জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে

জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে : বর্তমান সময়ে পরিবারের নতুন সদস্য জানান নতুন জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে নেবেন।

তাদের জন্য আজ  জানতে হবে, জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে।

আমাদের এই ওয়েবসাইটে পূর্বের আর্টিকেলে ছোট বাচ্চাদের জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে সেই বিষয়ে আগে জানিয়ে দিয়েছি।

আজ আমি এখানে ছোট এবং বড়দের জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে যাবতীয় তথ্য সম্পর্কে জানাব।

জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে
জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে

বিশেষ করে যারা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করতে চান তারা জন্ম নিবন্ধন করতে যে সকল কাগজপত্র অথবা যত টাকা লাগবে।

সেই বিষয়ে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সঠিক তথ্য প্রদান করা হবে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে আপনারা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন।

আগে সময়গুলোতে স্থানীয় সরকার বিভাগ এর কাছে কিছু তথ্য এবং টাকা প্রদান করলে তারা জন্ম নিবন্ধন খুব সহজে তৈরি করে দিতো।

কিন্তু বর্তমানে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সনদের জন্য আবেদন করতে হচ্ছে বলে আমরা এ আবেদন করব।

এবং আবেদন করার ক্ষেত্রে যে সকল কাগজ পত্র নিয়ে যেতে হবে তা আজকে এই আর্টিকেলের জানানো হবে।

আপনারা যখন জন্ম নিবন্ধন সনদ দেয়ার জন্য অনলাইনে আবেদন করতে যাবেন। তখন অবশ্যই আপনাদের কিছু কাগজপত্র গুলো নিয়ে যেতে হবে।

এছাড়া আপনার কাছে যদি একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ থাকে। এছাড়া যদি একটি স্মার্ট মোবাইল ফোন থাকে। সেক্ষেত্রে আপনার নিজের ঘরে বসেই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন।

কিন্তু জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার আগে আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে কি কি লাগে।

তো বন্ধুরা চলুন আজ জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে ? এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

জন্ম নিবন্ধন সনদ কেন তৈরি করতে হয়?

জন্মসূত্রে আমরা বাংলাদেশের জন্মগ্রহণ করেছে এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদ আমাদেরকে সংগ্রহ করতে হবে।

আমরা যদি জন্ম নিবন্ধন সনদ সংগ্রহ না করি। তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন শিক্ষার্থীদের ভর্তি করানো যায় না।

তেমনি ভাবে জাতীয় পরিচয় পত্র সহ অন্যান্য বিভিন্ন ধরনের ডকুমেন্ট তৈরি করতে বাধা সৃষ্টি হয়।

তাই জন্মনিবন্ধন সনদ তৈরি করে এমন কোন ব্যক্তি নেই এবং জন্ম নিবন্ধন তৈরি করেছেন। তাদের ক্ষেত্রেও বিভিন্ন ধরনের সুবিধা প্রদান করা হবে।

আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করে রাখেন। তাহলে এটি আপনার ব্যক্তিগত পরিচয় পত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সনদ ক্ষেত্রগুলো আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রদান করে থাকে। বলে এখান থেকে আপনারা অনেক কিছু জেনে নিতে পারবেন।

বর্তমানে হাতে লিখে জন্ম নিবন্ধন তৈরি করার কোন সিস্টেম নেই এবং বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে তথ্য লিপিবদ্ধ করার কোন সিস্টেম নেই বললেই চলে। কারণ এগুলো অনলাইনের মাধ্যমে করতে হয়।

তাই আপনি যখন অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করতে যাবেন। তখন অবশ্যই আপনাকে অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

এবং এই আবেদন আপনারা চাইলে নিজের ঘরে বসে করতে পারবেন। এছাড়া অনলাইন সার্ভিস এর দোকান গুলোতে গিয়েও করতে পারবেন।

আবার কেউ যদি ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সনদ এর কপি তৈরি করতে চান। তাহলে কোন সমস্যা নেই এবং এই ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন সনদ এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন আবেদন

অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন তৈরি করার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট আছে সেটি ঠিকানা হচ্ছে- bdris.gov.bd/br/application

উক্ত ওয়েবসাইট ঠিকানায় গিয়ে জন্মনিয়ন্ত্রণকারী ব্যক্তির যে সকল তথ্য প্রদান করবেন। সেগুলো যেন পরবর্তীতে কোন ধরনের পরিবর্তন করার প্রয়োজন না পড়ে, সে বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে নিবেন।

যদি কোন ভুল হয় তাহলে আপনাকে আবার তথ্য সংশোধন করতে হবে যা অনেক ঝামেলাপূর্ণ হতে পারে।

জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে

তাই জন্ম নিবন্ধন তৈরি করার জন্য ওয়েবসাইটে যে সকল তথ্য প্রয়োজন হবে। সেগুলো প্রদান করবেন এবং এজন্য অবশ্যই পিতা এবং মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র সামনে রেখে আবেদন করবেন।

কিছুদিন আগে জন্ম নিবন্ধন সনদ তৈরি করার জন্য পিতা এবং মাতার জন্মনিবন্ধন সনদ তথ্য বাধ্যতামূলক করা হলেও পরবর্তীতে তা পরিবর্তন করা হয়েছে।

এখন আর ছোট বাচ্চাদের জন্ম নিবন্ধন করতে গেলে পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র তথ্য প্রয়োজন হয়না।

তার জন্য পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র আবেদন করার পাশাপাশি যুদ্ধ কোন বাচ্চাদের জন্ম নিবন্ধন তৈরি করেন তাহলে তার টিকার কার্ড এর অনলাইন কপি আপলোড করতে হবে।

সেইসঙ্গে জন্মসূত্রে আপনারা যে ঠিকানা নির্বাচন করছেন সেটি কোন জায়গায় বসবাস করছেন সেটি প্রমাণ করার জন্য নির্দিষ্ট জমির দলিল এর খারিজের কপি প্রদান করতে হবে।

উক্ত কাগজপত্র সংযুক্ত করে আপনারা খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধন সনদের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন করতে কত টাকা লাগে?

জন্ম নিবন্ধন সনদের আবেদন করার পরে আপনাকে আবেদন ফি হিসেবে 50 থেকে 100 টাকা প্রদান করতে হবে।

উপরের আলোচনা থেকে জানার পরে, আপনার কাগজ পত্র গুলো এবং টাকা রেডি রাখেন। তাহলে আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ আবেদন করতে পারবেন। এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন সনদ হাতে পেয়ে যাবেন ইউনিয়ন পরিষদ থেকে।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আজ আমাদের এই পোস্টে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হলো অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে। আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন করার জন্য আগ্রহী থাকেন।

তাহলে নিজের ঘরে বসে মোবাইলের যারা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারবেন।

তবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার জন্য আপনাকে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট গুলো যোগার করতে হবে। এবং জন্ম নিবন্ধন ফি প্রদান করতে হবে।

আপনার জন্ম নিবন্ধন আবেদন সম্পন্ন করার পর ইউনিয়ন পরিষদের যোগাযোগ করে, সহজেই ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন কপি হাতে নিতে পারবেন।

বন্ধুরা আমরা আশা করি আপনি আমাদের এই পোস্টের মাধ্যমে জানতে পেরেছেন জন্ম নিবন্ধন করতে কি কি লাগে। যদি আরো কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

আর বিশেষ করে আপনি যদি আমাদের ওয়েবসাইট থেকে জন্ম নিবন্ধন সংক্রান্ত আরো নতুন নতুন টিপস এন্ড ট্রিক্স পেতে চান। তাহলে নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap