ওয়েবসাইট তৈরির খরচ কত? বিস্তারিত জেনে নিন

ওয়েবসাইট বানাতে চাচ্ছেন? জানেন কি একটি ওয়েবসাইট বানাতে মোট কত টাকা খরচ পড়তে পারে? হয়তো বা আপনার উত্তর হ্যাঁ অথবা না। যাই হোক আপনি যেহেতু এই পোস্টটি পড়তে এসেছেন তার মানে আপনার ওয়েবসাইট সমন্ধিত কিছু দিক নির্দেশনা দরকার, তাই না? ‍ওয়েব সাইট তৈরির খরচফ্রি ওয়েবসাইট বানিয়ে কীভাবে অনলাইনে আয় করা যায় সে বিষয়েই এই লেখা।

হ্যাঁ, আপনার উক্ত কথাটি চিন্তা করেই আমাদের আজকের আলোচনাটি সাজানো হয়েছে। আজকে আমরা আলোচনা করবো একটি ওয়েবসাইট বানাতে আপনার মোট কত টাকা খরচ পড়তে পারে এবং পরিচালনা করতে বাজেট কত রাখতে হবে? আশা করি পুরো আলোচনা জুড়ে আপনার সান্নিধ্য পাব।

ওয়েব সাইট তৈরির খরচ কত?
ওয়েব সাইট তৈরির খরচ কত?

তো চলুন দেরি না করে জেনে আসি আমাদের আজকের আলোচনার মূল বিষয়গুলো-

ওয়েবসাইট তৈরির খরচ নির্ভর করে তার ফিচারের উপর-

হেড লাইনটি দেখে হয়তো আপনি এতক্ষণে বুঝে গেছেন সব রকম ওয়েবসাইট বানাতে কখনোই একই রকম খরচ পড়ে না। সচরাচর দেখা যায় যে ওয়েবসাইট এর খরচ এর ধরনের উপর নির্ভর করে।

অর্থাৎ আপনি কেমন সাইট বানাতে চাচ্ছেন তার উপর ভিত্তি করে আপনাকে বাজেট ঠিক করতে হবে। উদাহরণ স্বরূপ আপনাকে একটা কথা বলতে পারি আর তা হলো- কারোর কাছে অর্থাৎ কোনো ওয়েব ডেভলপার এর কাছ থেকে আপনি যদি একটি নিউজ সাইট বানিয়ে নিতে চান তবে আপনাকে তাকে আপনার ৪ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত দেয়া লাগতে পারে।

অপরদিকে আছে ই-কমার্স সাইট যা বানাতে আপনাকে ৮ হাজার টাকা থেকে ১০ টাকা কিংবা তার চেয়েও বেশি বাজেট রাখা লাগতে পারে। দেখতেই পাচ্ছেন নিউজ সাইট আর ই-কমার্স সাইট ভেদেই দামটা কতটা ভিন্ন হচ্ছে। সুতরাং মোট কথা এটাই দাঁড়ায় যে আপনি যত ভালো সাইট বানাতে চাচ্ছেন আপনাকে তত ভালো বাজেট রাখতে হবে। এখন আপনিই ভেবে নিন আপনি যা বানাতে চাচ্ছেন তা কেমন হবে?

আরও পড়ুন:

এছাড়াও ওয়েবসাইট আরো কিছু ধরনের হয়ে থাকে যার ফলে দামটাও সেক্ষেত্রে ভিন্ন হয়। সেগুলো হলো-

  • স্ট্যাটিক
  • ডাইনামিক স্ট্যাটিক

আগের মতোই এক্ষেত্রেও দামটা স্ট্যাটিক এর ক্ষেত্রে একটু কম । তবে ডাইনামিক স্ট্যাটিক এর ক্ষেত্রে তা একটু বেশি।

ডোমেইন কেনার খরচ-

ওয়েবসাইট বানানোর শুরুতেই আপনাকে যে বিষয়টি নিয়ে ভাবতে হবে তা হলো ডোমেইন। একটি বাড়ি বানানোর জন্য যেমন শুরুতেই একটি নির্দিষ্ট ঠিকানা দরকার পরে ঠিক তেমনি একটি ওয়েবসাইট বানাতে গেলে আপনাকে এর ঠিকানা অর্থাৎ এড্রেস ঠিক করে নিতে হবে। আর ওয়েবসাইট এর এড্রেস বা ঠিকানা বলতে আমরা সাধারণত ডোমেইন কেই বুঝিয়ে থাকি। যা আপনি হয়তো আমাদের ডোমেইন পর্বতেই জেনে থাকবেন। না জেনে থাকলে দেখে আসতে পারেন- ডোমেইন কি ? কিভাবে কাজ করে?  

তো একটি ডোমেইন যখন আপনি কিনতে যাবেন তখন আপনাকে এর প্রাইস বা মূল্য সমন্ধে একটু ধারণা রাখতেই হবে। চলুন একটু জেনে আসা যাক বাংলাদেশে ডোমেইন কিনতে আপনার কত টাকা খরচ পড়তে পারে-

ডট কম-

এই ডোমেইনটি রেজিস্টার করতে আপনার যাবে ১০৯৯ টাকা । আবার এটি ট্রান্সফার করতেও আপনাকে দিতে হবে একই পরিমাণ অর্থাৎ ১০৯৯ টাকা। এমনকি রিনিউ বা নতুন করতে প্রতি বছরের জন্য আপনাকে ১০৯৯ টাকা দেয়া লাগবে।

ডট নেট-

ডট নেট ডোমেইনটি রেজিস্টার করতে আপনার যাবে ১৩৯৯ টাকা ।  এটি ট্রান্সফার করতেও আপনাকে দিতে হবে একই পরিমাণ অর্থাৎ ১৩৯৯ টাকা। এমনকি রিনিউ বা নতুন করতে প্রতি বছরের জন্য আপনাকে ১৩৯৯ টাকা দেয়া লাগবে।

ডট অর্গ-

উক্ত ডোমেইনটি রেজিস্টার করতে আপনার যাবে ১৩৯৯ টাকা এবং এটি ট্রান্সফার করতেন আপনাকে দিতে হবে একই পরিমাণ অর্থাৎ ১৩৯৯ টাকা। এমনকি রিনিউ বা নতুন করতে প্রতি বছরের জন্য আপনাকে ১৩৯৯ টাকা দেয়া লাগবে।

ডট বিজ-

উক্ত ডোমেইনটিতে আপনি পাচ্ছেন বিশেষ ছাড়। প্রথম বছরে কেনার সময় তারা আপনার জন্য রাখছে ১২০০ টাকার বিশাল ছাড়। সাধারণত এতে আপনাকে দেয়া লাগত ১৭৯৯ টাকা। তবে কেনার সময় এখন দেয়া লাগবে ৫৯৯ টাকা। তবে বাকি সব ফি একই রয়েছে অর্থাৎ ১৭৯৯ টাকা

ডট মি-

দামের ক্ষেত্রে চিন্তা করতে গেলে এটি কিছুটা এক্সপেনসিভ অর্থাৎ ব্য্যবহুল। রেজিস্ট্রেশন করাতে গেলে আপনাকে দিতে হবে ৩ হাজার ৫৪ টাকা। বুঝতেই পারছেন বাকি সব ডোমেইন থেকে এটা কতটা দামী। এটি মূলত তারা নেয় যারা পোর্টফলিও বানাতে চায়। এক্ষেত্রে আপনি এটা এড়িয়ে যেতে পারেন।

তো এই ছিল আপনার জন্য কিছু ডোমেইন এর তালিকা। উক্ত পাচটি ডোমেইন ছাড়াও কিন্তু আপনি আরো ডোমেইন পছন্দ করতে পারেন। এক্ষেত্রে আমার দেয়া লিংকের ওয়েবসাইট থেকে ঘুরে আসুন- ডোমেইন প্রাইস

Read More-

হোস্টিং স্পেস কেনার খরচ-

হোস্টিং কেনার ব্যাপারটি পুরোপুরি নির্ভর করে আপনি কোন হোস্টিং চুজ করছেন তার উপর নির্ভর করে। আপনি যদি হোস্টিং স্পেস সমন্ধে জেনে থাকেন তাহলে হয়তো হোস্টিং কর প্রকার এটা নিয়ে একটু হলেও ঘাটাঘাটি করে থাকবেন। হোস্টিং মূলত কয়েক প্রকার এর হয়ে থাকে। যেমন-

  • শেয়ারড হোস্টিং
  • ভিপিএস হোস্টিং
  • ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং

এছাড়াও আরও অনেক কয়েকটি প্রকার রয়েছে। যাই হোক আমরা সেই দিকে এগুচ্ছি না। একটি ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং এর কথা যদি চিন্তা করেন তবে মাসে আপনাকে অন্তত ২০০০ হাজার টাকা খরচ করার মতো একটা মানসিকতা রাখতে হবে। এছাড়াও আরো জনপ্রিয় সব প্লান রয়েছে। আপনি একটি বছরের জন্যও কিনে ফেলতে পারেন। একটু দেখে নিতে পারেন বিস্তারিত জানার জন্য-  ওয়ার্ডপ্রেস হোস্টিং

এরপর রয়েছে শেয়ারড হোস্টিং, যা আপনি ছোট কোন ব্যবসা বা ব্লগ খোলার জন্য কিনতে পারেন। যাই হোক এর জন্য আপনার বাজেট কমপক্ষে ১৫০০ টাকা এক বছরে ব্যয় করতে হবে। এছাড়াও আরও কিছু দামী প্লান রয়েছে যাতে সুবিধা আরো কিছুটা বেশি।

ভিপিএস হোস্টিং এর ক্ষেত্রে যে বিষয়টা তা হলো আপনাকে মাসে ২০০০+ টাকা খরচ করতে হবে। আপনি নিজে ম্যানেজ করবেন এমন ভিপিএস সার্ভার নিতে পারেন তাতে খরচ কিছুটা কম পড়বে। তবে আমি আপনাকে ২০০০+ এর টি নিতেই উৎসাহিত করব।

এই ছিল একটি হোস্টিং ও এর দাম কত হতে পারে সে সম্পর্কে কিছুটা ধারণা। এখন আপনি ভেবে নিন কোনটি নিবেন আপনার নিজের জন্য।

এসইও স্পেশালিস্ট নিয়োগ এর খরচ(যদি দরকার পরে)-

ওয়েবসাইট শুরুর সাথে সাথেই যদি আপনার ইনকামের ভূত চেপে বসে তাহলে আপনাকে অবশ্যই একজন এসইও স্পেশালিস্ট দেখাতে হবে মানে আপনার প্রয়োজন পড়বে একজন এসইও স্পেশালিস্ট এর। যার মাধ্যমে খুব কম দিনেই আপনি টাকার মুখটা দেখতে পারবেন। তবে একজন এসইও স্পেশালিস্টকে মাসে কত টাকা দেয়া লাগে জানেন কি? এসইও স্পেশালিস্টকে মাসে প্রায় ১৫ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা দিয়ে হায়ার করতে হয়। যাই হোক এটা আপনার জন্য আমি অপশনাল হিসাবে রাখছি। আপনি বাদ দিতেও পারেন।

এখন দেখেন উপর এর সব মিলিয়ে আপনার কত টাকা খরচ যায়। প্রথমেই ওয়েবসাইট বানানোর জন্য আপনার দরকার ৪ হাজার টাকা থেকে ১০ হাজার টাকার মতো। এরপর ডোমেইন কিনতে আপনার যাবে ১ হাজার টাকা। তারপর রয়েছে হোস্টিং প্লান আপনি মাসে মাসে নিলে তা দাড়াচ্ছে ২০০০ টাকা আর এক বছরের টা একসাথে নিলে পাচ্ছেন ২৩ হাজার টাকায়। তাহলে সব মিলিয়ে কমপক্ষে আপনার দরকার ১০ হাজার টাকার মতো। আর যদি একটু বেশি ভালো চান তাহলে যে আপনাকে একটি বেশিই খরচ করতে হবে।

টাকা ইনভেস্ট করতে না চাইলে বিকল্প হিসাবে কি করবেন?

এতক্ষণ তো বললাম এই হলে কি করবেন , ঐ হলে কি করবেন। কিন্তু আপনার যদি টাকা না থাকে তাহলে কি করবেন? ওয়েবসাইট এর আশা বাদ দিবেন ? মোটেও না। এখন ফ্রি ওয়েবসাইট অনেক বেশি। আর দিন দিন তার সংখ্যাও বাড়ছে। আপনি আমার মতে ব্লগার কিংবা ওয়ার্ডপ্রেস বা উইক্স ডট কম ব্যবহার করতে পারেন।

পরিশেষে-

ওয়েবসাইট বানানোতেই কিন্তু আপনার খরচ শেষ না। একটা ভালো ওয়েবসাইট চালাতে আপনাকে মাসে অনেক টাকাই পকেট থেকে খরচ করতে হবে। তবে আপনার এই খরচের ফলটা কখন পাবেন? তা মূলত আপনার পরিশ্রমের উপর ডিপেন্ড করে। আপনি যত বেশি সময় দিতে পারবেন তত বেশি টাকা আয় করতে পারবেন। আর ইনকামটাও তত তাড়াতাড়িই শুরু হবে। আশা করি আপনার কাজে আসবে উপরোক্ত বিষয়গুলি। পরবর্তীতে কি নিয়ে জানতে চান তা আমাদেরকে জানান কমেন্টে।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap