি বা ব্যবসা কিংবা অন্যান্য প্রয়োজনের তাগিদে নিজ বাড়ী ছেড়ে দুর দুরান্তে গিয়ে বসবাস করেন।

যার ফলে, তাদের নিজের স্থায়ী ঠিকানা তে, ভোটার না হয়ে, বর্তমান ঠিকানায় ভোটার হয়। যেহেতু সেটা তাদের অস্থায়ী ঠিকানা সেহেতু কোন না কোন সময়। তাদের ভোটার এলাকা পরিবর্তন করে, স্থায়ী ঠিকানায় নিয়ে আসার দরকার হয়।

আপনি নিজে যে, উপজেলায় বসবাস করেন। মানে আপনি যে উপজেলায় স্থানান্তরিত হবেন। সেই উপজেলার নির্বাচন অফিসে গিয়ে ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য আবেদন করতে হবে।

ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্যে ভোটার এলাকা স্থানান্তর ফরম-১৩ পুরণ করে, আবেদন করতে হবে।

ভোটার এলাকা পরিবর্তন ফরম অফিস থেকে সরবরাহ করা হয়। অফিসের সামনে ফটোকপির দোকান গুলোতে গিয়েও আপনার ভোটার এলাকা স্থানান্তরের ফরম পেয়ে যাবেন।

এছাড়া, আপনারা চাইলে অনলাইনের মাধ্যমেও ভোটার এলাকা পরিবর্তন করার ফরম-১৩ ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে পারবেন।

ভোটার এলাকা স্থানান্তর আবেদন ফরম পুরণ করার নিয়ম

ভোটার এলাকা স্থানান্তর ফরম-১৩ হাতে নিয়ে সবার আগে ভালো ভাবে পড়তে হবে। ফরম পুরণ করা অনেক সহজ। এছাড়া ফরম পূরণ এর জন্যে নিম্নোক্ত পরামর্শ গুলো আপনাকে অনুসরণ করতে হবে।

যেমন-

  1. ফরম এর ১নং ক্রমিকে আবেদনকালীর নাম বাংলায় লিখতে হবে।
  2. ফরম এর ২নং ক্রমিকে আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্র/ ভোটার আইডি কার্ড নম্বর লিখতে হবে।
  3. ফরম এর ৩নং ক্রমিকে আবেদনকারীর জন্ম তারিখ লিখতে হবে।
  4. ফরম এর ৪নং ক্রমিকে আপনি যে, এলাকায় ভোটার ছিলেন সে এলকার ঠিকানাটি লিখতে হবে।

যেমন-

  • ভোটার নাম।
  • ভোটার এলাকার নম্বর।
  • উপজেলার নাম।
  • জেলার নাম।
  • গ্রাম/রাস্তার নাম এবং নম্বর।
  • বাসা/ হোল্ডিং নম্বর ইত্যাদি।

উপরিউক্ত সকল তথ্য পূরণ করতে হবে। কিন্তু ভোটার নম্বর এবং ভোটার এলাকার নম্বর যদি না জানা থাকে। তবে লেখার প্রয়োজন নেই।

ভোটার এলাকার নাম এবং গ্রাম/ রাস্তার নাম বেশি ভাগ সময় এক হয়ে থাকে। ক্ষেত্র বিশেষ আংশিক আলাদা হতে পারে। তার জন্য ভোটার এলাকার নাম এর স্থানে আপনার গ্রাম/ রাস্তার নাম লিখতে পারেন।

  1. ফরম এর ৫নং ক্রমিকে আপনার যে, ঠিকানায় ভোটর এলাকা স্থানান্তর করতে চান। সেই ঠিকানাটি লিখতে হবে।

যেমন-

  • জেলার নাম
  • উপজেলার নাম
  • ইউনিয়ন পরিষদ সিটি কর্পোরেশন/ পৌরসভা/
  • ওয়ার্ড নম্বর
  • ভোটার এলাকার নাম
  • ভোর এলাকার নম্বর
  • গ্রাম/ রাস্তার নাম এবং নম্বর
  • বাসা/ হোল্ডিং নম্বর
  • ডাকঘর
  • পোস্ট কোড
  • মোবাইল নম্বর লিখতে হবে।

ভোটার এলাকা নাম এবং গ্রাম এর নাম দুইটি আলাদা হতে পারে। আপনার সঠিক ভোটার এলাকা কোনটি যদি না জানা থাকে।

ওয়ার্ড মেম্বার বা এলাকার জনপ্রতিনিধিদের কাছে থেকে আপনার সঠিক ভোটার এলাকা নিশ্চিত হয়ে নিবেন।

ভোটার এলাকা ভুল হলে বা ৫নং ক্রমিকে বর্ণিত তথ্য ভুল লিপিবদ্ধ হলে সকল কষ্ট কিন্তু বৃথা হয়ে যাবে।

তার কারণ আপনার ভোটর তথ্য ভুল ঠিকানায় স্থানান্তর হয়ে যাবে। তাই ৫নং ক্রমিক টি অতিঃ সাবধানতার সঙ্গে পূরণ করতে হবে।

  1. ফরম এর ৬ নং ক্রমিকে বলা হয়ে ৫ নং ক্রমিকে বর্ণিত ঠিকানায় আপনি কত দিন যাবত বসবাস করছেন সেটি উল্লেখ করতে হবে।

এখানে হতে পারে ৫নং ক্রমিক এর ঠিকানা আপনার জন্ম স্থান, হতে পারে ১ বছর যাবত বসবাস করেছেন।

  1. ফরম এর ৭ নং ক্রমিকে বলা হয়েছে আপনি কেন ভোটার এলাকা পরিবর্তন বা স্থানান্তর করবেন। এখানে হতে পারে বৈবাহিক সূত্রে স্বামীর ঠিকানায় বসবাস করছেন।

এছাড়া এটি আপনার স্থায়ী ঠিকানা বিধায় আপনি স্থায়ী ঠিকানায় ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে চান। তবে, আরো অন্যান্য কারণ থাকতে পারে। কারণ যেটাই হোক সেখানে উল্লেখ করলেই হবে।

ফরম এর পিছনে যে পাতা রয়েছে। সেখানে আবেদনকারীর স্বাক্ষর/ টিপসহীর জায়গায় শুধুমাত্র আবেদনকারীর স্বাক্ষর করতে হবে।

তো আপনারা জেনে নিতে পারলেন যে, ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে কিভাবে ফরম-১৩ পুরণ করতে হয়।

এখন আমি আপনাকে জানাব, ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে যে কাগজপত্র লাগবে।

ভোটার এলাকা স্থানান্তর / পরিবর্তন করতে যে কাগজপত্র জমা দিতে হবে ?

ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে কি কি ডকুমেন্ট/ কাগজপত্র লাগবে এই বিষয়ে, ভোটার স্থানান্তর ফরম-১৩ তে উল্লেখ করা আছে। ফরম এর ৮নং ক্রমিক কে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এর বিষয়ে ধারণা পাবেন।

যাবতীয় কাজপত্র গুলো আপনি যে, ঠিকানায় ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে চান সেই ঠিকানা লিখতে হবে। আমি আপনাকে সংক্ষিপ্ত ভাবে জানিয়ে দেব। ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে যে কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

যেমন-

  • চেয়ারম্যান/ পৌরসভা মেয়র/ কাউন্সিলর এর প্রত্যয়ন পত্র লাগবে।
  • বাড়ীর বিদ্যুৎ বিল / গ্যাস বিল এর কপি।
  • চৌকিদারি ট্যাক্স রশিদ/ পৌর করের রশিদ/ বাড়ী ভাড়ার রশিদ।
  • আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয় পত্র এর ফটোকপি।

উক্ত কাগজপত্র গুলো আবেদনপত্রের পিছনে পিন-আপ করে, সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিস জমা দিতে হবে।

তারপরে, আপনার আবেদনপত্র এর নিচের অংশ কেটে নেবে। আর বাকি অংশ আপনাকে দেবে। সেটি যত্ন করে রেখে দিবেন। পরবর্তীতে অফিসে গেলে অবশ্যই আপনাকে দেওয়া স্লিপটি সাথে নিয়ে যাবেন।

আর আপনার আবেদন এর কাজ শুরু হওয়ার পরে, মোবাইল মেসেজ এর মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে, দেওয়া হবে। পরবর্তীতে আরো একটি মেসেজ আসেব। সেখানে বলা হবে।

আপনার আবেদন সম্পন্ন হয়েছে। আপনার ভোটার এলাকা স্থানান্তর হয়েগেছে। এখন আপনি নতুন কার্ড গ্রহণ করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজ আমাদের এই পোস্টে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হলো, ভোটার এলাকা স্থানান্তর করার জন্য করণীয় এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সম্পর্কে।

আপনি যদি ভোটার এলাকা স্থানান্তর করতে চান। তাহলে, উক্ত আলোচনা অনুসরণ করেন। তাহলে আশা করা যায় আপনি দ্রুত ভোটার এলাকা পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

আমাদের লেখা আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ার পরে আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap