এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার নিয়ম (বিস্তারিত)

এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার নিয়ম : বর্তমান সময়ে অনলাইনের জনপ্রিয় একটি কাজ হলো-ব্লগিং।

এখনকার সময়ে লোকেরা হাতে থাকা মোবাইল এবং কম্পিউটার ব্যবহার করে লেখা লেখি করে আয় করতে পছন্দ করে। তবে শুধু কিছু লেখালেখি করলেই আয় হবে। তার জবাবে বলব না।

আপনি শুধু লেখে লেখে পৃষ্ঠা ভরিয়ে লিখলেই, আয় করার সুযোগ পাবেন না। কারণ আর্টিকেল লেখার কিছু নির্দিষ্ট নিয়ম আছে।

আপনি যদি সেই সকল নিয়ম অনুযায়ী আর্টিকেল লিখেন তাহলে আয় করা সম্ভব। আপনি যদি ভালো কোয়ালিটির আর্টিকেল লিখতে পারেন, তাহলে একটি আর্টিকেল লিখে আপনি সাড়া জীবন আয় কতে পারবেন।

মনে করুন- আপনি যখন গুগলে কোন তথ্য ‍খুজতে আসেন, তখন নির্ধারিত টপিক নিয়ে সার্চ করলে অনেক গুলো ওয়েবসাইট সামনে চলে আসে। মানে গুগলে সার্চ করলে একই টপিক এর 10 টি ওয়েবসাইট চলে আসে সামনে।

তখন আমি বা আপনি কিন্তু প্রথমে যে, ওয়েবসাইট থাকে সেখানে প্রবেশ করে। কারণ গুগল যে, ওয়েবসাইট গুলোর আর্টিকেল তথ্য বেশি পায় সেই ওয়েবসাইট গুলো গুগলের প্রথম পাতায় রেঙ্ক করে।

আর আপনি সঠিক তথ্য পাওয়ার জন্যই কিন্তু গুগলে আপনার টপিক নিয়ে সার্চ করেছেন। আপনার প্রয়োজনীয় সঠিক টপিকটি পড়ে নিতে পারবনে।

কিন্তু গুগলে ১-১০ পর্যন্ত যে, ওয়েবসাইট গুলো থাকে সেই ওয়েবসাইট গুলোতে ভালো তথ্য দেওয়া থাকে। মানে ভালো আর্টিকেল লেখা থাকে। তাই গুগল সেগুলো প্রথম পেজে প্রদর্শন করে।

যাদের ওয়েবসাইট গুলো গুগলে প্রথম পেজে প্রদর্শন হয়ে আছে তারা কিন্তু তাদের ওয়েবসাইটে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করে। তার ফলেই তাদের ওয়েবসাইট ভালো পজিশনে গিয়ে দাড়িছে।

এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার নিয়ম (বিস্তারিত)
এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার নিয়ম (বিস্তারিত)

যাদের জন্য এই পোস্ট গুরুত্বপূর্ণ

বর্তমান সময়ে যারা, ব্লগিং এ প্রফেশনাল হতে চান তাদের জন্য মূলত এই পোস্ট। অন্যদিকে আপনি যদি একজন কনটেন্ট রাইটার হিসেবে, ফ্রিল্যান্সিং করে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে চান তাহলে এই পোস্ট আপার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

কিন্তু আপনি যদি এই আর্টিকেল পড়ে মনে করেন, একজন দক্ষ আর্টিকেল রাইটার হয়ে যাবেন। তাহলে এটি কিন্তু ভূল ধারণা। কারণ দক্ষ আর্টিকেল রাইটার হতে গেলে আপনার প্রয়োজন হবে, বেশি বেশি প্রেকটিস করা।

আমরা এখানে শুধুমাত্র জানাব, কিভাবে একটি আর্টিকেল সুন্দর  ভাবে সাজিয়ে গুছিয়ে লিখতে হয়।

এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার নিয়ম

  1. যতটা লেখবেন তার চেয়েও বেশি পড়ুন
  2. ভিজিটর এর প্রয়োজনীয় চাহিদা বুঝুন
  3. বেশি বেশি রিসার্চ করুন
  4. আর্টিকেল সূচিপত্র তৈরি করুন
  5. আকর্ষণীয় ভূমিকা লেখুন
  6. ছোট ছোট প্যারাগ্রাফ তৈরি করুন
  7. আর্টিকেলে হেডিং ব্যবহার করুন
  8. আর্টিকেল সম্পর্কিত ছবি যুক্ত করুন
  9. নম্বর বা বুলেট পয়েন্ট ব্যবহার করুন
  10. প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে আর্টিকেল লেখুন
  11. পোস্টের সম্পর্কিত লিংক তৈরি করুন
  12. সঠিক বানান লেখুন
  13. সহজ সরল ভাষায় আর্টিকেল লেখা
  14. বড় নয় কোয়ালিটি আর্টিকেল লিখুন
  15. আগে লিখুন তারপরে সংশোধন করুন

বেশি বেশি রিসার্চ করুন

আপনি যদি ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখতে চান? সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে, একটি টপিক ঠিক করতে হবে।

যে টপিক নিয়ে লিখলে আপনার অনেক লাভ হবে মানে আপনার লেখা টপিক গুলো সার্চ ইঞ্জিনে বেশি বেশি সার্চ হবে।

উক্ত বিষয় জানতে আপনাকে অবশ্যই আর্টিকেল রিসার্চ করতে হবে। আপনি যদি সঠিক ভাবে আর্টিকেল রিসার্চ করে, একটি টপিক নিয়ে আর্টিকেল লিখেন তাহলে সেটি এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল হবে। এবং গুগলে রেঙ্ক হবে এবং অনেক বিভিটর প্রবেশ করবে।

ভিজিটর এর প্রয়োজনীয় তথ্যে চাহিদা বুঝুন

আপনি যদি ওয়েবসাইটে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখতে চান? তাহলে আপনাকে অবশ্যই ভিজিটরের প্রয়োজনীয় তথ্যের চাহিদা বুঝতে হবে।

কারণ আপনি যদি ভিজিটর এর চাহিদা অনুসরণ না করে মনগড়া ভাবে টপিক নিয়ে আর্টিকেল লিখেন। তাহলে কিন্তু আপনার আর্টিকেল কেউ পাবে না। এবং আর্টিকেল পড়বেও না।

তাই আপনাকে গুগলে রিসার্চ করে জেনে নিতে হবে লোকেরা কি বিষয় নিয়ে বেশি সার্চ করে। সেই বিষয় গুলো থেকে আপনার পছন্দ মতো একটি টপিক নিয়ে আর্টিকেল লেখা শুরু করবেন।

প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে আর্টিকেল লেখুন

আপনি যখন একটি টপিক বাছাই করবেন। তখন সেই টপিক এর উপর ভালো ভাবে রিসার্চ করে, তথ্য জোগার করে সাজিয়ে গুছিয়ে একটি আর্টিকেল লিখবেন।

প্রয়োজনীয় তথ্য ছাড়া হাবিজাবি লিখে ভরিয়ে রাখলে কোন লাভ হবে না। তাই অল্প লিখুন সঠিক তথ্য দিয়ে।

সঠিক বানান লেখুন

আপনি যখন একটি আর্টিকেল লিখবেন তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন, যাতে করে বানান ভুল না হয়। আপনার 600-1000 ওয়ার্ড এর আর্টিকেল এর মধ্যে।

যদি 200-300 ওয়ার্ড বানান ভুল থাকে তাহলে কিন্তু দর্শক আপনার ওয়েবসাইট এর লেখা কেও পড়বে না।

তাই আপনাকে অবশ্যই সঠিক বানান লেখার প্রতি সু নজর দিয়ে আর্টিকেল লিখতে হবে।

সহজ সরল ভাষায় আর্টিকেল লেখা

আপনি যে বিষয় নিয়ে আর্টিকেল লিখবেন, সেখানে হাবিজাবি না লিখে এবং কঠিন ভাষা না লিখে, সহজ সরল ভাষায় আর্টিকেল লিখার চেষ্টা করুন।

কারণ আপনার আর্টিকেল যখন মানুষ সার্চ করবে তখন কিন্তু সকলেই সমান শিক্ষিত হবে না। আপনার আর্টিকেল কখনও মাস্টার্স এর ছাত্র পড়বে আবর কখনও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী পড়বে।

সেজন্য সকলেই কিন্তু কঠিন ভাষা বুঝতে না। আপনি স্বাভাবিক ভাবে যেরকম করে কথা বলেন।

ঠিক সেরকম ভাবে আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবেন। তাহলেই যে কোন শ্রেনির লোক আপনার আর্টিকেল পড়তে আগ্রহী হবে।

বড় নয় কোয়ালিটি আর্টিকেল লিখুন

আমাদের মধ্যে অনেক লোক আছে, যারা ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লেখার সময় অনেক বড় করে লিখতে চাই। হ্যাঁ বড় করে লেখা ভালো। কিন্তু আপনি যদি হাবিজাবি লিখে ভরিয়ে রাখেন। এতে করে ভিজিটর বিরক্ত বোধ করবে।

তাই আপনি আর্টিকেল লেখার সময় চেষ্টা করবেন সঠিক তথ্য দিয়ে লেখার। আর্টিকেল বড় প্রয়োজন নেই। কোয়ালিটি আর্টিকেল লিখুন।

আর্টিকেল সূচিপত্র তৈরি করুন

আপনি যে, আর্টিকেল লিখবেন, সেখানে কিন্তু সূচি পত্র তৈরি করতে হবে। আপনার আর্টিকেলে সূচিপত্র থাকা মানে পুরো আর্টিকেলে কি আছে তা জানা যায়।

সূচিপত্র তৈরি করার ফলে ভিজিটরদের বুঝতে সুবিধা হয়। কোন লেখার পড়ে কোন লেখাটি পড়তে হবে।

আকর্ষণীয় ভূমিকা লেখুন

আপনি যখন একটি আর্টিকেল লেখা শুরু করবেন। তখন ভুমিকাতে এমন কিছু বাক্য লিখবেন। যাতে করে দর্শকরা, পুরো আর্টিকেল পড়তে আগ্রহী হয়।

ছোট ছোট প্যারাগ্রাফ তৈরি করুন

আর্টিকেল লেখার সময় বিশেষ ভাবে লক্ষ্য রাখবেন যাতে করে ছোট ছোট প্যারাগ্রাফ হয়। আপনি যদি কোন প্যারাগ্রাফ না করে এক টানা চিঠি লিখেন। তাহলে ভিজিটর আপনার আর্টিকেল পড়বে বিরক্ত বোধ করবে।

তাই আপনি আর্টিকেল লেখার সময় 2-3 লাইন পর পর প্যারাগ্রাফ তৈরি করবেন। এতে করে দর্শকদের বুঝতে ও পড়তে সুবিধা হবে।

আর্টিকেল সম্পর্কিত ছবি যুক্ত করুন

আপনি যে বিষয় নিয়ে একটি আর্টিকেল লিখবেন সেই আর্টিকেল সম্পর্কিত একটি থাম্বনেইল মানে ছবি যুক্ত করবেন।

যেমন আমাদের এই লেখার উপরের অংশে যে, ছবিটি দেখতে পারছে ঠিক এরকম ছবি আপনার আর্টিকেলে যুক্ত করে দিবেন।

নম্বর বা বুলেট পয়েন্ট ব্যবহার করুন

আর্টিকেল লেখার সময় বিশেষ বিশেষ টপিক বা হেডিং গুলোতে নম্বর বা বুলেট চিহ্ন ব্যবহার করবেন। এতে করে আপনার আর্টিকেল আরো সুন্দর হয়ে উঠবে।

পোস্টের সম্পর্কিত লিংক তৈরি করুন

আপনি যে, বিষয় নিয়ে আর্টিকেল লিখবেন, সেই সম্পর্কিত আরো কিছু লিংক থাকলে সে গুলো আপনার ওয়েবসাইটে যুক্ত করে দিবেন।

এতে করে আপনি দুই ভাবে লাভবান হবেন। যেমন- আপনার যে, আর্টিকেল দর্শক পড়ছে, সেখান থেকেই আরো অন্য আর্টিকেল গুলোতে ক্লিক করেই প্রবেশ করতে পারবে।

আগে লিখুন তারপরে সংশোধন করুন

আপনি যে, বিষয় নিয়ে একটি আর্টিকেল লিখবেন, সেটি সম্পুন্ন লেখা শেষ হওয়ার পরে, পরীক্ষা দেওয়ার খাতার মতো রিভাইস দিবেন। যে কোন জায়গায় কিছু ভুল আছে কিনা। যদি ভুল থাকে তাহলে সংশোধন করবেন।

আরো দেখুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, উক্ত আলোচনায় আপনি যে, বিষয় গুলো জনাতে পারবেন, গুলো অনুসরণ করে যদি একটি আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহলেই আপনার এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল হয়ে যাবে।

আশা করি আমাদের পোস্ট পড়ে আপনারা অনেক উপকৃত হয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী আর্টিকেল লিখতে থাকুন আর বেশি বেশি টাকা আয় করুন।

আমাদের লেখা আপনার কাছে ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap