অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক

বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে প্রচুর টাকা আয় করা যায়। এই সময়ে ব্লগিং এমন একটি অনলাইন বিজনেস যা করে লোকের ঘরে বসে অনলাইনে টাকা ইনকাম করছে।

তাই আমরা জানি, ঘরে বসে আয় করার সহজ ও মজার কাজ হলো ব্লগিং। ব্লগিং করার বিষয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে অনেক ট্রিক্স এন্ড ট্রিক্স শেয়ার করা আছে। চাইলে সেগুলো অনুসরণ করুন।

আজ আমরা জানাবো, ব্লগিং এর ক্ষেত্রে অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক।

আপনি যদি উক্ত আর্টিকেল শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েন। তাহলে এই বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা নিতে পারবেন।

অনেকে প্রশ্ন করে যে, অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করলে কি সমস্যা হবে। অন্যের সাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে নিজের সাইটে ব্যবহার করা যাবে কি?

বর্তমান সময়ে যারা, নতুন অবস্থায় ব্লগিং করে, তাদের মধ্যে 70% লোক নিজের ব্লগে আর্টিকেল লেখার জন্য অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে।

অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক
অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক

অনেকে অন্যের সাইট থেকে কনটেন্ট কপি করে, চুরি করে, নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ব্যবহার করে নিজের নামে চালিয়ে দেয়।

তাই যারা ব্লগিং এর ক্ষেত্রে অন্যের সাইট থেকে আর্টিকেল চুরি করে ওয়েবসাইটে ব্যবহার করে তাহলে তাদের ওয়েবসাইট অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

তাই আজ আমাদের এই আর্টিকেলে আপনাকে জানাব, অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক।

অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক

আমরা যখন নতুন কোন ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করি। তখন আমাদের মূল উদ্দেশ্য থাকে গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভিজিটর পাওয়া।

তবে ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর নিয়ে আসার আরো অনেক উপায় আছে।

বর্তমান সময়ে অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন গুলোর চেয়ে গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভিজিটর আসলে অনেক লাভ হওয়া সম্ভব।

আমাদের ওয়েবসাইটে যখন গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর আশা শুরু হয়।

তখন আমাদের ২য় উদ্দেশ্য থাকে। গুগল এডসেন্স এ আবদেন করা। তারপরে ওয়েবসাইট বা ব্লগে বিজ্ঞাপন দিয়ে টাকা আয় করা।

তাই ব্লগিং এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করার জন্য সব চেয়ে জরুরী বিষয় হলো গুগল সার্চ থেকে অর্গানিক ভিজিটর নেওয়া।

আমরা যখন কষ্ট করে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট দাড় করাই, সেখানে যদি ভিজিটর না আসে তাহলে ব্লগিং করে কোন লাভ হবে না।

আপনি আপনি যদি নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে কপি কনটেন্ট ব্যবহার করেন। তাহলে ব্লগিং এ সফলতা পাওয়া সম্ভব না।

তবে তার আগে, জেনে নেওয়া যাক কপিরাইট কনটেন্ট কি।

আরো পড়ুনঃ

কপিরাইট কনটেন্ট কি? (What is Copyright Content)

আপনা কে প্রফেশনাল ব্লগার হওয়ার জন্য সবার আগে, কপিরাইট কনটেন্টের ব্যবহার করা থেকে আপনার সাইট সুরক্ষা রাখতে হবে।

তাই প্রথমে আপনাকে জেনে নিতে হবে কপিরাইট কনটেন্ট কাকে বলা হয়।

এমনিতে যে কোন আর্টিকেল, ছবি, ডকুমেন্ট, মিউজিক, টেক্সট যে গুলোর মালিকানা অধিাকর আছে।

সেই আর্টিকেল গুরো পাবলিক্যাল ব্যবহার করা অনুমতি থাকে না। সেই সকল আর্টিকেল গুলোকে বলা হয় কপিরাইট থাকা আর্টিকেল।

যদি আর্টিকেল এর মালিক নিজের ইচ্ছা মতে, সেগুলো ব্যবহার করতে চাই। তাহলে নিজের সাইট থেকে ছবি, ডকুমেন্ট, মিউজিক, টেক্সট ব্যবহার করতে পারবে।

অনলাইনে যে কোন ডিজিটাল প্রডাক্ট বা ওয়ার্ক এর কপিরাইট প্রডাক্টশনের ক্ষেত্রে 1998 সালে ডিএমসিএ (DMCA) তৈরি করা হয়েছে।

Dmca আইন এর মাধ্যমে ইন্টারনেটে থাকা। সকল ক্রিয়েটিভ কাজ গুলোর মালিকানা অধিকার রক্ষা  করে।

আপনি যখন অন্যের ওয়েবসাইট থেকে কোন অনুমতি ছাড়া তাদের আর্টিকেল টেক্সট, ছবি ইত্যাদি কপি বা চুরি করে নিজের ওয়েবসাইটে ব্যবহার করেন তাহলে সেটি কপিরািইট লঙ্ঘন বলে ধরে নেওয়া হবে।

আর যদি সেটি হয় তাহলে আপনি অনেক বিপদে পড়ে যাবেন। যার ফলে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার 100% সম্ভাবনা থাকবে।

অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা ক্ষতির কারণ গুলো

আপনি যদি অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে নিজের সাইটে প্রকাশ করেন। তাহলে আপনি বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখিন হবেন।

তাই এখানে আমরা উক্ত বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব। তো চলুন নিচের ধাপ গুলো থেকে যেনে নেওয়া যাক।

আরো পড়ুনঃ

গুগল থেকে ভিজিটর পাবেন না

আপনি যখন অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল/ কনটেন্ট কপি করে, নিজের সাইটে প্রকাশ করবেন। তখন আপনার ওয়েবসাইট এর কোন প্রকার ক্ষতি হবে না।

কিন্তু মনে রাখবেন- আপনার কপি করা আর্টিকেল গুলো গুগল সার্চ ইঞ্জিন ফলাফল পেজে বেশি দিন রেঙ্ক করিয়ে রাখতে পারবেন না।

করণ- বর্তমান সময়ে গুগল এর বোট গুলো প্রচুর এডভান্স হয়ে গেছে।

তাই যে কোন প্রকার কপি করা আর্টিকেল এর বিষয়ে গুগল দ্রুত ভাবে জানার ক্ষতা রাখে।

যে ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে আপনি আর্টিকেল কপি বা চুরি করেছেন। সেই ওয়েবসাইট যদি গুগল এ আগে থেকে রেঙ্ক হয়ে থাকে।

তাহলে গুগল অনেক সহজে বুঝতে পারবে, আপনি কোন পেজ বা ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল/ কনটেন্ট কপি করেছেন।

তারপরে আপনার কপি করা আর্টিকেল পেজ কখনই গুগল সার্চ ইঞ্জিন ফলাফলে রেঙ্ক করতে দিবে না।

তাহলে উক্ত আলোচনা থেকে বুঝতে পারছেন যে, ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করে যদি অন্যের ওয়েবসাইট থেকে কপি করা আর্টিকেল প্রকাশ করার চিন্তা করা হয়। তাহলে কোন লাভ হবে না।

তাই আপনাকে আমরা পরামর্শ দেব। কষ্ট করে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার পরে সেখানে অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে, নিজের সাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করলে অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হবেন।

তাই বোকার মতো, অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা থেকে বিরত থাকুন। আর নিজের মতো করে আর্টিকেল লিখুন।

কপিরাইট লঙ্ঘনের অভিযোগ Google-এ রিপোর্ট করুন

আমরা আগেই বলেছি, গুগল এখন অনেক শক্তিশালী একটি সার্চ ইঞ্জিন। আপনি যে ব্লগ বা ওয়েবসাইট ব্যবহার করেন। সেই ব্লগ বা সাইট থেকে, আপনার আর্টিকেল কপি হলে আপনার কিন্তু ভালো লাগবে না।

আপনার সাইট থেকে যদি কনটেন্ট কপি হওয়ার সঠিক তথ্য পেয়ে থাকেন। তাহলে আপনি কপিরাইট লঙ্ঘনের অভিযোগ করে, গুগল এ রিপোর্ট করতে পারবেন।

গুগলে এমন অফিসিয়াল অনলাইন টুল আছে। যেখানে প্রবেশ করে যে কেউ তার কপি হওয়া আর্টিকেল এর বিষয়ে গুগলকে রিপোর্ট করতে পারবে।

মনে করুন আমাদের ওয়েবসাইট থেকে কোন আর্টিকেল অন্য লোক কপি, চুরি করে নিজের ব্লগে প্রকাশ করেছে।

সে ক্ষেত্রে আপনি গুগলের রিপোর্ট টুল ব্যবহা করে। গুগলে কপিরাইট লঙ্ঘনের বিষয়ে জানাতে পারবনে।

তারপরে আমাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গুগল কপি কনটেন্ট এর বিষয়ে যাচাই করবে। এর পর যদি আপনার দেওয়া তথ্য সঠিক থাকে। তাহলে গুগল আপনার সাইট থেকে কপি হওয়া কনটেন্ট ব্যবহার করা ওয়েবসাইটকে নিজের সার্চ ফলাফল থেকে সরিয়ে দিবে।

আরো পড়ুনঃ ব্লগ আর্টিকেল চুরি হওয়া থেকে রক্ষা করুন (DMCA Protection)

এছাড়া সেই ওয়েবসাইট এর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিবে।

তাই আপনি যদি অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি বা চুরি করে নিজের সাইটে প্রকাশ করেন। তাহলে এতে আপনার ওয়েবসাইট অনেক বিপদে পরে যাবে।

কপিরাইট কনটেন্ট এর কোন ভবিষ্যত নাই

আপনি যদি অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল/ কনটেন্ট কপি করে সেগুলো থেকে কিছু শব্দ পরিবর্তন করে নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেন। তারপরেও সেটি গুগল বুঝতে পারবে।

যার ফলে আপনি গুগল এর কাছে ধরা খেয়ে যাবেন। এবং গুগল সার্চ রেজাল্ট থেকে আপনি কোন প্রকার ট্রাফিক বা ভিজিটর পাবেন না।

আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগে কম সময় নিয়ে কাজ করে। তাহলে গুগল থেকে ভালো ট্রাফিক পাবেন না। আর ভিজিটর ছাড়া আপনার ওয়েবসাইট কত দিন অনলাইনে টিকিয়ে রাখতে পারবেন।

তাই আপনি অন্যের ওয়েসাইট থেকে নিজের সাইটে আর্টিকেল কপি করা থেকে বিরত থাকুন। নিজের মেথা খাটিয়ে আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করুন।

তাহলে দ্রুত ভাবে ব্লগিং এর ক্ষেত্রে সফল হতে পারবেন। মোট কথা আপনি যদি অন্যেও ওয়েবসাইট থেকে কনটেন্ট কপি করেন। তাহলে ব্লগিং এ আপনার ভবিষ্যৎ গড়তে পারবে না।

আর যদি নিজে থেকে ইউনিক আর্টিকেল গুলো লিখে, কাজ করতে পারেন। তাহলে ব্লগিং জগতে আপনার নিজের ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারবেন।

এডসেন্স একাউন্ট সাসপেন্ড হওয়ার সম্ভাবনা থাকে

আমরা জানি গুগল এডসেন্স অনেক কঠোর পলিসি ও নিয়ম কানুন গুলো দিয়ে থাকে। গুগল এডসেন্স এর নিয়ম হিসেবে।

কোন প্রকার কপি করা বা কপি রাইট লঙ্ঘন করা আর্টিকেল পাবলিশ করলে নিজের ওয়েবসাইটে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন দেখানো হবে না।

এছাড়া, আপনি যদি অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করেন। তাহলে বড় ক্ষতিকারক হতে পারে, সেটি হলো- আপনা সাইটের এডসেন্স একাউন্ট ডিসএবল হওয়া সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

আমরা জানি, উক্ত বিষয়ে গুগল অফিসিয়াল ভাবে নিয়ম মানার পরামর্শ প্রদান করেছে সকলকেই।

তাহলে চিন্তা করে দেখুন। আপনি যদি অন্যের সাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে নিজের সাইটে দেন। তাহলে এত কষ্ট করে গুগল এডসেন্স পাওয়ার পরে যদি একাউন্ট সাসপেন্ড বা ডিসএবল হয়ে যায়। তাহলে আপনার কতটা কষ্ট লাগবে।

তাই আপনি যদি অন্যের সাইট থেকে আর্টিকেল কপি করে থাকেন। তাহলে এই চুরির কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে।

নিজের জ্ঞান থেকে ছোট হোক, ইউনিক আর্টিকেল লিখতে হবে। তাহলে প্রচুর  টাকা আয় করতে পারবেন গুগল এডসেন্স থেকে।

লো কোয়ালিটি সাইট

আপনি যদি অন্যের ওয়েবসাইট থেকে কনটেন্ট কপি করে, নিজের ওয়েবসাইটে প্রকাম করেন। তাহলে আপনার ওয়েবসাইট এর কোয়ালিটি কখনও ভালো থাকবে না।

আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর অনেক ভালো করে বুঝতে পারবে যে, আপনার আর্টিকেল অন্য কোথাও থেকে কপি বা চুরি করা।

যার ফলে, আপনি একটি অথোরিটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন না। এছাড়া আপনার ওয়েবসাইটটি ভিজিটরদের নজরে খারাপ চিত্র হিসেবে ভেবে নিবে।

তাই ব্লগিং করে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে, একজন প্রফেশনাল ব্লগার এর মতো কাজ করতে হবে। বিশেষ করে অন্যের সাইট থেকে কপি করা পুরোপুরি ভাবে বন্ধ করতে হবে।

আপনার ওয়েবসাইট যদি লো কোয়ালিটি সাইট হিসেবে না দেখতে চান। তাহলে নিজের জ্ঞান থেকে আর্টিকেল শেখা শুরু করুন।

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজ আমাদের এই পোস্ট থেকে শিখতে পারলেন, অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল  কপি করা কেন ক্ষতিকারক।

আমরা উক্ত আলোচনায় যে ক্ষতির কারণ গুলো দেখিয়েছি সেগুলো ছাড়া আরো অনেক ক্ষতিকারক দিক আছে।

তাই আপনি যদি ব্লগিং এ সফল হতে চান। তাহলে অন্যের সাইট থেকে আর্টিকেল বা কনটেন্ট কপি করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

ট্যাগঃ অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক

অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক অন্যের ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেল কপি করা কেন ক্ষতিকারক

আমাদের দেওয়া আর্টিকেল আপনার কাছে কেমন লাগলো। অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। এবং এই আর্টিকেল আপনার বন্ধুদের কাছে শেয়ার করে, তাদের কেও সতর্ক করুন অন্যের ওয়েবসাইট থেকে কনটেন্ট কপি করা থেকে।

আমাদের সাথে শেষ পর্যন্ত সময় দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap