বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?

আমরা বাংলাদেশি ব্লগার হিসেবে, আপনাকে বাংলাতে ব্লগ তৈরি করার পরামর্শ দিয়ে থাকি।

কিন্তু বর্তমান সময়ে যারা নতুন ব্লগার হিসেবে কাজ করতে এসেছে তাদের একটি প্রশ্ন থাকে যে, বাংলা ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব।

এছাড়া অনেকে বিভিন্ন ভাবে জানতে চায় যে, বাংলা ব্লগ তৈরি করে কত টাকা আয় করা যায়।

তার জন্য আজকের এই পোস্টে আপনাকে জানাব বাংলা ভাষাতে ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায়।

আপনি যদি উক্ত বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা নিতে চান। তাহলে আমাদের দেওয়া আর্টিকেল শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

আমরা এই জে-আইটি বাংলা ব্লগ/ওয়েবসাইট টি প্রায় ৩ থেকে ৩.৫ ব্যবহার করে যাচ্ছি। আমরা কিন্তু প্রতি মাসে ভালো পেমেন্ট নিতে পাচ্ছি বাংলা ব্লগ থেকেই।

বাংলা ভাষাতে ব্লগিং করে, কত টাকা আয় করা সম্ভব। এই বিষয়ে আমাদের অনেক জ্ঞান অর্জন করা হয়েছে।

তাই আপনাকে এই বিষয়ে সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব। বর্তমান সময়ে যারা বাংলা ব্লগ তৈরি করে, আয় করছে।

তারা কিন্তু মাস শেষে প্রায় লক্ষ টাকার মতো আয় করে নিচ্ছে গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে।

 

বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?
বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?

গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে যে, লক্ষ টাকার বেশি আয় করা যায়। তাও আবার বাংলা ব্লগ থেকে শুনতে অবাক লাগলেও একটি সত্যি।

আরো পড়ুনঃ

বর্তমান সময়ে সারা বিশ্বে বাংলা ব্লগ আর্টিকেল গুলোর অনেক চাহিদা আছে।

তো চলুন জেনে নেওয়া যাক, বাংলা ব্লগ তৈরি করে কতটা আয় করা সম্ভব।

বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?

আপনি যদি অনলাইনে যে কোন প্লাটফর্ম, হতে পারে ব্লগার বা ওয়ার্ডপ্রেস।

আপনি যে কোন একটি প্লাটফর্ম ব্যবহার করে বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে।

সেখানে বাংলা ভাষার আর্টিকেল পাবলিশ করে আয় করতে পারবেন।

বাংলাতে ব্লগিং করে আয় করার সাক্ষাৎ প্রমাণ আমি নিজে। কারণ আমাদের এই জে-আইটি ব্লগ/সাইট ও কিন্তু বাংলা ভাষায়।

আমরা এই সাইট ব্যবহার করে প্রতি মাসে ভালো পরিমাণের টাকা উপার্জন করতে পাচ্ছি।

বর্তমান সময়ে একটি ইংলিশ সাইট এর তুলনায় আমরা বাংলা ব্লগ থেকে অনেক বেশি আয় করে যাচ্ছি।

আপনি যদি ভালো ভাবে বাংলা কনটেন্ট লিখতে পারেন, তাহলে এর চাহিদা অনেক বেশি।

কারণ ইন্টারনেটে, বাংলা ভাষা’র তেমন জনপ্রিয় কনটেন্ট সংখ্যা অনেক কম। কিন্তু বাংলা আর্টিকেল এর চাহিদা অনেক বেশি।

বাংলা আর্টিকেল এর বিপরীতে ইংলিশ ব্লগের চাহিদা বেশি থাকলেও। অনলাইনে যে কোন বিষয়ে সার্চ করলে হাজার হাজার ইংলিশ আর্টিকেল চলে আসে।

তাই একটি ইংরেজি ব্লগ এর তুলনায় বাংলা ব্লগ তৈরি করে অনেক সহজে সফলতা পাওয়া যায়।

আরো একট মজার বিষয় হলো- আপনি যদি ব্লগ থেকে এডসেন্স এর মাধ্যমে আয় করতে চান।

তাহলে ইংরেজি ব্লগ এর তুলনায় বাংলাতে সাইট তৈরি করে দ্রুত এডসেন্স এপ্রুভাল পাবেন।

আপনি যে কোন ভাষায় ব্লগ তৈরি করতে পারবেন। যেমন- ইংরেজি, হিন্দি।

আরো পড়ুনঃ

উক্ত ব্লগ গুলোর মতো আপনি বাংলা ভাষাতে ব্লগ তৈরি করে, ভালো পরিমাণের ভিজিটর আপনার সাইটে নিয়ে আসতে পারবেন।

যে কোন ব্লগ বা ওয়েবসাইটে বেশি পরিমাণের ভিজিটর আসা মানে, অধিক টাকা আয় করার সুযোগ।

তাই আপনি বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে।

আপনারা সহজেই অল্প সময়ের মধ্যে অনলাইন আয় করা শুরু করতে পারবেন।

আপনি যদি বাংলাতে ব্লগ সাইট তৈরি করেন। আর বাংলা লিখে আয় করতে চান?

তবে গুগল এডসেন্স এর বিকল্প অনেক উপায় আছে।

যে গুলো ব্যবহার করে আপনি বাংলা ব্লগ থেকে আয় করতে পারবেন।

বাংলা ব্লগ থেকে কেন আয় করা সহজ

বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করার জন্য, এবং সফলতা পাওয়ার জন্য বিশেষ কারণ আছে।

আমরা বাংলা ব্লগিং করে যে, কারণ গুলো অনুভব করেছি। সেই বিষয়ে আপনার সাথে শেয়ার করব।

আমরা মনে করি, বাংলাতে ব্লগিং করে সকলের জন্য একটি লাভজন উপায়।

আপনি যদি সঠিক ভাবে এসইও টেকনিক ব্যবহার করে, ব্লগে বাংলা আর্টিকেল লিখতে পারেন।

তাহলে আপনি ব্লগিং এ সফল একজন ব্লগার।

আমাদের এই ওয়েবসাইট এ এসইও সম্পর্কে অনেক গুলো পোস্ট আপলোড করা আছে। আপনি চাইলে এসইও সম্পর্কে বিস্তারিত পড়ে নিতে পারেন। যেমন-

উক্ত টপিক গুলোতে ক্লিক করলেই আপনি এসইও সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা নিতে পারবেন।

তো চলুন জেনে নেওয়া যাক। বাংলা ব্লগ তৈরি করে এবং বাংলা আর্টিকেল লিখে অনলাইন থেকে আয় করা কতটা সম্ভব।

বাংলা ব্লগে প্রতিযোগিতা কম এবং ট্রাফিক/ভিজিটর বেশি

আপনি যদি বাংলাতে ব্লগ তৈরি করেন। সেখানে আর্টিকেল লেখার জন্য আপনাকে ভালো ভালো টপিক রিসার্চ করে লিখতে হবে।

আমরা জানি, বাংলা কনটেন্ট গুলোর কমপিটির কম থাকে। যার ফলে বেশি বেশি ভিজিটর পাওয়া যায়।

অনেকে মনে করে যে, বাংলা ব্লগে ট্রাফিক পাওয়া যায় না। এটি একদম মিথ্যা।

কারণ বাংলাতে কোয়ালিটি সম্পন্ন কনটেন্ট গুলো আপলোড করলে হিউজ পরিমাণের ভিজিটর পাওয়া সম্ভব।

আপনি যদি একটি বাংলা ব্লগ তৈরি করেন। সেখানে বাংলা আর্টিকেল লিখেন।

অনেক সহজে গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভালো পরিমাণের ট্রাফিক/ ভিজিটর পেয়ে যাবেন।

আমারা আগেই বলেছি, আপনি যদি ইংরেজি ব্লগ তৈরি করেন। তাহলে অনেক প্রতিযোগিতার সম্মুখিন হতে হবে। যার ফলে আপনি ব্লগিং এ সফলতা পাবেন না।

আরো দেখুনঃ

কারণ ইংলিশ ব্লগ এর জন্য যে কোন বিষয়ে হাজার হাজার আর্টিকেল গুগলে সার্চ করলে সার্চ রেজাল্টে চলে আসে।

তাই ইংরেজিতে ব্লগ সাইট তৈরি করলে আগে যারা টপ সার্চে তাদের সাইট রেঙ্ক করিয়ে রাখছে তাদেরকে সহজেই সরিয়ে দিয়ে নিজের সাইট রেঙ্ক করাতে পারবেন না।

এছাড়া, যারা আগে  ইংলিশ ব্লগ গুলো তৈরি করেছে। তাদের ব্লগ/ ওয়েবসাইট এর ডোমেইন অথরিটি এবং পেজ অথরিটি অনেক বেশি থাকে।

যার ফলে উক্ত ইংরেজি সাইট গুলোর আর্টিকেল গুগলে বা অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পাতায় অবস্থান করে।

তাই আপনি যদি নতুন অবস্থায় ইংলিশ ব্লগ তৈরি করেন। তাহলে গুগলের 10 টি ফলাফল এর আপনার সাইট রেঙ্ক করাতে পারবেন না।

এতে করে আপনার গুগল সার্চ থেকে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর অনেক কম আসবে। আর অল্প কিছু দিন পরে আপনি ইংলিশ সাইট নিয়ে হতাশায় ভোগবেন।

এই জন্য, আপনি যদি একটি বাংলা ব্লগ তৈরি করে সেখানে, বাংলা আর্টিকেল পাবলিশ করেন।

তাহলে আপনি অনেক সুবিধা পাবেন। আর বেশি বেশি টাকাও আয় করতে পারবেন।

অনলাইনে বাংলা আর্টিকেল গুলো অনেক চাহিদা আছে।

যেমন- মনে করুন বর্তমানে স্কুল কলেজ থেকে শুরু করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পড়াশোনা করা শিক্ষার্থীরা।

তাদের পরীক্ষার ফলাফল, রুটিন, ফরম ফিলাপ ইত্যাদি বাংলা ব্লগ গুলোতে সার্চ করে তথ্য জেনে নিতে আগ্রহী থাকে।

বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে গুগল এডসেন্স পাওয়া সহজ

আমরা জানি, কয়েক বছর আগে বাংলা ব্লগ থেকে আয় করার তেমন কোন উপায় ছিল না।

কিন্তু বর্তমান সময়ে গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে প্রচুর টাকা আয় করা সম্ভব বাংলা ব্লগ থেকে।

গুগল এডসেন্স এর সার্ভিস হলো। বিজ্ঞাপন দিখিয়ে আয় করা। বর্তমান সময়ে সব চেয়ে বড় এডনেটওয়ার্ক হলো গুগল এডসেন্স।

আমাদের যে, ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পড়ছেন। আমরাও কিন্তু গুগল এডসেন্স মাধ্যমে আয় করি।

আপনি যদি বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে সেখানে ভালো ভালো আর্টিকেল পাবশিল করতে পারেন।

তাহলে দ্র্রুত গুগল এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আগের সময় গুলোতে বাংলা ব্লগ বা ওয়েবসাইট গুলো এডসেন্স এপ্রুভ করতো না।

কিন্তু বর্তমান সময়ে আপনি গুগল এডসেন্স এর অল্প কিছু শর্ত মেনে।

আবেদন করার কয়েক দিন পরেই, বিজ্ঞাপন শো করানোর জন্য অনুমোদন পেয়ে যাবেন।

এবং গুগল এডসেন্স থেকে বাংলা ব্লগে এপ্রোভাল পাওয়া অনেক সহজ হয়ে গেছে। আর এর মাধ্যমে মাস শেষে ভালো পরিমাণের টাকা উপার্জন করা যায়।

বাংলা ব্লগ থেকে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়

আপনি যদি বাংলা ব্লগ তৈরি করে অনলাইন আয় করতে চান।

তাহলে গুগল এডসেন্স এর বিকল্প অনেক মাধ্যমে আছে। তার মধ্যে সেরা একটি মাধ্যম হলো এফিলিয়েট মার্কেটিং

আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করতে চান।

তাহলে আপনার বাংলা ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে, জনপ্রিয় মানুষের চাহিদা সম্পন্ন পণ্য সেবা দিয়ে মার্কেটিং শুরু করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

আমাদের এই ওয়েবসাইটে এফিলিয়েট মার্কেটিং করার বিষয়ে আর্টিকেল পাবলিশ করা আছে।

আপনি চাইলে, সেই আর্টিকেল পড়ে বাংলাতে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে প্রচুর টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

আপনার যদি একটি বাংলা ব্লগ থাকে। তাহলে আপনি আমাজন এর মতো একটি ই-কমার্স এর সাথে যুক্ত হয়ে।

তাদের পণ্য সেবা গুলো আপনার ওয়েবসাইটে শেয়ার করে, বিক্রি করতে পারলে প্রচুর পরিমাণের টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

উক্ত মাধ্যম গুলো ছাড়াও আরো অনেক উপায় আছে। যে গুলো আপনি বাংলা ব্লগ তৈরি করে কাজ করতে পারবেন।

এবং ঘরে বসেই প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। আমাদের পরিচিত অনেক বাংলা ব্লগার আছে। যারা মাস শেষে বাংলা ব্লগ থেকে কয়েক লক্ষ টাকা আয় করে।

আপনি যদি মাসে লক্ষ টাকা আয় করতে চান বাংলা ব্লগ থেকে তাহলে ইংরেজি ব্লগ এর কথা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে, বাংলা ব্লগ তৈরি করে কাজ শুরু করুন।

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আপনারা যদি বাংলা ব্লগিং করে আয় করতে চান। তাহলে আজ থেকেই কাজ করার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

কারণ বাংলাতে ব্লগিং করে গুগল এডসেন্স ছাড়া আরো বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করে অনলাইন থেকে আয় করা যায়।

আমাদের এই ওয়েবসাইটের আর্টিকেল পড়ে আপনার কেমন লাগলো। একটি ভাল কমেন্ট করবেন।

ট্যাগঃ বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ? বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?

বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ? বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?বাংলাতে ব্লগ তৈরি করে আয় করা কতটা সম্ভব ?

আর আমাদের ওয়েবসাইট এর সাথে থেকে অনলাইন ইনকাম এর বিষয়ে নতুন নতুন আর্টিকেল পড়ুন।

আমাদের সাথে আর্টিকেল এর শেষ পর্যন্ত সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap