NID একাউন্ট লক হলে কি করবেন ? (সমাধান জেনেনিন)

NID একাউন্ট লক : বর্তমান সময়ে যারা ভোটার হয়েছেন, তারা অবশ্যই এনআইডি সার্ভিস ওয়েবসাইট ব্যবহার করেছেন।

আর এন আই ডি সার্ভিস ওয়েবসাইটে ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই আপনাদের একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হয়েছে।

সে ক্ষেত্রে আমাদের মধ্যে এমন অসংখ্য লোক রয়েছে। যারা NID একাউন্ট লক হওয়ার ঝামেলায় পড়েছেন।

NID একাউন্ট লক হলে কি করবেন ? (সমাধান জেনেনিন)
NID একাউন্ট লক হলে কি করবেন ? (সমাধান জেনেনিন)

এনআইডি কার্ড Lock এবং এনআইডি একাউন্ট Locked দুইটি আলাদা বিষয়। এটি নিয়ে, আমরা খুবই দুশ্চিন্তায় পড়ে থাকি।

কিন্তু এ বিষয়ে দুশ্চিন্তা করার কোন কারণ নেই। তবে কেন এন আইডি কার্ড লক হয়? এবং কেন এন আইডি একাউন্ট Locked সে বিষয়ে, আমরা অনেকেই স্পষ্ট ধারণা রাখি না।

এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি এন আইডি কার্ড লক এবং এনআইডি অ্যাকাউন্ট Locked এর বিষয়ে সঠিক ধারণা পেয়ে যাবেন।

এছাড়া আরো জানতে পারবেন, এন আইডি কার্ড লক হলে এবং এনআইডি একাউন্ট লক হলে কিভাবে সেটি আনলক করবেন।

তো বন্ধুরা আপনারা যারা এনআইডি অ্যাকাউন্ট লক হওয়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভোগেন আর চিন্তার কারণ নেই। কারণ আজ আমি আপনাকে জানিয়ে দেবো। NID একাউন্ট লক হলে কি করবেন।

আপনি এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানতে চাইলে, আমাদের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

কেন NID কার্ড লক হয় ?

আমরা আগেই বলেছি এন আইডি কার্ড Lock এবং এনআইডি অ্যাকাউন্ট লক দুটি আলাদা বিষয়। আপনারা ইচ্ছা করে, ভুল করে কোন ভাবে এনআইডি কার্ড লক করতে পারবেন না।

এখানে কিছু নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া কখনো এন আইডি কার্ড লক হয় না। যদি কোন ভোটার তার ভোটার এলাকা পরিবর্তন এর আবেদন করেন।

এক ভোটার এলাকা থেকে অন্য ভোটার এলাকায় ভোটার স্থানান্তর করতে চান। তবে আবেদনের কার্যক্রম শুরু হওয়ার মাত্রই সাময়িকভাবে এনআইডি কার্ড লক করে দেয়া হয়।

এই সময়ে আপনারা চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে এনআইডি অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন না। আইডি কার্ড ব্লক করা হয়েছে এমন দেখাবে, এতে করে চিন্তা করার কোনো কারণ নেই।

ভোটার এলাকা স্থানান্তর এর আবেদন অনুমোদন হয়ে গেলে, এন আইডি কার্ড লক অটোমেটিক ভাবে ঠিক হয়ে যাবে। সে সময় আপনারা চাইলে অনলাইনে nid account registration করে নিতে পারবেন।

কেন NID একাউন্ট লক হয় ?

এনআইডি অ্যাকাউন্ট লক হওয়ার পেছনে কিছু কারণ রয়েছে। আমরা যখন এনআইডি অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে যাই।

সেই সময় প্রথম ধাপে এনআইডি নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে সাবমিট করলে দ্বিতীয় ধাপে ঠিকানা সিলেক্ট করার জন্য ফর্ম চলে আসে।

ভোটারের স্থায়ী এবং বর্তমান ঠিকানা সঠিকভাবে সিলেক্ট না করে, যদি ভুল ঠিকানা সিলেক্ট করে দুই তিন বার চেষ্টা করা হয়। সে ক্ষেত্রে NID একাউন্ট লক করে দেয়া হয়।

এছাড়া অনেকের এনআইডি অ্যাকাউন্ট আগে তৈরি করা থাকে। পরবর্তীতে লগইন করার জন্য ভুল পাসওয়ার্ড দিয়ে বার বার চেষ্টা করার জন্য NID একাউন্ট লক  করে দেওয়া হয়।

এখানে ভুল তথ্য দেওয়ার জন্য সিস্টেম ধরে নেই যে, কেউ না কেউ। অন্য কারো একাউন্টে প্রবেশ করতে চাচ্ছে। এবং ইসলাম হিসেবে ধরে বিদায় NID একাউন্ট লক করে দেয় সাময়িকভাবে।

মানে ভুল ঠিকানা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে চাইলে এবং ভুল পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করতে চাইলে NID একাউন্ট লক হয়ে যায়।

তো বন্ধুরা আপনাদের যদি NID একাউন্ট লক হয়ে যায় সে ক্ষেত্রে করণীয় কি। আপনি যদি NID একাউন্ট লক হওয়া থেকে সমাধান পেতে চান। মানে আনলক করতে চান তাহলে নিচে দেওয়া তথ্য গুলো অনুসরণ করুন।

NID একাউন্ট লক থেকে Unlock করার উপায় কি ?

যদি একবার NID একাউন্ট লক হয়ে যায় তখন কোন ভাবে অ্যাকাউন্ট তৈরি করা সম্ভব হয় না এছাড়া অ্যাকাউন্ট লগইন করা সম্ভব হয় না।

যদি NID একাউন্ট লক হয়ে যায়। তবে তার জন্য আপনার করণীয় কি হবে। আপনি সর্বোচ্চ তিনটি কাজ করতে পারবেন।

কিন্তু তার আগে আপনাকে জেনে নিতে হবে, কি জন্য আপনার NID একাউন্ট লক করা হয়েছে। আমরা আপনাকে উপরে কিছু ইঙ্গিত দিয়েছি যে, কারণ গুলোর জন্য আপনার এনআইডি অ্যাকাউন্ট লক হওয়া সম্ভাবনা বেশি থাকে।

মানে আপনি যদি ভুল ঠিকানা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন অ্যাকাউন্ট লক হয়ে থাকে। তাহলে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে, আপনার স্থায়ী ঠিকানা এবং বর্তমান ঠিকানা নিতে হবে।

১ নং উপায়-

105 নম্বরে কল করে তাদেরকে বিস্তারিত জানাতে হবে ভুল ঠিকানা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য NID একাউন্ট লক করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে আমি আমার সঠিক ঠিকানা সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিস থেকে জেনে নিতে পেরেছি।

তাই আপনার NID একাউন্ট আনলক করে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা যেতে পারে। যদি তারা আপনাকে আশ্বস্ত করে, তবে হয়তো আপনার এনআইডি অ্যাকাউন্ট আনলক হয়ে যাবে।

২নং উপায়-

নির্বাচন কমিশনের হেড অফিস এনআইডি উইং গিয়ে একটি আবেদন জানাতে পারেন আবেদনে বিস্তারিত বিষয় উল্লেখ করে দিতে হবে।

আপনার আবেদনের প্রেক্ষিতে তারা আপনার জাতীয় পরিচয় এনআইডি কার্ড আনলক করে দিতে পারে।

কিন্তু এই প্রক্রিয়াটি সকল ব্যক্তির জন্য সম্ভব হবে না কারণ এই কাজের জন্য কেউ ঢাকা যেতে চাইবে না।

এক্ষেত্রে, NID একাউন্ট লক হলে সহজে সেটি আনলক করার কি কোন উপায় নেই? হ্যাঁ অবশ্যই রয়েছে। খুব সহজে তৃতীয় উপায় ব্যবহার করে। আপনারা এনআইডি অ্যাকাউন্ট আনলক করে নিতে পারবেন।

৩নং উপায়-

আপনার যখন দেখবেন আপনার NID একাউন্ট লক হয়ে গেছে তখন থেকে আর রেজিস্ট্রেশন করার চেষ্টা করবেন না।

সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিস থেকে সঠিক ঠিকানা জেনে নিয়ে চুপচাপ বসে থাকবেন কমপক্ষে ৭ দিন।

আবার সাত দিন পরে পুনরায় ঠিক তথ্য দিয়ে এনআইডি অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করার চেষ্টা করবেন। দেখবেন আপনার এনআইডি অ্যাকাউন্ট আনলক হয়ে গেছে। এবং সহজেই রেজিস্ট্রেশন হয়ে যাবে।

NID একাউন্ট লক হলে আনলক করার জন্য এটি সবথেকে সহজ উপায় এটি নির্ধারিত সময়ের পর অটোমেটিক এন আই ডি অ্যাকাউন্ট আনলক হয়ে যায়।

আপনি আপনার এই ধরনের সমস্যার জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে যতই চাপাচাপি করেন। তাতে কোন লাভ হবে না। কারণ এখন পর্যন্ত উপজেলা বা জেলা পর্যায়ে থেকে এনআইডি অ্যাকাউন্ট আনলক করার জন্য কোন সুযোগ চালু হয়নি।

হয়তো ভবিষ্যতে এটি চালু হতে পারে। যদি এনআইডি অ্যাকাউন্টে লগইন করতে গিয়ে, অ্যাকাউন্ট লক হয়ে যায়। তবে পাসওয়ার্ড রিসেট করার চেষ্টা করবেন। যখন সঠিক পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করতে পারবেন তখন।

আর যদি পাসওয়ার্ড রিসেট করার পরও অ্যাকাউন্ট লক দেখায় তবে, ৭ দিন অপেক্ষা করার পর পুনরায় লগইন করার চেষ্টা করবেন। এর ফলে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলে আপনাদের জানিয়ে দেয়া হলো NID একাউন্ট লক হলে করণীয় কি, কিভাবে আনলক করতে হয়।

NID একাউন্ট লক সংক্রান্ত আরো যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে, আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমরা আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব।

তো বন্ধুরা আমাদের আর্টিকেলটি আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন। আর বিশেষ করে এটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট দিবেন।

এছাড়া, আমাদের এই ওয়েবসাইট থেকে NID সংক্রান্ত আরো নতুন নতুন তথ্য পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap