অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার উপায়

অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করার জনপ্রিয় ও কার্যকরি মাধ্যম: ছবি তুলতে কে না পছন্দ করেন? সবসময়ই সবাই তার আশেপাশের কিছু না কিছুকেই ক্যামেরাবন্দী করতে চায়। কিন্তু, সেই তোলা ছবি থেকেই যায় স্টোরেজে। নিজে দেখা বা অন্যকে দেখানো ছাড়া আর কোনো কাজেই আসে না। 

কিন্তু, আপনি চাইলে আপনার তোলা ছবি থেকে আয় করতে পারেন। সেক্ষেত্রে, আপনাকে বিক্রি করতে হবে আপনার তোলা ছবিগুলো। আর, এই ছবি বিক্রি করার জন্য প্রয়োজন পড়ে না কোনো বিশেষ দক্ষতার।

তবুও, কেনো যেনো আমাদের আশেপাশের মানুষেরা এ বিষয়ে খুব একটা আগ্রহী না। আসলেই কি আগ্রহী না, না কি অবগত না- তা নিয়েও প্রশ্ন থেকে যায়।

অনলাইনে ছবি বিক্রয় করে আয় করার উপায়
অনলাইনে ছবি বিক্রয় করে আয় করার উপায়

যাই হোক, এখানে আমরা কীভাবে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয় করা যায়- তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

ছবি নিবন্ধন ও মান যাচাই

আপনি যেকোনো ওয়েবসাইটে ছবি বিক্রি করে আয় করতে চাইলে প্রথমে প্রতিটি ওয়েবসাইটের নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করে নিবন্ধন করতে হবে। এরপর, আপনার কাজের মান যাচাইয়ের জন্য ওয়েবসাইটে আপনার তোলা নির্দিষ্টসংখ্যক ছবি জমা দিতে হবে কিংবা পোর্টফোলিও তৈরি করতে হবে। এ ধাপগুলো শেষ করলে একটা পরীক্ষা হবে। সেই মান যাচাইয়ের পরীক্ষায় আপনার যেসব ছবি পর উত্তীর্ণ হবে, ওয়েবসাইটে প্রদর্শনের জন্য অনুমতি দেওয়া হবে। 

আরও পড়ুন: অনলাইনে আয় করার সহজ মাধ্যম।

ছবি কেনেন কারা? এবং, কেন কেনেন?

বিভিন্ন বিজ্ঞাপনী সংস্থা, করপোরেট প্রতিষ্ঠান, গণমাধ্যম, ব্লগ ও অনলাইন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো ছবি কিনে থাকে। কেননা, এসব ছবি তাদের কাজে ব্যবহার করার জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। 

এখানে প্রায় সব ধরনের ছবি বিক্রি হতে পারে। এক্ষেত্রে, ছবির বিষয়বস্তু প্রকৃতি, ভ্রমণ, খাবারদাবার, সাজসজ্জা, শিক্ষা, চিকিৎসা, আন্দোলন, যানবাহন, যন্ত্রপাতি, সামাজিক ও পারিবারিক সম্পর্ক ইত্যাদি হতে পারে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রাতিষ্ঠানিক কাজে প্রয়োজন পড়ে কপিরাইটমুক্ত ছবি।

সরাসরি গুগল ইমেজ সার্চ থেকে ছবি নিয়ে নেওয়া হলে স্বত্ব নিয়ে ঝামেলা তৈরি হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। তাই, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গুগল থেকে সরাসরি ছবি না নিয়ে অনলাইনের ছবির বাজার থেকে কপিরাইটমুক্ত ছবি কিনে নেয়।

আরও পড়ুন: ফেইসবুক থেকে আয় করার জনপ্রিয় মাধ্যম।

কত টাকা ছবি বিক্রি আয় করা যায়?

আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ছবি বিক্রি করলে যে টাকা আয় করবেন, তার এক অংশ ছবির মালিক হিসেবে আপনাকে সম্মানী হিসেবে দিয়ে দেওয়া হবে। বিভিন্ন ওয়েবসাইট তাদের বিভিন্ন সাবস্ক্রিপশন প্যাকেজের মাধ্যমে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে থাকে।

এক্ষেত্রে, দৈনিক কিংবা মাসিক ছবি সংখ্যার ওপর নির্ভর করে প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করা হয়। তবে, বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস বা ওয়েবসাইট অনুসারে ছবি বিক্রির উপর ২০ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত ছবির মালিককে সম্মানী হিসেবে দেওয়া হয়ে থাকে। 

কিন্তু, একজন বিক্রেতা যদি শুধু একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে একটি নির্দিষ্ট ছবি বিক্রি করে থাকেন, তবে তিনি সেখান থেকে বেশি সম্মানী পেতে পারেন। আর, একজন বিক্রেতা যদি একটি নির্দিষ্ট ছবি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বিক্রি করে থাকেন, তবে তার সম্মানীর পরিমাণটা কমে যেতে পারে।

এক্ষেত্রে, সম্মানীর পরিমাণ কম হলেও অসুবিধে হয় না। কেননা, বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ছবি বিক্রির কারণে বিক্রির পরিমাণ বেশি হয়। এর ফলে, একটি নির্দিষ্ট মার্কেটপ্লেসে বিক্রি করার থেকেও বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে বিক্রি করে বেশি আয় করা যায়।

আরও পড়ুনঃ

ছবি বিক্রি করে আয় করার ক্ষেত্রে যেসব বিষয় খেয়াল রাখা উচিত

ছবি বিক্রি করার কাজ শুরুর আগে আপনাকে বেশ কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। বিষয়গুলি হলো-

১. মার্কেটপ্লেসের শর্তাবলি নিবন্ধন করার আগে ভালোভাবে জেনে নেওয়া।

২. ছবির মান ও ধরন সম্পর্কে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে স্থান পাওয়া ছবিগুলো দেখে ধারণা নেওয়া।

৩. ছবির উচ্চতা-প্রস্থের অনুপাত ও রেজল্যুশন সম্পর্কে সচেতন থাকা।

৪. আলোর পরিমাণ ছবিতে যেনো যথাযথ থাকে, সেদিকে লক্ষ্য রাখা।

৫. ছবিটি কিনে ফেলার পর ক্রেতার যেনো ছবিতে খুব বেশি সম্পাদনার প্রয়োজন না পড়ে, সেদিকে খেয়াল রাখা।

৬. বাংলাদেশ থেকে কীভাবে টাকা তুলবেন- তা জেনে রাখা।

৭. সম্মানী হিসেবে কত শতাংশ তারা আপনাকে দিবে- তা সম্পর্কে আগেই জেনে রাখা।

৮. কত দিন পর পর টাকা উত্তোলন করতে পারবেন- তা জেনে রাখা।

৯. টাকা উত্তোলনের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন কত টাকা তুলতে পারবেন- তা জেনে রাখা। 

অনলাইনে ছবির বাজার

ছবি বিক্রি করে আয় করার জন্য অনলাইনে অনেক মার্কেটপ্লেস বা ওয়েবসাইট আছে। এসব ওয়েবসাইটের এক একটিতে কাজ করার শর্তাবলি এক এক রকম হয়ে থাকে। এদের কোনো কোনোটার ওয়েবসাইটে ক্রেতাদের প্রদর্শনের জন্য লাখ লাখ ছবি বিভাগ অনুযায়ী সাজানো থাকে।

এক্ষেত্রে জেনে রাখা ভালো, অনলাইনে ছবি কিনবে এমন ক্রেতার সংখ্যাও কিন্তু কম নয়। 

অনলাইনে ছবি বিক্রি করা যায় এমন কিছু ওয়েবসাইটের কথা নীচে আলোচনা করা হলো।

ওয়ান টু থ্রি আর এফ

ওয়ান টু থ্রি আর এফ এর ওযেবসাইটে আপনাকে একজন কন্টেন্ট কন্ট্রিবিউটর হিসেবে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তারপর, সেখানে আপনার তোলা ছবিগুলো আপলোড করতে হবে।

এরপর, যখনই কেউ এই ওয়েবসাইট থেকে আপনার ছবি ডাউনলোড করবে, তখনই সেখান থেকে আপনাকে ৬০ শতাংশ কমিশন হিসেবে দেয়া হবে।

৫০০ প্রাইম

৫০০ প্রাইমে প্রথমে আপনার অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। তারপর, সেখান থেকে আপনার ছবিগুলোকে লাইসেন্সড করিয়ে নিতে হবে।

এবার আপনার তোলা ছবিগুলো ওয়েবসাইটে আপলোড করুন। তারপর, শুরু হয়ে যাবে আপনার ছবি বিক্রি করে আয় করার পন্থা।

৫০০ প্রাইম পেমেন্ট পেপালের মাধ্যমে দিয়ে থাকে। তাই, সম্ভব হলে পেপালে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে রাখুন।

অ্যালামি

অ্যালামি, ছবি বিক্রি করার জন্য একটি অসাধারণ ওয়েবসাইট । এখানে একজন কন্টেন্ট কন্ট্রিবিউটর হিসেবে অ্যাকাউন্ট করার পর আপনি, আপনার তোলা ছবিগুলো আপলোড করা শুরু করবেন।

এই ওয়েবসাইটে আপনার প্রত্যেকটি ছবি বিক্রি হওয়ার সাথে সাথেই তারা আপনাকে ৫০% কমিশন দিয়ে দিবে।

অ্যানিমেলস অ্যানিমেলস

প্রকৃতি ও বিভিন্ন পশুপাখির ছবি বিক্রি করার জন্য ওয়েবসাইট খুবই কম আছে। এর মধ্যে অ্যানিমেলস অ্যানিমেলস একটি।

এখানে, আপনার তোলা প্রত্যেকটি ছবি বিক্রি হওয়ার পর, তারা আপনাকে ৫০% কমিশন দিবেন।

বিগস্টক

বিগস্টক এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে শুধুমাত্র একটি ছবি আপলোড করবেন এমন নয়, এখানে আপনি চাইলে ফটোগ্রাফার হিসেবে আপনার পোর্টফোলিও গড়ে তুলতে পারবেন। 

এখানে আপনাকে কাস্টোমারের ডাউনলোড প্ল্যানিংয়ের উপর নির্ভর করে আপনার ছবির জন্য টাকা দেওয়া হবে।

করবিস

করবিস এখন গেটি ইমেজেসের অন্তর্ভুক্ত। এখানে আপনি আপনার ছবির পাশাপাশি ভিডিও ও অডিও বিক্রি করতে পারবেন। 

গেটি ইমেজেস ছবি বিক্রির জন্য ও আপনার ছবি থেকে আয় সম্পর্কে নির্দিষ্ট কোনো অর্থের পরিমান বলে দেয়া হয়নি। এক্ষেত্রে, আপনাকে তাদের সাপোর্ট সেকশনে যোগাযোগ করে জেনে নিতে হবে।

আরও পড়ুন:

ফটোলিয়া

ফটোলিয়া ছবি বিক্রি জন্য বিখ্যাত একটি ওয়েবসাইট। যদিও এটি গতবছর কিনে নিয়েছে অ্যাডবি স্টক। ফটোলিয়াতে আপনার প্রত্যেকটি ছবি বিক্রি হলে তার উপার্জনের ৩৩ শতাংশ আপনাকে দিয়ে দেওয়া হয়।

ইমেজ ভর্টেক্স

ইমেজ ভর্টেক্সে বেশ কয়েক ধরনের ক্যাটাগরি আছে। এখানে, আপনি ক্যাটাগরি অনুসারে আপনার ছবিগুলোকে আপলোড করতে পারবেন। 

একবার এখানেআপনার ছবিগুলোকে আপলোড করা হলে, সেগুলো বিক্রির জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে। তারপর, প্রতিটি ইমেজ বিক্রি হবার পর আপনি পাবেন ৭৫ শতাংশ করে কমিশন পাবেন।

আইএনজি ইমেজ

আইএনজি ইমেজ ওয়েবসাইটটি মূলত কন্টেন্ট কন্ট্রিবিউটর হিসেবে চাকরি দিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে, আপনাকে আপনার পোর্টফোলিও ও ব্যাকগ্রাউন্ড তথ্য দিয়ে তাদের তাদের ইমেইলে মেইল করতে হবে।

এছাড়াও, ছবি বিক্রির জন্য এগুলো ছাড়াও আরো বেশ কিছু অসাধারণ ওয়েবসাইট রয়েছে। সেগুলো হলো- পিকহিট, পন্ড ফাইভ, শাটার স্টক, স্মাগ মাগ, স্টকড ফটোস, স্টক ফুড

পরিশেষে,

উপরে বিস্তারিত উল্লেখ করা হলো কীভাবে ঘরে বসেই ছবি বিক্রি করে আয় করতে পারবেন আপনি। তবে, আর দেরি কেনো? আজই ছবি বিক্রি করে আয় করা শুরু করুণ অনলাইনে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

You May Like

Leave a Comment