প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট তৈরি করার পূর্বে যে বিষয়গুলি আপনাকে জানতেই হবে

বর্তমানে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে প্রত্যেকটি নিজের প্রতিষ্ঠানটিকে ডিজিটালাইজেশনের দিকে নিয়ে যেতে প্রয়োজন হয় একটি ওয়েবসাইটের। ছোট বা বড় যে মাপেরই হোক আপনার প্রতিষ্ঠান একটি ওয়েবসাইট কিন্তু প্রয়োজন হয়।

তাই যদি আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি ওয়েবসাইট নির্মাণ করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই বেশ কিছু বিষয়ে আপনাকে জানতেই হবে। তা না হলে আপনি ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন। যে বিষয়গুলো জানতে হবে তা আমি এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আলোচনা করছি।

ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারনা।
ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারনা।

ওয়েব সাইট কি

আপনার প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট হচ্ছে আপনার প্রতিষ্ঠান একটি ভার্চুয়াল পরিচিতি। যেখানে আপনার প্রতিষ্ঠান সকল তথ্য ডাটা উপাত্ত দেয়া থাকবে। যেকোনো ইউজার বা ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইট টা দেখলেই বুঝতে পারবে আপনার প্রতিষ্ঠানে কোন ধরনের সার্ভিস, কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকেন। ওয়েবসাইট সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে এখানে দেখুন।

ওয়েবসাইট কিভাবে কাজ করেঃ

ওয়েবসাইট হল একটি ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম, যে কেউ তার ইলেকট্রিক ডিভাইসের সাহায্যে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আপনার বিজনেস সম্পর্কে জানতে পারবে। আর একটি ওয়েবসাইটের জন্য প্রয়োজনীয় একটি ডোমেইন (ওয়েবসাইটের নাম) এবং হোস্টিং (ওয়েবসাইটের স্পেস বা জায়গা)। একটি নির্ধারিত ওয়েব হোস্টিং এর মধ্যে আপনার ডোমেইন দিয়ে

ডোমেইন-হোষ্টিং

একটি ওয়েবসাইট বানাতে হলে আপনাকে অবশ্যই ডোমেইন এবং হোস্টিং সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। হোস্টিং সার্ভার সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে, স্টিকার ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসিটি এবং স্পেস ক্যাপাসিটি সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। এবং দাম সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে আমি তারপরও ছোট্ট করে একটি দামের ধারণা দিয়ে দিচ্ছি।

ডোমেইন এর দামঃ বিভিন্ন এক্সটেনশন একটি ডোমেইন এর দাম 500 টাকা থেকে 1000 টাকা হতে পারে। (বাৎসরিক)

আরো পড়ুনঃ ডোমেইন নির্বাচন করার আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখতে হবে।

হোস্টিং এর দামঃ হোস্টিং স্পেস এবং ব্যান্ডউইথ এর বিভিন্ন দিক পর্যালোচনা করে একটি মাঝারি মানের ওয়েব স্পেস বা হোস্টিং এর দাম 1000 টাকা থেকে শুরু করে 5000 টাকা হতে পারে।

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ বা ওয়েবসাইটের ভাষা

এখন কথা হল আপনি ডোমেইন এবং হোস্টিং সম্পর্কে ভালো ধারনা নিয়েছেন কিন্তু আপনি যে ওয়েবসাইটটি তৈরি করবেন সেটি কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে বা সিএমএস দিয়ে তৈরি করবেন। সেজন্য আপনার এটিকে ম্যানেজমেন্ট করার জন্য অবশ্যই ডেভলপারকে বলে দিতে হবে কোন সিএমএস বা কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে আপনার ওয়েবসাইটটি তৈরি হবে। তাই বিভিন্ন ধরনের প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (CMS) সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে।

কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম CMS

এখানে আমি CMS বা কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করছি। আপনার ওয়েবসাইট পরিচালনা করার একটি অন্যতম মাধ্যম। আপনি যদি ডাইরেক্ট পিএইচপি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে কোনরকম CMS ব্যবহার করা ছাড়াই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে সে ওয়েবসাইটটি পরিচালনা করতে আপনার পক্ষে অনেক কষ্টসাধ্য হয়ে পড়বে। সেই সাথে যদি একটি CMS ব্যবহার করেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি ম্যানেজ করতে খুবই সহজ হয়ে যাবে।

প্রচলিত কয়েকটি CMS:

  • WordPress
  • Drupal
  • Joomla
  • Magento
  • Kentico CMS
  • RYPO3
  • SharePoint
  • PastaShop
  • SiteCore

এছাড়াও অনেক ওপেনসোর্স CMS মার্কেটে প্রচলিত রয়েছে।

ওয়েবসাইটের ক্যাপাসিটিঃ

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার পূর্বে অবশ্যই আপনাকে একটি ম্যাপিং তৈরি করে নিতে হবে আপনার ওয়েবসাইটটির ক্যাপাচিটি কত হবে বা আপনার ওয়েবসাইট এর পরিধি কত হবে সে অনুযায়ী আপনার একটি ওয়েবসাইটের বাজেট নির্ধারণ করতে হবে।

একটি ছোটখাটো ওয়েবসাইট তৈরি করতে গেলে আপনাকে 5 হাজার টাকা থেকে শুরু করে 20 হাজার টাকা খরচ হতে পারে, কিন্তু আপনার ওয়েবসাইটে যদি অনেক বড় হয় তাহলে সেক্ষেত্রে আপনার খরচের পরিমাণ কয়েক লক্ষ টাকা হয়ে যেতে পারে।

ওয়েবসাইটের ডিজাইনঃ

তারপর যে বিষয়টি আপনার মাথায় রাখতে হবে ওয়েবসাইট ডিজাইন। কেমন হবে সেটি আপনাকে নির্ধারণ করে দিতে হবে বা ডেভলপার উপরে ছেড়ে দিতে পারেন তাদের মন মত তারাই ডিজাইন করে দেবে।

কি পরিমান খরচ হতে পারেঃ

খরচের দিক থেকে যদি একটি ওয়েবসাইট ডিজাইন করে নিতে চান সেটা আগেও একবার বলেছি আবারো বলছি, বর্তমানে একটি মাঝারি মানের ওয়েবসাইট তৈরি করতে 5000 টাকা থেকে শুরু করে 50 হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে।

এবং বড় ধরনের কোনো ওয়েবসাইট হলে সেটি কয়েক লক্ষ টাকা খরচ হতে পারে সেটি নির্ভর করবে আপনার ওয়েবসাইটের কোয়ালিটি এবং ক্যাপাসিটি এবং তার ডিজাইনের ওপর।

কোথায় থেকে ডিজাইন করিয়ে নেবেনঃ

কাকে দিয়ে আপনার ওয়েবসাইট ডিজাইন করিয়ে নেবেন এর জন্য আপনি দ্বিধায় রয়েছেন? বর্তমানে আমাদের বাংলাদেশে ইন্ডিয়াতে অনেক ফ্রিল্যান্সার রয়েছে যারা খুব ভালো মানের ওয়েব ডিজাইন করে থাকে আপনি চাইলে তাদের সাথে কন্টাক করে আপনার ওয়েব সাইটটি ডিজাইন করে নিতে পারেন।

এছাড়া আপনি চাইলে বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম থেকে কোন ফ্রিল্যান্সারকে হায়ার করে আপনি আপনার স্বপ্নের ওয়েবসাইটটিকে তৈরি করে নিতে পারেন।

এছাড়াও বিভিন্ন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি রয়েছে যারা ওয়েব ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট এর ওপর সার্ভিস দিয়ে থাকে আপনি চাইলে তাদের কোন একটি কোম্পানি থেকে আপনার ওয়েবসাইটে চাহিদা অনুযায়ী একটা সার্ভিস নিয়ে সে মূল্য দিয়ে আপনার ওয়েবসাইটটি তৈরি করে নিতে পারেন।

কিভাবে ম্যানেজ করবেনঃ

আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটটিকে নিজে নিজে ম্যানেজ করতে চান তাহলে আপনার মোটামুটি ভালো সময়ের প্রয়োজন হবে।

সবচেয়ে ভালো হয় যদি আপনি আপনার ওয়েবসাইটে কোন একটি সিএমএস ব্যবহার করে তৈরি করে থাকেন তাহলে খুব অল্প সময়ে আপনি আপনার ওয়েবসাইটটিকে ম্যানেজ করতে পারবেন।

আরও পড়ুন

1 thought on “প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট তৈরি করার পূর্বে যে বিষয়গুলি আপনাকে জানতেই হবে”

Leave a Comment