কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো? প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম

বর্তমান সময়ে ইউটিউব নামের সাথে অপরিচিত লোক পাওয়া অনেক কঠিন। কারণ যারা বিশেষ করে মোবাইল ব্যবহার করে, তারা সকলেই প্রতিদিন একবার হলেও ইউটিউব ভিডিও দেখতে আসে।

এছাড়া ইউটিউব এর সাথে মানুষ বিভিন্ন ভাবে জড়িত রয়েছে।

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে অনেক সমস্যার সমাধন ইউটিউব এর মাধ্যমে করতে পারি। আমরা ইউটিউব এর বিষয়ে অনেক গুলো আর্টিকেল পাবলিশ করেছি। আপনি চাইলে সেগুলো পড়ে নিতে পারেন।

বর্তমান সময়ে যারা, ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেছে তারা নিজেদের বিভিন্ন ভিডিও কনটেন্ট পাবলিশ করেছে। তাই ভিডিও কনটেন্ট শেয়ার করার জন্যে প্রয়োজন একটি ইউটিউব চ্যনেল।

কিন্তু আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা, প্রয়েশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম জানে না। তাই আমাদের এই আর্টিকেল আজ আপনার জন্য।

কারণ এখানে আমরা আলোচনা করাব কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলব? প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম সম্পর্কে। তাই নিম্নোক্ত তথ্য সমূহ মনযোগ দিয়ে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো? প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম
কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবো? প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম

ইউটিউব কি ?

বর্তমান সময়ে পৃথিবীতে সব চেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম হচ্ছে ইউটিউব। আমাদের জানামতে ইউটিউব 2005 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

বর্তমানে ইউটিউব এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় 2 বিলিয়ন এর ও বেশি। ইউটিউব কে গুগল এর পরে দ্বিতীয় সার্চ ইঞ্জিন বলা হয়ে থাকে।

ইউটিউবে বিভিন্ন ধরণের এড দেখিয়ে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ দৈনিক প্রায় 1300 মিলিয়ন ডলার উপার্জন করে।

1300 মিলিয়ন ডলার এর বাংলাদেশী টাকায় হিসাব করলে দাড়াবে 10 কোটি 92 লক্ষ টাকার মতো।

এখান থেকে বাকি 50% টাকা ইউটিউব কর্তৃপক্ষ তাদের ইউটিউব ভিডিও কন্টেন্ট ক্রিয়েটর দের প্রদান করে থাকে প্রতিদিন।

আপনি বুঝতেই পারছেন যে, ইউটিউব আসলে কেমন একটি প্লাটফর্ম। যেহেতু ইউটিউব প্রতিদিন এত টাকা প্রদান করে তাহলে এখানে প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার ছাড়া কোন ভাবেই টিকে থাকা সম্ভব হবে না।

ইউটিউব প্লাটফর্ম এ কিন্তু প্রচুর পরিমানের চ্যানেল রয়েছে। কিন্তু সকলেই ইউটিউব থেকে আয় করতে পারে না।

তার একমাত্র কারণ হলো তারা প্রফেশনাল ভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে নাই। ইউটিউবে সফল হতে চাইলে অবশ্যই একটি ইউটিউব প্রফেশনাল চ্যানেল তৈরি করতে হবে।

ইউটিউব চ্যানেল কি?

ইউটিউব চ্যানেল হলো- এমন একটি জায়গা। যেখানে ভিডিও কনটেন্ট ক্রিয়েটর বা ইউটিউব চ্যানেল এর মালিক ভিডিও আপলোড করতে পারে। এবং আপলোড করা ভিডিও গুলো দর্শক’রা দেখতে পারে।

আমরা ইউটিউবে প্রবেশ করলে যে, ভিডিও গুলো দেখতে পারি, সেগুলো বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেল থেকে আপলোড করা হয়।

যারা ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে, তাদেরকে ইউটিউব ভিডিও কনটেন্ট ক্রিয়েটর বলা হয়।

প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর জন্য কি কি দরকার?

আপনি অনলাইনে যেই কাজই করতে চান? না কেন সেখানে আপনার কিছু জিনিস দরকার হবে। তেমনি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর জন্য আপনার কিছু দরকারী জিনিস প্রয়োজন হবে যেমন-

  • একটি ডিভাইসঃ যা হতে পারে মোবাইল, কম্পিউটার বা ল্যাপটপ।
  • একটি ইন্টারনেট কানেকশনঃ যা হতে পারে মোবাইল ডাটা, ওয়াইফাই, মডেট ইত্যাদি।
  • একটি ইউটিউব সফটওয়্যার বা অ্যাপস।
  • এবং একটি ভেরিফাইড জিমেইল একাউন্ট।

আপনি যদি উক্ত জিনিস গুলো জোগার করতে পারেন। তাহলেই কয়েক মিনিট এর মধ্যে একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে নিতে পারবেন।

প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম

আপনি যদি প্রফেশনাল একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চান? তাহলে আপনাকে কিছু স্টেপ ফলো করতে হবে।

সঠিক ভাবে অনুসরণ করতে পারলে আপনি মাত্র ৫ মিনিটেই একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে ফেলতে পারবেন।

তো চলুন ইউটিউব চ্যানেল খোলার স্টেপ গুলো জেনে নেওয়া যাকঃ

স্টেপ ০১ : ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার জন্যে প্রথমে আপনাকে কোন ব্রাউজার, সফটওয়্যার বা ইউটিউব অ্যাপস এ গিয়ে সার্চ করতে হবে YouTube.com

স্টেপ ০২ : তারপরে আপনি ইউটিউব প্লাটফর্মে প্রবেশ করার পরে, উপরের ডান পাশের কোনায় প্রোফাইল আইকনে ক্লিক করে সেটিং অপশনে ক্লিক করবেন।

স্টেপ ০৩ : তারপর আপনার সামনে একটি পেজ দেওয়া হবে, সেখানে লেখা থাকবে Create a new channel তখন সেই লিংকে ক্লিক করবেন।

স্টেপ ০৪ : তারপরে Brand Account Name অপশনের ফাঁকা ঘরে আপনার চ্যানেল এর নাম লিখুন। অতঃপর Create অপশনে ক্লিক করুন।

Create লেখাতে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি হয়ে যাবে। আপনি যদি উক্ত নিয়ম অনুযায়ী একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে পারেন।

তাহলে এটিই হবে আপনার ১ম ধাপ প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরির।

ইউটিউব চ্যানেল অপটিমাইজেশন

আপনি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার পরে, সেখানে অনেক সেটিংস বা অপটিমাইজেশন করতে হবে। কিভাবে করবেন চিন্তা করছেন। চিন্তা নয় নিচের স্টেপ গুলো পড়ুন।

স্টেপ- ১ : ইউটিউব চ্যানেল সেটিং বা অপটিমাইজেশন করতে প্রথমে youtube.com এ গিয়ে প্রোফাইল আইকনে ক্লিক করে Your Channel লেখাতে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার চ্যানেল সামনে চলে আসবে।

তারপরে সেখানে Custom Channel লেখাতে ক্লিক করলে আপনার Youtube Studio করে দেওয়া হবে।

স্টেপ- ২ : Youtube Studio এর বাম পাশের মেনু থেকে Customizstion এ ক্লিক করবেন।

স্টেপ- ৩ : এরপর Basic info লেখাতে ক্লিক করবেন।

স্টেপ- ৪ : বেসিক ইনফ এর সকল সেটিংস a b c d e f দিয়ে চিহ্নিত করা আছে। তো চলুন এ বিষয়ে জেনে নেওয়া যাক।

  1. A) অপশন হলো পেনসিক আইকন। এর মাধ্যমে আপনি চ্যানেল এর নাম পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।
  2. B) অপশন হলো ডেক্রিপশন বক্স। এখানে আপনার চ্যানেলটি কি বিষয় নিয়ে তৈরি করবেন তার বিস্তারিত তথ্য নিয়ে দিবেন।
  3. C) অপশন হলো ভাষা। এখানে আপনি কি ভাষাতে ইউটিউব চ্যানেল ব্যবহার করবেন সেটি সিলেক্ট করে দিবেন।
  4. D) অপশন হলো- চ্যানেল এর url আপনি এখানে সকলকে আপনার ইউটিউব ইউআরএলটি শেয়ার করবেন। উক্ত লিংকে কেউ ক্লিক করলে সরাসরি আপনার চ্যানেলে চলে যাবে।
  5. E) অপশন হলো- লিংক এড। আপনি এখানে বিভিন্ন ধরণের সোশ্যাল মিডিয়া লিংক যুক্ত করতে পারবেন।
  6. F) অপশন হলো- জিমেইল একাউন্ট যুক্ত করার অপশন।

উক্ত তথ্য সঠিক ভাবে পূরণ করার পরে ডান পাশের উপরে Publish অপশনে ক্লিক করবেন।

স্টেপ- ৫ : এগুলো ছাড়া আরো বিশেষ কিছু সেটিং আছে যা আপনি ধাপে ধাপে ‍পূরণ করে সাবমিট করে দিবেন। তাহলেই আপনার প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানো হয়ে যাবে।

আরো দেখুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা এই পোস্টে আপনাকে জানিয়েছি, কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলব? প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল বানানোর নিয়ম।

আপনি ‍যদি উক্ত স্টেপ গুলো সঠিক ভাবে অনুসরণ করে থাকেন তাহলে আপনি দ্রুত একটি প্রফেশনাল ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে নিতে পারবেন।

আমাদের লেখা আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। এবং একটি আপনার বন্ধুর কাছে শেয়ার করবেন।

আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। দেখা হবে অন্য কোন আর্টিকেলে সে পর্যন্ত ভালো থাকুন খোদা হাফেজ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap