বর্তমানে যারা অনলাইন থেকে আয় করেন ফাইবার শব্দটি তাদের অজানা নয়। যে সমস্ত ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে আয় করা যায় তার মধ্যে অন্যতম একটি ওয়েবসাইট হল www.fiverr.com। ওয়েবসাইট টি টেলি এভিভ নামে এক ব্যাক্তি পহেলা ফ্রেব্রুয়ারী 2010 সালে যাত্রা শুরু করেন। বর্তমানে একটি English Language, Spanish Language, French language, Dutch language, Portuguese Language এ পরিচালিত হচ্ছে।

দেখুনঃ 2020 সালে অনলাইনে আয়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যমগুলো।

এই ওয়েবসাইট থেকে বর্তমানে লক্ষ লক্ষ ফ্রিল্যান্সাররা বিভিন্ন কাজ করে ঘরে বসে ইনকাম করছে।

আপনি যদি একজন চাকরিজীবী বা ছাত্র হয়ে থাকেন তাহলে আপনি কাজের পাশাপাশি অথবা পড়ালেখার পাশাপাশি অবসর সময় কাজ করে এখান থেকে ঘরে বসে প্রতিদিন খুব ভালো পরিমাণে আয় করতে পারেন।

ফাইভার থেকে আয় করুন।
ফাইভার থেকে আয় করুন।

Fiverr থেকে কিভাবে আয় করা যায়

আপনি যদি Fiverr থেকে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে Fiverr কটি অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করে আপনার দক্ষতার আলোকে একটি Gig তৈরি করতে হবে। যখন কোন বায়ার সেই কাজটি করাতে ফাইবারে ঢুকবে কাজ করানোর জন্য, তখন আপনার দক্ষতা অনুযায়ী আপনার গিগ কি তাদের সামনে প্রদর্শিত হবে। এবং তখন তারা আপনাকে অর্ডার করবে। আপনি অর্ডার অনুযায়ী কাজ করে সে বায়ারকে ডেলিভারি দিবেন। ডেলিভারি দেয়ার সাথে সাথে মায়ের কাছে আপনার কাছে চলে যাবে। যখন বায়ার আপনার কাজটি বুঝে পাবে এবং বুঝে পাওয়ার পর আপনাকে রিপ্লাই করবে, তখন আপনার একাউন্টে সে কাজের পেমেন্ট জমা হয়ে যাবে।

দেখুনঃ ব্লগিং করে ঘরে বসে আয় করুন

Fiverr গিগ কাকে বলে?

গিগ হলো আপনি যখন ফাইবারে কাজ করবেন আপনার দক্ষতা অনুযায়ী আপনার দক্ষতার একটি চার্ট বা একটি থামনিল ইমেজ আপলোড করতে হবে যেটা দেখে এবার বুঝবে যে আপনি এই কাজটি করেন। ফাইবারের ভাষায় এটাকে কি বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ নিচে কয়েকটি গিগ এর ছবি আপলোড করা হলোঃ

কে পেমেন্ট করবে

ফাইবারে আপনি একাউন্ট করার পর আপনি আপনাকে যখন কোন বাইরে কোন কাজের অর্ডার দিবে এবং সে কাজটি আপনি করে বায়ারকে ডেলিভারি দিবেন ডেলিভারি দেয়ার পর বার যখন ফিডব্যাক দিবে সাথে সাথে আপনার একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে। টাকাটা আসবে মূলত আপনি যার কাজ করেছেন তার অ্যাকাউন্ট থেকে ফাইবার একাউন্টে চলে আসবে, এবং ফাইবার একাউন্ট থেকে আপনার একাউন্টে আসবে এবং মাঝখানে ফাইবার অল্পকিছু কমিশন কেটে নেবে তাদের সার্ভিস চার্জ হিসেবে, এমনকি আপনার ইনকামের নিরাপত্তা হিসেবে বলতে পারেন।

দেখুনঃ ইউটিউব থেকে কিভাবে আয় করবেন?

Fiverr এর একাউন্ট তৈরি

এখন চলুন দেখা যাক কিভাবে আমরা ফাইবারে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করব এবং সেখান থেকে টাকা ইনকাম করব। ফাইভার একাউন্ট তৈরি করতে প্রথমে আপনি এখানে ক্লিক করুন

তারপর নিচের ইমেজ এর মত একটি ইমেজ আসবে সেখান থেকে আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে।

আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হওয়ার পর সাইন-ইন অপশনে ক্লিক করে সাইন ইন করে নেবেন।

সাইন-ইন হওয়ার পর আপনার প্রোফাইল টা কে আপনার সকল তথ্য দিয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে নিতে হবে। তারপর সুন্দর করে একটি সাজাতে হবে।

Fiverr প্রোফাইল সাজানো

Create your Seller Profile ক্লিক করে আপনার সম্পূর্ণ জেলার প্রোফাইল আপডেট করতে হবে। আপনার জেলার প্রোফাইল আপডেট হয়ে গেলে পাবলিশ ইউরিক একটা অপশন আছে সে অপশনে গিয়ে আপনার গিফট তৈরি করতে হবে।

Fiverr এর গিগ তৈরি করবেন

আপনার প্রোফাইলের সকল তথ্য সম্পূর্ণভাবে পূরণ করার পর নিচের ছবির মত একটি অপশন আসবে এখান Create Gig ক্লিক করে থেকে আপনার কি কি তৈরি করতে হবে।

এখানে ক্লিক করার পর নিচের মত একটি পেজ আসবে এখানে আপনার সমস্ত ইনফরমেশন ভালোভাবে দিয়ে ফিলাপ করতে হবেঃ

অতঃপর Save and Continue পর নিচের মত আরেকটি পেজ আসবে, এখানে লাল চিহ্নিত অংশগুলো অবশ্যই পূরণ করতে হবে।

অতঃপর আবার Save and Continue বাটনে ক্লিক করুন। এ পর্যায়ে আপনার গিফট তৈরি করার সম্পূর্ণ কমপ্লিট হয়ে গেছে। এখন কি পাবলিশ করার পালা। দেখুন কি কমপ্লিট হওয়ার পর নিচের মত একটি পেজ আসবে।

অতঃপর Publish Gig এ ক্লিক করে আপনার গিগটি পাবলিস করতে হবে। এবং আপনার ফাইবার গিগটি পাবলিশ হয়ে গেলে নিচের মত দেখাবে এবং সেখান থেকে কাস্টমাররা অর্ডার করলে আপনার ড্যাসবোর্ডে একটি অর্ডার চলে আসবে তখন আপনি বায়ারের সাথে কথা বলে তার কাজটি সম্পন্ন করবেন এবং পেমেন্ট নেবেন।

Fiverr এর বায়ারদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করবেন

ইতিমধ্যে আপনার একটি ফাইবারের অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেছে এবং আপনি একটি গিগও তৈরি করে ফেলেছেন। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। যখনি বায়ার আপনাকে অর্ডার করবে তখনই আপনি তাদের কাজ করতে পারবেন। প্রথম অবস্থায় অর্ডার পেতে মোটামুটি সময় লাগে। আর যদি ভালোভাবে খুব সুন্দর করে বুঝে শুনে একটি গিগ সাজাতে পারেন তাহলে খুব তাড়াতাড়ি রেসপন্স পাবেন আশা করি।

যখনই কোন বায়ার আপনাকে অর্ডার করবে বায়ারের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করাটা খুবই জরুরি একটা বিষয়। আপনি যদি বাইরের সাথে কমিউনিকেশন ভালো না রাখতে পারেন তাহলে বায়ার আপনাকে কাজ দিতে আগ্রহ পোষণ করবে না। ভাইয়ের কোন কিছু জানতে চাইলে যত দ্রুত সম্ভব তাদের রেসপন্স করতে হবে। না হলে বা অন্যত্র চলে যাবে।

দেখুনঃ বাংলা ভাষায় ব্লগিং করে আয় করুন।

যেভাবে Fiverr এ অর্ডার পাবেন

আপনার ফাইবারে গিগ তৈরি হওয়ার পর, দ্রুত অর্ডার পেতে কিছু কাজ করতে পারেন। সেগুলো হলো আপনার কি একটি সম্পর্কে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ইউটিউব বা আপনার ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে পারেন। আপনার প্রযেক্ট সম্পর্কে যত লোক জানবে ততই আপনার অর্ডার পাওয়ার পসিবিলিটি বেড়ে যাবে ।

যেভাবে Fiverr এ  আপনার প্রজেক্ট ডেলিভারী দিবেন

যখন আপনার কাজটি শেষ হয়ে যাবে তখন বায়ারকে নক করে কাজটি জমা দেবেন। জমা হয়ে গেলে বায়ারকে বলবেন আপনাকে একটি ভালো ফিডব্যাক দিতে কেননা বায়ার যখনই আপনাকে ভালো ফিডব্যাক দেবে পরবর্তীতে অর্ডার পাওয়ার জন্য সেইফ্রিড ব্যক্তি আপনাকে সহায়তা করবে। এবং ভাইয়ের যখন আপনাকে ফিডব্যাক দিবে তখন এই কাজে টাকাটা আপনার একাউন্টে পুরোপুরিভাবে চলে আসবে।

যেভাবে Fiverr থেকে টাকা তুলবেন

ফাইবার একাউন্ট থেকে আপনি পেপাল, মাস্টার কার্ড, বা এই ধরনের অনেকগুলো অনলাইন ট্রানজেকশন মেথডে আপনি আপনার টাকা তুলতে পারবেন এমনকি আপনি চাইলে ব্যাংক একাউন্টে ফাইবার থেকে টাকা নিতে পারবেন সেক্ষেত্রে আপনার কয়েকদিন সময় লাগবে।

সর্বপরিঃ সর্বোপরি যদি আমার এই আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে ভালো লাগে বা এই আর্টিক্যাল যারা আপনাদের কিঞ্চিৎ উপকার হয় তাহলে আমি ধন্য। আর এ বিষয়ে যদি আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে আপনার প্রশ্নটিই করবেন। যত দ্রুত সম্ভব আমি আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here