পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম

পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম : আমাদের মধ্যে অনেক লোক রয়েছে, যাদের জন্ম নিবন্ধনের সনদ হাতে লেখা। তবে বর্তমান সময়ের জন্ম নিবন্ধন এর সকল প্রকার কাগজ সম্পাদন করা হয়।

যে সকল কাগজ সম্পাদন করতে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন সনদ প্রয়োজন হয়। তাই আপনার জন্ম নিবন্ধন সারানোর যদি কে তোমাদের তৈরি করা হয়ে থাকে।

পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম
পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম

এবং জন্ম নিবন্ধন সনদের যদি কোন তথ্য ডিজিটাল অবশ্যই করে নিতে হবে। এবং এই ডিজিটাল করার পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে হলে, আজকে আমাদের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে।

তার কারণ আজ আমাদের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেবো। পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম সম্পর্কে।

আপনাদের জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করতে হলে, অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের পুর্নমুদ্রণ লক্ষ্যে আবেদন করতে হবে। আমাদের মধ্যে এমন অনেক লোক আছে যারা জানেন না পুনর্মুদ্রণ কি এবং বিভাবে করতে হয়।

এছাড়া অনেক লোক জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম সম্পর্কেও জানেন না। তাই আমাদের এই পোস্টে সঠিক ওয়েব সাইট ঠিকনা যু্ক্ত করা হয়েছে।

যে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনারা জন্ম নিবন্ধন পুনর্মুদ্রনের জন্য আবেদন করে, হাতে লেখা/ পুরাতন জন্ম নিবন্ধন সনদ ডিজিটাল করতে পারবেন।

তার জন্য বর্তমান সময়ে সকল প্রকার কাজ ডিজিটাল পদ্ধতিতে করা হয় বলে আমাদের কাগজপত্র ‍গুলো সব সময় ডিজিটাল রাখতে হবে। যাতে করে কোন প্রকার প্রাতিষ্ঠাতিক ঝামেলার সৃষ্টি না হয়।

তো আপনারা পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে, নিচে দেওয়া তথ্য গুলো শেষ পর্যন্ত মনযোগ দিয়ে পড়ুন।

পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম

আপনি যদি পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে আপনাকে bdris.gov.bd/br/reprint/add এই ওয়েবসাইট লিংকে প্রবেশ করতে হবে।

যেখানে প্রবেশ করে আপনি জন্ম নিবন্ধন এর তথ্য পুনর্মুদ্রণের কাজ করতে পারবেন।

তো আপনারা যে কোন ডিভাইস যেমন- মোবাইল, কম্পিউটার বা ল্যাপটপ দিয়ে আপনারা গুগল এ প্রবেশ করবেন। তারপরে সেই লিংক ভিজিট করে, সরাসরি জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার জন্য যে আবেদন করবেন। সেই আবেদন এর প্রথম পেজে চলে যাবেন।

সেখানে প্রবেশ করে, আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদে থাকা নিবন্ধন নম্বর প্রথম ঘরে যুক্ত করে দিতে হবে।

এরপরে, জন্ম নিবন্ধন সনদে থাকা তথ্য অনুযায়ী জন্ম তারিখ সঠিক ভাবে যুক্ত করতে হবে।

আপনার জন্ম তারিখ যুক্ত করার জন্য প্রথমে, জন্ম মাস নির্বাচন করতে হবে এবং জন্ম তারিখ নির্বাচন করতে হবে। এরপরে, এডিটি অপশনে গিয়ে জন্ম নিবন্ধন সনদ এর যে সাল দেওয়া রয়েছে সেই সাল সঠিক ভাবে যুক্ত করতে হবে।

তারপরে আপনাকে আপনার উক্ত জন্ম নিবন্ধন সনদ এর নম্বর ও তারিখ অনুসন্ধান করুন নামে অপশনে ক্লিক করতে হবে।

সেখানে অনুসন্ধান করার পরে, আপনার তথ্য অনুযায়ী নিবন্ধনকারী  ব্যক্তির তথ্য প্রদর্শিত হবে। আপনার চাওয়া তথ্য অনুযায়ী যদি সেখানের তথ্য মিলে যায়। তবে আপনাদেরকে কনফার্ম করে দিতে হবে। তারপরের পেজে যেতে হবে এবং পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করতে হবে।

পরবর্তী ধাপে ক্লিক করার মাধ্যমে, সেখানে গিয়ে নিবন্ধন কার্যালয়ের তথ্য প্রদান করবেন। মানে আপনি যে, স্থান থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদের ডিজিটাল কপি সংগ্রহ করবেন। সেই স্থানের ঠিকানা ও জন্ম নিবন্ধন সনদের তথ্য অনুযায়ী সঠিক ঠিকানা প্রদান করতে হবে।

প্রকৃত পক্ষে, আপনি জন্ম নিবন্ধন সনদে যে, স্থানের ঠিকানা দিয়ে তৈরি করেছেন। সেই স্থানের ঠিকানা আপনাকে এখানে প্রদান করতে হবে।

কিন্তু আপনার বর্তমান ঠিকানা যদি অন্য কারো হয়ে থাকে। তবে আপনাকে জন্ম নিবন্ধন সনদ এর ডিজিটাল কপি সংগ্রহ করতে। অবশ্যই সনদে দেওয়া ঠিকানা অনুসরণ করে, নিবন্ধন কার্যালয়ের কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

তো নিবন্ধন কার্যালয়ের তথ্য প্রদান কার জন্য দেশের নাম, বিভাগ এর নাম, জেলার নাম সহ অন্যান্য স্থানীয় সকল তথ্য সঠিক ভাবে প্রদান করতে হবে।

এখানে, আপনারা প্রতিটি তথ্য প্রদান করার পরে, পরবর্তীতে আপনাদের সামনে আরও একটি ঘর ফাকা চলে আসবে। আর চাতি তথ্য অনুসারে সঠিক তথ্য প্রদান করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার জন্যে আপনারা যদি নিজেরা জন্ম নিবন্ধন সনদ এর পুনর্মুদ্রণের উদ্দেশ্য আবেদন করেন তবে আবেদনকারীরর তথ্য বা সম্পর্ক এর স্থানে নিজ অপশন দিতে হবে।

কিন্তু অনেক লোক আছে, যারা উক্ত নিয়ম পড়গার পরে কম্পিউটার এর সহায়তা গ্রহণ করেন। এই ক্ষেত্রে তাকে দিয়ে কাজ করাতে চাইলে। আপনারা অন্যান্য অপশন দিবেন এবং মোবাইল নাম্বার ও ইমেইল ঠিকানা প্রদান করার সময় নিজের তথ্য প্রদান করবেন।

এরকম ভাবে আবেদনকারীরর সকল প্রকার তথ্য ও ঠিকনা প্রদান করার পরে, আপনারা একটু নিচে স্ক্রল করে, চলে যাবেন।

তারপরে, আপনাকে সেখানকার নির্দেশনা পড়তে হবে। অভিভাবক ব্যতীত অন্য কেউও হলে সেখানে তার জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার ও জন্ম  নিবন্ধন সনদ এর নম্বার প্রদান করতে হবে।

আপনারা সেখানে সকল তথ্য প্রদান করার পরে, আপনাদের অতিরিক্ত আরোও কোন তথ্য প্রদান করার দরকার হবে না। শুধু সাবমিট বাটনে ক্লিক করে আপনারা পরবর্তী পেজে প্রবেশ করবেন। এবং পরবর্তী পেজে যাওয়ার পরে, জন্ম নিবন্ধন সনদ এর পুনর্মুদ্রণ কপি প্রিন্ট করার অপশন পেয়ে যাবেন।

উক্ত আবেনদ এর অনলাইন কপি নিয়ে নিবেন। এবং স্থায়ী সরকার ভিগা বা নিবন্ধন এর কার্যালয়ে যোগাযোগ করবেন। আপনারা যখন উক্ত আবেদন পত্র এর কপি দিবেন ও অন্যান্য চাহিদা তথ্য অনুযায়ী কাগজপত্র প্রদান করবেন। তখন আপনার থেকে কিছ দিন সময় তারা গ্রহণ করে নিবেন।

কিন্তু জন্ম নিবন্ধন সনদ এর পুনর্মুদ্রণ করার জণ্যে কোন প্রকার ফি প্রদান করতে হবে না। তাই আপনারা উক্ত লিখিত নিয়ম অনুসরণ করে, আবেদন পত্রের এপ্লিকেশন আইডি সংগ্রহ করার পাশাপাশি।

সেই কপিটি প্রিন্ট করে নিবেন এবং অনেক সীমিত সময় এর মধ্যে স্থায়ী সরকার বিভাগ থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদ এর ডিজিটাল কপি সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।

তো বন্ধুরা উক্ত পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম টি অনুসরণ করে, সহজেই সেই সম্পন্ন করতে পারবেন। কিন্তু উক্ত নিয়মে পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করতে, আপনাদের নিবন্ধন এর ওয়েবসাইটে একটি একটি একাউন্ট রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে হবে।

পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার সহজ উপায়

আপনারা উক্ত আলোচনাতে জানাতে পারলেন পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম। তো উক্ত নিয়মটি যদি আপনার কাছে ঝামেলা মনে হয়।

নিজে নিজে যদি পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল না করতে পারেন। সেক্ষেত্রে আপনারা সরাকরি স্থায়ী সরকার বিভাগ এর কার্যালয়ে গিয়ে, আপনার পুরাতন হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন ও প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সংগ্রহ করে, জমা দিলেই অল্প সময়েল মধ্যে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন সনদ গ্রহণ করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

তো আজ আমাদের এই পোস্টে আপনাকে জানানো হলো, যাদের পুরাতন বা হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন সনদ ডিজিটাল করতে চান, সেই বিষয় সম্পর্কে।

আপনারা উক্ত নিয়ম গুলো অনুসরণ করে, খুব সহজেই পুরাতন জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করতে পারবেন।

উক্ত আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ার পড়ে আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানবেন। আর বিশেষ করে, আমাদের দেওয়া আর্টিকেলটি আপনার বন্ধুদের জানাতে নিচে দেওয়া সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap