নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা ২০২৩

জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা : আমাদের আজকের এই আলোচনাতে, ছোট এবং বড় সকলের নতুন জন্ম নিবন্ধন করতে কত টাকা লাগবে সে বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জানাতে যাচ্ছি।

আপনার যদি নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পেতে চান। তাহলে আমাদের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

আমরা সর্বশেষ সংশোধনী নীতিমালা অনুযায়ী নতুন জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে গেলে কত টাকা খরচ হবে এবং সে বিষয়ে এখান থেকে সঠিক তথ্য আপনারা জানতে পারবেন।

নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা ২০২৩
নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা ২০২৩

আমাদের এই ওয়েবসাইটে জন্ম নিবন্ধন সংক্রান্ত সকল প্রকার তথ্য সবার আগে আপডেট করা হয়। তার পাশাপাশি কোন জনগণ যাতে দুর্নীতির শিকার না হয়।

তার জন্য নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা এখান থেকে আপনারা অবশ্যই জানতে পারবেন।

তবে নতুন জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে আপনার কোন প্রকার ঝামেলা করতে হবে না। এবং সম্পূর্ণ ঝামেলা মুক্তভাবে জন্ম নিবন্ধন তৈরি করতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন তৈরি করা যায় বলে আপনারা অতি সহজে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে পারেন।

এছাড়া এজন্য আপনাদের সর্বপ্রথম অনলাইন আবেদন করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদন করার জন্য অবশ্যই একজন ব্যক্তির পারিবারিক কর পরিশোধের রশিদ এবং যার জন্ম নিবন্ধন তৈরি করবেন।

তার টিকার কার্ড অথবা স্বাস্থ্যকর্মী থেকে প্রাপ্ত প্রত্যয়ন পত্র ব্যবহার করতে হবে।

আর আপনারা কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদন করবেন সে বিষয়ে আমরা পূর্বে একটি আর্টিকেল পাবলিশ করে দিয়েছি।

আপনি চাইলেই আর্টিকেলটি অনুসরণ করে, সহজে অনলাইনের মাধ্যমে যে কোন ব্যক্তির নতুন জন্ম নিবন্ধন করতে পারবেন। এছাড়া আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে আপনারা জানতে পারবেন ছোট বাচ্চাদের জন্ম নিবন্ধন করতে কত টাকা লাগে

তো বন্ধুরা আপনারা যারা অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন করতে আগ্রহী। তারা অনেক সহজেই জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন।

এবং আগের থেকে অনেক সহজ করা হয়েছে। জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার শর্ত গুলো।

কারণ আগের সময় গুলোতে আমরা যখন জন্ম নিবন্ধন ছোট বাচ্চাদের জন্য করতে, যেতাম সেসময় বাচ্চাদের পিতা-মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রয়োজন হতো।

কিন্তু এখন আমরা সহজেই জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারি পিতা-মাতার তথ্য ছাড়াই। মানে জন্ম নিবন্ধন নম্বর ছাড়াই।

আপনি যদি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই জন্ম নিবন্ধনের জন্য বিভিন্ন কাগজপত্র সংগ্রহ করতে হবে। তারপর অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি কাগজপত্র লাগে সে বিষয়ে আমরা পর্বের একটি আর্টিকেল এ জানিয়ে দিয়েছি।

তো আমি আপনার সুবিধার জন্য এখানে একটি লিংক যুক্ত করে দিয়েছি সেই লিঙ্ক এ ক্লিক করে জানতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে কি কি লাগে

তো জন্ম নিবন্ধন এর জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জোগাড় করার পর অনলাইনে আবেদন করার সময় যার জন্ম জন্ম নিবন্ধন তৈরি করছেন।

তার যাবতীয় তথ্য প্রদান করবেন এবং তার অভিভাবক এর তথ্য প্রদান করার পাশাপাশি। ঠিকানা সংক্রান্ত সকল তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে।

এরকমভাবে জন্ম নিবন্ধন এর যাবতীয় কার্যক্রম সম্পাদন করে অনলাইন থেকে প্রিন্ট করতে পারবেন। তার সাথে যে সকল ডকুমেন্ট যুক্ত করতে হবে।

সে গুলো আপনার স্থানীয় সরকার বিভাগ এর অথবা নিবন্ধকের কার্যালয় গিয়ে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জমা দিলে। কিছুদিনের মধ্যে আপনাকে জন্ম নিবন্ধন এর হার্ডকপি দেওয়া হবে।

এখন আপনারা এখান থেকে জেনে নিতে পারবেন নতুন জন্ম নিবন্ধন করতে কত টাকা লাগে ২০২৩।

আমরা জানতে পেরেছি সর্বশেষ নীতিমালা অনুযায়ী নতুন জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে গেলে ৪৫ দিনের মধ্যে আপনি যে, শিশুর জন্ম নিবন্ধন আবেদন করবেন। তার জন্য কোন ফি/টাকা দিতে হবে না।

মানে 45 দিনের কম বয়সী শিশুদের জন্ম নিবন্ধন একদম ফ্রিতে করতে পারবেন।

কিন্তু অনেক লোক রয়েছে, যারা পরবর্তীতে নিবন্ধন তৈরি করবে বলে বর্তমানে করেন না। এবং পরবর্তীতে করতে গেলে, তাদের অবশ্যই সরকারি জন্ম নিবন্ধন ফি প্রদান করতে হবে।

এক্ষেত্রে 45 দিনের পরে শিশুর বয়স 5 বছর পর্যন্ত আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন করতে চান। তাহলে 25 টাকা জন্ম নিবন্ধনের নতুন আবেদনের ফি প্রদান করতে হবে।

এছাড়া, আপনি যদি পাঁচ বছর বয়স এর পরে, শিশুদের জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে চান তাহলে প্রত্যেক ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধনের জন্য 50 টাকা দিতে হবে।

উক্ত জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফ্রি টাকা স্থানীয় সরকার বিভাগ বা নিবন্ধকের কার্যালয় গ্রহণ করবেন।

তাই কেউ যদি আপনাদের থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে দেওয়ার জন্য। অতিরিক্ত টাকা দাবি করে, তাহলে তাদের কে তা কখনই প্রদান করবেন না।

এক্ষেত্রে আবার অনেক ব্যক্তি রয়েছে। যারা দ্রুত জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে দেবে। বলে অতিরিক্ত টাকা গ্রহণ করে এবং এ ধরনের লোকদের আপনি এড়িয়ে চলবেন।

বর্তমান সময়ে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি হচ্ছে এবং এজন্য আপনাদের অন্য কোন জায়গায় অতিরিক্ত টাকা খরচ করার দরকার হবে না।

আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ নিজে নিজেই তৈরি করতে পারবেন এতে করে ভুল হবার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যাবে।

আর আপনি যদি, নিজে নিজে জন্মনিবন্ধন সনদ আবেদন করেন। তাহলে সরকারিভাবে আপনার খরচ হবে মাত্র 50 টাকা। আর যদি নিজে না করতে পারেন।

তাহলে ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে ,জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করেন। তাহলে আপনার খরচ হতে পারে এক থেকে দেড়শ টাকা।

আর আপনি যদি কোন কম্পিউটার দোকান থেকে জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে চান। তাহলে আপনার খরচ হতে পারে প্রায় 200 টাকার মত।

তো আপনি যেখানেই নতুন জন্ম নিবন্ধন করেন না কেন? যে, কোন বয়সের 200 টাকার বেশি কখনো দিবেন না।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলে আপনাকে জানিয়ে, দেওয়া হলো নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা ২০২৩।

আপনার আত্মীয় স্বজনের বা আপনার নিজের সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করতে চাইলে, সর্বোচ্চ 200 টাকার মধ্যেই জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল ভাবে করতে পারবেন।

বিশেষ করে নতুন জন্ম নিবন্ধন করতে চাইলে আপনি সরাসরি ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে করার চেষ্টা করবেন।

কোনোভাবেই তৃতীয় ব্যক্তির দ্বারা , আপনার জন্ম নিবন্ধন করে নেওয়ার চেষ্টা করবেন না।

তাহলে আপনি বিপদে পড়ে যাবেন। যার ফলে,  আপনার বেশি টাকা খরচ হতে পারে।

তো বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলটি আপনার কাছে কেমন লাগলো আশা করি কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

আর নতুন জন্ম নিবন্ধন ফি কত টাকা এই বিষয়টি আপনার বন্ধবান্ধবদের জানাতে, একটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap