কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে)

বর্তমানে আমরা ব্লগিং করার জন্য ব্লগ বা ওয়েবসাইট তেরি করার জন্য ওয়ার্ডপ্রেস প্লার্টফর্ম ব্যবহার করি।

আমরা ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে, যত সহজ ভাবে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারি। সুবিধা অন্য প্লাটফর্ম গুলোতে পায় না।

তাই আপনি যদি একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান। তাহলে আপনাকে ওয়েবসাইট এর সিকিউরিটি নিয়ে একটি ভাবতে হবে। কারণ এটি অনেক জরুরী বিষয়।

ওয়েবসাইট এর নিরাপত্তা নিয়ে যখন কথা হয়। তখন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিয়ে অবশ্যই কাজ করতে হবে।

বর্তমান সময়ে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট বিভিন্ন ভাবে ব্যাকআপ নেওয়া যায়।

ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি সিএমএস সফটওয়্যার। এটি ব্যবহার করে আমাদের প্রয়োজনী হোস্টিং ব্যবহার করে তারপরে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়।

আমরা ওয়ার্ডপ্রেস এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট তৈরি করলে সাইট এর সকল ফাইল, ডাটা ইত্যাদি গুরো হোস্টিং এর মধ্যে যুক্ত থাকে।

আর আপনার হোস্টিং আছে বলে আপনি চিন্তা মুক্ত না। কারণ অনেক সময় ওয়েব হোস্টিং সার্ভার আপনার নিয়ন্ত্রণে নাও থাকতে পারে।

তার জন্য, ওয়েব হোস্টিং এর সাথে জরিত অন্যান্য সমস্যা গুলো ভবিষ্যতে আপনার ওয়েবসাইটে দেখা দিতে পারে।

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে)
কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে)

যেমন-

আপনি যে কোম্পানি থেকে হোস্টিং ব্যবহার করেন। সেই হোস্টিং কোম্পানি কোন কারণে বন্ধ করে দিতে পারে।

যে কোন সমস্য কোন কারণে, আপনার হোস্টিংকোম্পানি আপনার ওয়েবসাইট সাসপেন্ড করে দিতে পারে।

আপনার হোস্টিং সার্ভার হ্যাক হয়ে যেতে পারে।

ওয়ার্ডপ্রেস থেকে ডাটা এবং ফাইল রিমুভ হয়ে যেতে পারে।

এবং আপনার সাইট হ্যাক হয়ে যেতে পারে।

উক্ত সমস্যা গুলো আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে সাথে ঘটলে আপনি অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হবেন।

তাই আপনি যদি এই সমস্যা গুলো সম্মুখিন হোন। তাহলে আপনাকে অবশ্যই ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ব্যাকআপ করতে হবে।

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট নিরাপত্তায় রাখতে অবশ্যই ব্যাকআপ নিতে হবে। তাই নিচে দেওয়া তথ্য গুলো অনুসরণ করুন আমরা আপনাকে বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব।

কেন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের ব্যাকআপ নেওয়া জরুরি ?

আমরা উক্ত আলোচনাতে আগেই বলেছি। ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করার সময় ভবিষ্যতে যদি কোন প্রকার সমস্যা হয়। তাহলে ওয়েবসাইট এর একিট ব্যাকআপ ফাইল এর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইট পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারবনে।

যখন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ করা হয়। তখন ওয়েবসাইট এর সাথে সম্পর্কিত সকল ফাইল, ডাটা, মিডিয়া, পোস্ট, প্লগিন, থিম ইত্যাদি আমাদের ক্লাউড স্টোরেজ বা কম্পিউটার এ একটি জিপ ফাইল হেসেবে সেভ করে রাখা যায়।

এতে করে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট হ্যাক বা নষ্ট হয়ে যাওয়া ওয়েবসাইট কোন প্রকার সমস্যা হলে। আপনি ব্যকআপ ফাইলটি Restore দিয়ে পূর্ণরায় ফিরিয়ে নিতে পারবেন।

তাই আপনি যদি ব্লগিং করেন। তাহলে অবশ্যই আপনার সাইট ব্যাকআপ করা গুরুত্বপূর্ণ।

অনেক সময় আমাদের ওয়েবসাইট হোস্টিং সার্ভার বন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। হোস্টিং কোম্পানি আপনাকে সাসপেন্ড করে দিতে পারে।

সেই জন্য আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর ব্যাকআপ করে নেওয়া অনেক জরুরী।

আপনি যদি উক্ত সমস্যায় পড়েন। তখন আপনি অন্য হোস্টিং কোম্পানি থেকে হোস্টিং কিনে নিয়ে।

সেখানে আপনার ওয়েবসাইট ব্যাকআপ ফাইল Restore করে আবার কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন। আপনার ওয়েবসাইট কোন ভাবেই ক্ষতি হবে না।

আপনার কাছে যদি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর কোন ব্যাকআপ না থাকে। তাহলে আপনার ওয়েব হোস্টিং বন্ধ হয়ে যাবে। আপনার একাউন্ট সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়। তাহলে ওয়েবসাইট আর কোন ভাবে ফিরে পাবেন না।

সেক্ষেত্রে আপনাকে ওয়েবসাইট ব্যবহার করার জন্য নতুন ডোমেইন এবং নতুন করে সকল আর্টিকেল লিখতে হবে, একটি নতুন ভাবে ওয়েবসাইট বানাতে হবে।

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ?

আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যবহার করেন।তাহলে অবশ্যই ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিয়ে কাজ করতে হবে। তা না হলে আপনি অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হবে।

তাই আজ আমরা এখানে দেখাব। কিভাবে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন। তো চলুন বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

আরো পড়ুনঃ

ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট ব্যাকআপ

ওয়ার্ডপ্রেস এর প্লাগিন এর বিষয়টির জন্য অনেক জনপ্রিয়। আপনার নিজের ওয়েবসাইট এ যে কোন নতুন ফাংশন ও ফিচার যুক্ত করার জন্য প্লাগিন ডিকশনারিতে একটি হলেও প্লাগিন আছে।

যেমন- ওয়ার্ডপ্রেস এর সেরা সোশ্যাল মিডিয়া প্লাগিন। এবং উক্ত প্লাগিন গুলোর মধ্যে, এমন কিছু জনপ্রিয় ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাকআপ প্লাগিন আছে। যে গুলো আপনি ওয়ার্ডপ্রেসে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনি শুধু নিজের ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকে Add New Plugin অপশনে ক্লিক করবেন।

তারপরে নিচে দেখতে পারবেন Backup Plugin গুলো। সেগুলোর মধ্যে যে কোন একটি সার্চ করে ইনস্টল এবং এক্টিভ করে নিবেন।

তারপরে প্লাগিন এর মধ্যে থাকা ব্যাকআপ অপশনে ক্লিক করে সম্পন্ন ওয়েবসােইট ব্যাকআপ নিতে পারবেন।

আপনার প্রয়োজন হিসেবে ব্যাকআপের মধ্যে থাকা রেস্টোর বাটনে ক্লিক কররে সম্পন্ন ওয়েবসািইট আবার রিস্টোর করে নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

আপনারা ওয়েবসােইট এর ব্যাকআপ গুলো নিজের কম্পিউটার বা গুগল ড্রাইভ স্টোরেজ এর মধ্যে সেভ করে রাখতে পারবেন।

এখন আমরা আপনাকে সঠিক ভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপন নেওয়ার বিষয়ে জানাব। ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ করার প্লাগিন হচ্ছে-

  • Updraftplus ব্যাকআপ প্লাগিন।
  • Duplicator ব্যাকআপ প্লাগিন।
  • All-in-one WP Migration ব্যাকআপ প্লাগিন।
  • Backwpup ব্যাকআপ প্লাগিন।

Updraftplus প্লাগিন (ব্যাকআপ ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন)

বর্তমান সময়ে সব চেয়ে জনপ্রিয় ব্যাকআপ প্লাগিন হলো- updraftPlus.

উক্ত updraftPlus ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন ব্যবহার করে ওয়েবসাইট ব্যাক আপ নিতে পারবেন।

আপনি উক্ত প্লাগিন এর মাধ্যমে নিজের ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর ফাইল, ডাটা, পোস্ট, প্লাগিন, থিম ইত্যাদি সকল কিছু ব্যাক আপ করে রাখতে পারবেন।

এই updraftPlus প্লাগিন ব্যবহার করে আপনারা ব্যাকআপ ফাইল গুলো নিজের কম্পিউটার বা Cloud স্টোরেজ যেমন- গুগল ড্রাইভ এ Save করে রাখতে পারবেন।

উক্ত ব্যাকআপ কাজ গুলো আপনি সহজ ভাবে করতে পারবনে। আপনি ‍উক্ত প্লাগিন ব্যাবহার করে, সম্পূর্ণ সাইট ব্যাকআপ করতে পারবেন।

আপনি চাইলে এখানে অটোমেটিক ব্যাকআপ সেটিং করে রাখতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

মানে আপনি ওয়েবসাইটে যে কাজ গুলো আবডেট ও নতুন ভাবে করবেন। সেগুলো সরাসটি ব্যাকআপ ফাইলে চলে যাবে।

উক্ত updraftPlus ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন আপনি ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি ব্যাকআপ নিতে আগ্রহী থাকেন। তাহলে আজই এটি ডাউনলোড করুন।

ডাউনলোডঃ updraftPlus

Duplicator প্লাগিন (ব্যাকআপ ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন)

duplicator প্লাগিন হলো- একটি ওয়ার্ডপ্রেস সাইট এর কপি করা, Clone করা, Migrate করা।

বিশেষ করে উক্ত প্লাগিন ব্যবহার করে, আপনি ওয়েবসাইট একটি হোস্টিং থেকে আরেক অন্য হোস্টিং সার্ভারে ট্রান্সফার করতে পারবেন।

তাই ওয়ার্ডপ্রেস এর জন্য একটি সেরা ও ফ্রি ব্যাকআপ প্লাগিন হিসেবে duplicator প্লাগিন পরিচিত।

আপনি যে কোন সময় ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর কপি কিংবা Clone তৈরি করে কম্পিউটারে ডাউনলোড করে রাখতে পারবেন।

আপনার যদি ভবিষ্যতে, ওয়ার্ডপ্রেস সাইট সমস্যা হয় তাহলে duplicator প্লাগিন ব্যবহার করে নিজের কম্পিউটারে আগে থেকে সেভ করে রাখা।

ওয়েবসাইট ফাইল ইনস্টল করে বা এক্টিভ ফাইল ব্যবহার করে ওয়েবসাইট Restore করে ঠিক করে নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

আপনি চাইলে, আপনার ওয়েবসাইট হোস্টিং কোম্পানিতে গিয়ে নতুন করে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করে। সেই ব্যাকআপ ফাইল গুলেঅ রেস্টোর করতে পারবেন।

এতে করে নতুন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর জায়গায় আপনার ওয়েবসাইট এর ফাইল, প্লাগিন, ডাটা, ইমেজ, পোস্ট, থিম ইত্যাদি যোগ করে নিতে পারবেন।

উক্ত প্লাগিন এর মাধ্যমে আপনার ওয়েববসাইট ব্যাকআপ নেওয়া থাকলে যখন ইচ্ছা তখন যে কোন পরিস্থিতি নিজের ক্ষতিগ্রস্থ সাইট আবার পূর্ণরায় ফিরিয়ে নিতে পারবেন।

ডানলোড করুনঃ duplicator

All-in-one WP Migration প্লাগিন (ব্যাকআপ ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন)

কোন প্রকার আলদা অভিজ্ঞতা ছাড়াই, আপনারা উক্ত সাধারণ ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগিন ব্যবহার করে। নিজের ওয়েবসাইট সম্পুর্ণ ভাবে ফাইল, ডাটা, ইমেজ, প্লাগিন, আর্টিকেল, থিম ইত্যাদি গুলো সেভ করে, মানে ব্যাকআপ করে রাখতে পারবেন।

যে কোন সময় নিজের ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর ব্যাকআপ নিতে পারবেন। তার সাথে যে কোন সময় নিজের সাইট রিস্টোর করে নিতে পারবেন।

উক্ত All-in-one WP Migration প্লাগিন ব্যবহার করে, আপনার ওয়েবসাইট এর সম্পুন্ন ডাটা ফাইল গুলো একটি সিংগেল ফাইল এর মধ্যে সেভ করে নিজের কম্পিউটার থেকে ফাইলটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনার যদি ভবিষ্যতে ওয়েবসাইট হ্যাক বা নষ্ট হয়, তাহলে আপনি All-in-one WP Migration প্লাগিনের মাধ্যমে আপনার সাইট ব্যাকআপ নিয়ে রিস্টোর করে আগের মতো ঠিক করে নিতে পারবেন।

উক্ত ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট গুলো ছাড়া আরো অনেক ফ্রি ব্যাকআপ প্লাগিন আছে। সেগুলো আপনি অনলাইনে সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন।

তবে আমরা যে, ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর ফ্রি ব্যাআপ প্লাগিন দেখিয়েছি। সেগুলো আপনি সহজ ভাবে ব্যবহার করতে পারবেন।

আর আপনার ওয়েবসাইট সমস্যা হলে সেভ করা ফাইল ওয়েবসাইটে রিস্টোর করলেই ঠিক করে নিতে পারবেন।

ডাউনলোড করুনঃ All-in-one WP Migration

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজ আমাদের পোস্ট থেকে শিখতে পারলেন, কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিতে হয়। আপনি যদি উক্ত ওয়ার্ডপ্রেস ব্যাকআপ প্লাগিন গুলো ব্যবহার করেন। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট সারা জীবনের জন্য বাচিঁয়ে রাখতে পারবেন।

তাই প্রফেশনাল ভাবে ব্লগিং করতে গেলে আপনাকে অবশ্যই ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাপআপ প্লাগিন ব্যবহার করে ফাইল সেভ করে রাখতে হবে।

আমরা আশা করি উক্ত আলোচনা পড়ে, বুঝতে পারলেন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট গুলো কিভাবে ব্যাকআপ নিতে হয়।

আমাদের দেওয়া আর্টিকেল আপনার কাছে ভালো লাগলে একটি কমেন্ট করে জানাবেন।

ট্যাগঃ কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে) কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে) কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে)

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে) কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে) কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ব্যাকআপ নিবেন ? (জেনেনিন এখানে)

আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে নিয়মিত ভাবে নতুন নতুন আর্টিকেল পড়তে চাইলে, জে আইটি ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। আমাদের সাথে সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap