টাকা আয় করার apps [মোবাইল দিয়ে আয় করুন]

টাকা ইনকাম করতে আমরা সবাই চাই,  বর্তমানে অনেক ধরনের টাকা আয় করার apps আছে। টাকা আয় করার apps গুলো পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে যে, এখানে টাকা আয় করা যায়।

বিশ্বে অনেক টাকা আয় করার apps এ টাকা আয় হয় ঠিকই, কিন্তু উইথড্র করতে গেলে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। টাকা আয় করার apps অনেক অ্যাপ আছে। তবে, আজ আপনাদের সামনে আমি নিয়ে এসেছি কিছু জনপ্রিয় apps, এসব সম্বন্ধে আজ আপনাদের জানাবো। এই অ্যাপ গুলো থেকে আপনারা চাইলেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন ।

অনলাইনে আয় করার মোবাইল এপস
অনলাইনে আয় করার মোবাইল এপস

কেনো আপনাকে টাকা দিবে

টাকা ইনকাম এর অ্যাপ দিয়ে আয় করাটা সহজ, তবে আপনাদের এটা জানা উচিত যে আপনাকে একটা অ্যাপ কেনো টাকা দিবে। টাকা আয় করার অ্যাপ গুলো নিজের লাভ ছাড়া কখনো টাকা দিবে না। এর মূল কারন হলো, টাকা আয় করার যেসব অ্যাপ আছে সেগুলো মূলত অ্যাড এর মাধ্যম এ টাকা নিয়ে থাকে, রেফার এর মাধ্যম এ টাকা নিয়ে থাকে, প্রতি ডাউনলোড এ টাকা আয় করে, ব্যাবহার এর সময় এর উপরেও টাকা আয় করে।

আরও পড়ুন: এন্ড্রোয়েড এপস ডেভেলপ শিখে আয় করার টিউটরিয়াল।

তবে এটা থেকে আমাদের কিছু টাকা দিয়ে থাকে কারন এতে তাদের অ্যাপ এর প্রচার এর সাথে সাথে এর ব্যাবহারকারি বেশি হয় এবং অ্যাড থেকে টাকা আয় করে। এটা মূলত ওরা যে টাকা পায় সেটা থেকে আমাদের কিছু টাকা আয় করার সুযোগ করে দেয়। এতে আমাদের সাথে সাথে টাকা আয় করার অ্যাপ এর মালিকদেরও ভালো ইনকাম হয়।

টাকা আয় করার অ্যাপ এর মধ্যে অনেক অ্যাপ আবার ভিডিও দেখিয়ে টাকা দিয়ে থাকে, তবে এসব এর একটা লিমিট থাকে যে কত টাকা হলে টাকা অ্যাপ থেকে উইথড্র করতে পারবেন। এখন টাকা আয় করার apps সম্পর্কে আপনাদের জানাবো, আশা করি আপনারা টাকা আয় করার apps সম্পর্কে ভালো করে জানবেন এবং আয় করবেন।

বিশ্বের অসংখ্য অ্যাপস এর মধ্যে থেকে আমরা আপনার জন্য নির্বাচন করেছি খুব সহেজই ও নির্ভরশীল টাকা আয় করার apps সমূহ। এর  মধ্যে কীভাবে আয় করেতে হয় তা  আমারা এখন আলোচনা করব।

বিকাশ অ্যাপ (Bkash)

বিকাশ বাংলাদেশ এর টাকা লেনদেন এর জনপ্রিয় এক ব্যাংকিং এপস। এই অ্যাপ থেকে স্বল্প পরিমানে টাকা আয় করা সম্ভব।  অ্যাপটি ডাউনলোড করতে উপরের বিকাশ অপশন এ ক্লিক করুন। টাকা আয় করার apps এর মধ্যে এইটি একটা বিশ্বাস যোগ্য ও ভালো অ্যাপ। আপনারা যেভাবে আয় করবেন।

  • বিকাশ অ্যাপ এ ঢুকে রেফার এর অপশন আছে। যেখান থেকে আপনারা প্রতি ১ টি রেফার এর জন্য ১০০ টাকা করে আয় করতে পাবেন। আপনাকে শুধু আপনাদের রেফার কোডটি শেয়ার করতে হবে, এর পর আপনার দেওয়া লিঙ্ক থেকে যদি কেউ অ্যাপ ইন্সটল দিয়ে প্রথম বারের মত এই অ্যাপ এ ঢুকে তবে আপনি পাবেন ১০০ টাকা এবং সেই লোক পাবে ২০ টাকা।
  • এছাড়া  টাকা আয় করার apps এর মত এর মধ্যেও একটা ফিচার দেওয়া আছে, এর জন্য আপনাকে অ্যাপ এ লগইন করতে হবে এর পর “আরো” নামের অপশন ক্লিক করতে হবে। এর পর এখানে গেমস নামে এক অপশন থাকবে যেখান থেকে আপনাকে দুইটি নাম দেখাবে এখানে Goama games নামের অপশন এ ঢুকে গেম গুলো সামনে আসবে এখান থেকে আপনাকে আপনার পছন্দ মত গেম বাছাই করতে হবে, এবং খেলতে হবে। আপনি ভালো খেলে থাকলে আপনার স্থান হিসেবে টাকা দিবে। প্রথম হলে ১০০ টাকা, দ্বিতীয় হলে ৫০ এবং পরের ৮ জন কে ২০ টাকা করে দেওয়া হবে।
  • বিকাশ টাকা আয় করার apps না হলেও এর থেকে যে আয় সম্ভব তাই দেখাইলাম। বিকাশ থেকে এসব ছাড়া আরও কিছু নতুন ইভেন্ট নিয়ে আসে। তবে বিল-পে এর সিস্টেম তা আমার অনেক ভালো লেগেছে এই অ্যাপ থেকে টাকা লেনদেন করলে, আপনি পাচ্ছেন অনেক ভালো ছাড় কমপক্ষে ১০% থেকে ৫০% পর্যন্ত। আর কার্ড এর প্রথম বিল পরিশোধ আছে ১০০ টাকা ছাড়। এছাড়াও বিকাশ কিছু অফার দেয় যেমন ২০ টাকা সেন্ট মানি/ রিচার্জ করলেই ২০ টাকা ক্যাশব্যাক।

রিয়া ক্যাশ (Riya Cash)

টাকা আয় করার apps হিসেবে একটি অনেক ভালো আপ্লিকেশন। এটি প্রমানিত যে এখান থেকে আয় করা ডলার সহজ এ বিকাশ, পেপাল, পেটিএম এবং কয়েনবেস এর মাধ্যম এ টাকা ওয়িথড্র করতে পারবেন। আমি নিজেই এই অ্যাপ ব্যাবহার করি এবং একবার ২০$ অর্থাৎ প্রায় ১৭০০ টাকা আয় করেছি। আপনি চাইলে এই অ্যাপ থেকে ইনকাম করতে পারেন, নিচে এর সম্পূর্ণ পদক্ষেপ বলা আছে।

আরও পড়ুনঃ

  • প্রথম এ আপনাকে এখানে থাকা লিঙ্ক থেকে অ্যাপ টি ডাওনলোড করতে হবে।
  • আপনাকে ইন্সটল করে যা করতে হবে তা হলো, অ্যাপটি ওপেন করতে হবে।
  • এর পর নিচে Create an account এ ক্লিক করতে হবে। এখানে আপনাকে আপনার নাম, ইমেইল, দুই বার পাসওয়ার্ড এবং রেফার কোড দিতে হবে। রেফার কোড সারা আপনাকে সাইন আপ করতে দিবে না, তাই আপনারা সাইন-আপ করতে চাইলে 881472 এই কোড দিয়ে করবেন, এটি রেফার হিসেবে কাজ করে।
  • এরপর সাইন-আপ করা হইলে, লগইন করতে হবে ওই ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে নিতে হবে।
  • এখানে আপনাকে টাকা আয় করার apps হিসেবে কিছু অ্যাড দেখাবে তা দেখে কেটে দিতে হবে তাহইলে আপনাকে কিছু কয়েন দিবে।
  • এখানে আপনাকে কয়েন দিবে সেই কয়েন ১০০০ হলে ০.১$ সেন্ট আয় করা যায়। এছারা স্ক্রাচ, নিউজ, ডেইলি চেকিং এবং রেফার এর অপশন আছে। আরও কিছু অপশন আছে যেমন, স্পিন ও কুইজ এসব ভি পি এন দিয়ে কাজ করে।
  • প্রতিদিন এখান থেকে ০.৫$ আয় করা সম্ভব যা বাংলাদেশ এ প্রায় ৩৭.১৩ টাকা এবং প্রতি রেফার এ থাকছে ০.২$
  • তবে ২০$ এর নিয়ে ওয়িথড্র এর অপশন নেই। এর বিশেষ ভালো দিক হচ্ছে এটি থেকে টাকা বিকাশ এর মাধ্যম এ নিতে পারব।

টাকা আয় করার apps এর মধ্যে এই অ্যাপটি আমার অনেক ভালো লেগেছে। তবে এর অ্যাড এর সিস্টেমটি প্রচুর কম গতি সম্পন্ন। আপনারা এই অ্যাপ থেকে সহজেই টাকা আয় করতে পারবেন।

কুইজ টু আর্নিং (Quiz to Earning)

বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ব্যাবহার করা অ্যাপ হল Quiz to earning । যা একটি সাধারণ টাকা আয় করার apps হিসেবেও কাজ করে। এর মাধ্যম এ সহযেই টাকা আয় করা যায়। আর এর জন্য প্রয়োজন হয় পর্যাপ্ত পরিমানের জ্ঞান এর, যারা জ্ঞান পিপাসু আছে তারা এই অ্যাপ এ টাকা ইনকাম করে বিকাশ, নগদ, রকেট ও অনন্যা ব্যাংকিং মাধ্যম এ টাকা বের করা সম্ভব। এখানে আয় করতে আপনাকে জে কাজ গুলি করতে হবে,

  • অ্যাপ ওপেন করে পুরনো অ্যাকাউন্ট থাকলে লগইন অথবা, না থাকলে সাইন ইন করতে হবে।
  • আপনি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট / গুগল অ্যাকাউন্ট / জিমেইল দিয়ে সহজেই লগ-ইন করতে পারবেন।
  • প্রথমেই আপনাকে এই অ্যাপ এ লেনদেন এর মাধ্যম নির্দেশ দিতে হবে। অর্থাৎ, আপনি কিসের মাধ্যম এ টাকা নিবেন সেইটি আপনাকে আগে নির্বাচন করতে হবে। যেমনঃ বিকাশ, রকেট বা নগদ ব্যাবহার করে আপনাকে নাম্বার দিতে হবে।
  • এরপর নাম্বার এ আসা কোড আপনাকে ফোন এ লিখে কনফার্ম করতে হবে।
  • এরপর আপনাকে নিয়মিত কুইজ খেলতে হবে। কুইজ এ জিতলে সরাসরি আপনার অ্যাকাউন্ট এ  চলে আসবে।

এরকম আরও একটি অ্যাপ আছে এর নাম Mybdt.  এই অ্যাপটি পুরই quiz to earning অ্যাপ এর মত এখানেও আপনাকে কুইজ খেলে আয় করতে হবে। টাকা আয় করার apps হিসেবে কম টাকা দিলেও মোটামুটি ভালোই।

ফ্রী-ল্যান্সার অ্যাপ (Freelancer)

টাকা আয় করার apps হিসেবে এটি অনেক ভালো অ্যাপ। তবে এর জন্য আপনাকে যেকোন কাজ করতে হবে, কারন টাকা আয় করার apps হিসেবে এটি কাজ ছাড়া টাকা দেয় না। আপনাকে এখান থেকে টাকা ইনকাম করতে গেলে আপনাকে দক্ষ হতে হবে। টাকা আয় করার apps হিসেবে ব্যাবহার করে বর্তমান এ বাংলাদেশ এর অনেক যুবক বেকার  হতে মুক্তি পেয়েছে, অনেকেই তার আর্থিক ভাবে সচল হয়েছে। এখানে আপনি কীভাবে কাজ করবেন তার উপায় নিচে ব্যাখা করা হল,

  • আপনার কোন অ্যাকাউন্ট  থাকেন তাহইলে আপনি লগইন করতে পারেন আর যদি না থাকে তাহলে সাইন আপ করতে হবে।
  • নিজের ইমেইল অ্যাকাউন্ট দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এবং সকল তথ্য ঠিক ভাবে দিতে হবে। কোন ভুল তথ্য দেওয়া যাবে না।
  • এর পর আপনার প্রোফাইল ঠিকঠাক করা হইলে আপনাকে কাজ খুজতে হবে।
  • ভালো কাজ খুজে পেলে আপনাকে বিট করতে হবে, আপনার বিট করা হয়ে গেলে আপনাকে সময় দেওয়া হবে ওই সময় এর মধ্যে কাজ করে জমা দিতে হবে, তাহইলে তাকা আপনার অ্যাকাউন্ট এ চলে যাবে।
  • পরে যেকোন সময় আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা ওয়িথড্র করতে পারবেন।

এই অ্যাপ এর কাজ শেষে সরাসরি টাকা দেওয়ার সিস্টেম টি অনেক ভালো। এতে আমাদের কাজ শেষে টাকা চাইতে হয় না, এই জিনিসটা অনেক ভালো করেছে।

প্রিয় (Priyo)

এটি মূলত খবর দেখার বাংলাদেশি সাইট এর মাধ্যম এ সহজ এই আপনারা দেশের খবর জানতে পারবেন। যেকোন বিশেষ খবর এখানে পাওয়া যায়। তবে এটি খবর এর পাশাপাশি কিছু টাকা আমাদের আয় করার সুযোগ করে দিয়েছে। যা আপনারা নিউজ অপশন এর পাশে গেলেই  দেখতে পারবেন। টাকা আয় করার apps হিসেবেও এটি কে ধরা যায়।

  • প্রথম এই যে বিষয়টা আমার যা ভালো লেগেছে তা হল প্রিয় অ্যাপ থেকে প্রতিদিন ৫০ জন বিজয়ী কে ২০ টাকা কয়ে দেওয়া হয়, যা টাকা আয় করার apps এর মধ্যে আমার একটা ভালো লেগেছে। যে দিনে ৫০ টাকা।
  • এছাড়া এখানে আছে স্পেশাল কুইজ যেখান থেকে গিফট পাওয়া সম্ভব। প্রতিদিন এই কুইজ টি হয়ে থাকে এর নাম লীজান কুইজ।
  • আর একটি আছে সাপ্তাহিক কুইজ যেখান থেকে আপনারা কুইজ খেলে  স্মার্ট-ফোন পেতে পারেন।

হ্যা, এটি তেমন ভালো টাকা আয় করার apps নয়। তবুও এর থেকে অনেক ভালো কিছু আয় করা সম্ভব।

মতামত

টাকা আয় করার apps গুলোর মধ্যে প্রতেকটিই পরীক্ষা মুলক ভাবে দেখা হয়েছে। প্রত্যেকটি  টাকা আয় করার apps ওই অনেক ভালো, কোন গরমেল নেই, টাকা তুলতেও কোন ঝামেলা নেই এর মানে টাকা ওয়িথড্র করতে কোন সমস্যা নেই। আপনারা চাইলে টাকা আয় করার apps গুলো ব্যাবহার করে দেখতে পারেন। টাকা আয় করার apps  সম্পর্কে আমি আগেই বলেছি  যে কোন কারন এ অ্যাপ থেকে আমাদের টাকা দিবে। এখন এসব আপনার কাছে জে আপনি কি করবেন আপনি এসব থেকে টাকা ইনকাম করবেন নাকি অন্য কিছু ইনকাম করবেন।

আমাদের বাঙালির একটাই দোষ আমরা ধৈর্য এর সাথে কাজ করি না। টাকা আয় করার apps গুলোতে যদি ধৈর্য এর সাথে কাজ না করা যায় তবে এর কোন ফলাফল আসবে না। কারন, “সবুর এ মেওয়া ফলে”। এসব অ্যাপ এ কম করে টাকা আয় হয় ঠিকওই তবে এই আয় আমাদের জন্য অনেক। উপরের টাকা আয় করার apps গুলো এর মধ্যে আমার তো সবগুলই পছন্দ হয়েছে। তবে আপনাদের কোনটা পছন্দ হয়েছে সেটা কমেন্ট এ জানাবেন।

আরও পড়ুন

2 thoughts on “টাকা আয় করার apps [মোবাইল দিয়ে আয় করুন]”

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap