অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন)

অ্যালগরিদম কি : আমাদের এই পোস্টে আপনাকে জানাতে যাচ্ছি অ্যালগিরদম কি? এলগরিদম এর কাজ কি এই সম্পর্কে। বর্তমান ডিজিাল যুগে এগে আপনি হয়তবা অ্যাগরিদমের নাম শুনেছেন।

আমরা দৈনিক বিভিন্ন ধরণের কাজ করে থাকি, আর যে কাজ গুলো করে থাকি সে গুলো জন্য আমাদের নির্দিষ্ট কিছু পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হয়। আপনি যখন কোন কাজ করতে যাবেন তখন সেটি শুরু করার আগে বা শুরু করার সময় কেন সমস্যা দেখা দেয় সেটি আমরা কাজের মাধ্যমে সমাধান করে থাকি।

যেমন- মনে করুন আপনি নিজের বাড়িতে একায় আছেন, হঠাত করে আপনার বাসায় চুর আসলো তখন আপনি আশে-পাশের লোকদের ডাকাডাকি করলেন, কিন্তু সেই সময় কেউ আসলো না। সেক্ষেত্রে আপনি একাই চোর এর সাথে মোকাবেলা করলেন, এবং চুরকে পাকরাও করলেন।

সেরকম ভাবে কোন অনলাইন বা কম্পিউটার কাজের সমস্যায় পড়লে সেটি আপনাকে অ্যালরিদম ঠিক করে দিবে। যেমন কোন কিছূ চুরি হওয়ার হাত থেকে আপনাকে অ্যাগরিদম বাচিয়ে দিবে।

আপনি যদি উক্ত বিষয়টি অনুসরণ করেন তাহলে অ্যাগরিদম এর একটু হলেও ধারণা নিতে পারছেন। তো চলুন অ্যালগরিদম এর বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক। তার জন্য আমাদের নিম্নোক্ত লেখা শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে।

অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন)
অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন)

অ্যালগরিদম কি?

কম্পিউটারে কাজ করার সময় যে, নির্দিশনা অনুসরণ করে কাজ সেই নির্দেশনা তৈরি করার লক্ষ্যে কম্পিউটার প্রোগ্রামি লেখার প্রয়োজন হয়। উক্ত কম্পিউটার প্রোগ্রাম লেখার সময় অনেক ধলণের স্টেপ দেওয়া থাকে। সেই স্টেপ গুলো অনুসরণ করে কম্পিউটার কাজ করে থাকে।

যখন আপনি কম্পিউটার কে কোন ধরণের কাজ দিবেন তখন এটিও আপনাকে ভাবতে হবে যে, কিভাবে কম্পিউটার আপনার দেওয়া কাজ গুলো করতে সক্ষম হবে। আর উক্ত কাজ গুলো করার জন্য কম্পিউটার অ্যালগরিদম ব্যবহার করা হয়।

আপনাকে আরো সহজ ভাবে বলতে গেলে অ্যালগরিদম হচ্ছে এমন কিছু বিশেষ নির্দেশনার স্টেপ যার ফলে বিশেষ কোন সমস্যার সমাধান করা হয়ে থাকে।

আরও পড়ুনঃ

অ্যালগরিদমের সংজ্ঞা

অ্যালগরিদম হচ্ছে এমন একটি মাধ্যম বা ফর্মুলা যার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান খুজে পাওয়া যায়। এখানে নির্দিষ্ট পরিমানের নিয়ম রয়েছে যে গুরো নির্দেশনা বলে মনে করা হয়।

উক্ত সকল নিয়ম একটির পরে একটি ক্রমাগত ভাবে লেখা হয়ে থাকে। আর সকল নিয়ম কোন না কোন অপারেশন গুলো করার জন্য তৈরি করা হয়।

এই নিয়ম গুলো সঠিক ভাবে অনুসরণ করে এগিয়ে যাওয়ার ফলেই শেষে সমাধান পাওয়া সম্ভব হয়। মোট কথা এই নিয়ম গুলোর মধ্যমে কোন সমস্যার সমাধান করা হয়।

আরো সহজ করে বলতে গেলে অ্যালগিরদম হচ্ছে কোন প্রকার সমস্যার সমাধান ‍খুজে বের করার একটি প্রক্রিয়া। আমি মনে করি আমাদের তথ্য অনুযায়ী আপনি অ্যাগরিদম আসলে কি এ বিষয়ে জেনে নিতে পারছেন।

অ্যালগরিদমের জনক কে?

বর্তমান সময়ে লোকেরা অনেক প্লাটফর্মে বিশেষ করে গুগল ও ইউটিউবে সার্চ করে জানার চেষ্টা করে যে, অ্যালগরিদম এর জনক কে। তাই আমি আপনার সুবিধার জন্য এখানে জানিয়ে দিচ্ছি অ্যাগরিদমের জনক হলো- মুসা আল খাওয়ারিজমী।

অ্যালগরিদমের কাজ কি?

আমরা অ্যাগরিদম এর পরিচয় হিসেবে উক্ত আলোচনাতে জানতে পারছি এটি একটি সমস্যার সমাধান কারী। অ্যালগরিদম মূলত ব্যবহার করা হয কোন সমস্যার সমাধান খুজার জন্য।

মনে করুন আপনি চা বানাবেন এখন চা তৈরির জন্য অ্যালগিদমটা কেমন হবে?

  • শুরুতে আপনাকে একটি পাত্রে পানি নিতে হবে।
  • তারপরে পানি ফুটানোর জন্য পাত্রটা আগুন চুলায় রাখতে হবে।
  • এরপরে পানি গরম হয়ে গেলে চা পাতা দিতে হবে।
  • তারপরে চুলা থেকে নামিয়ে প্রয়োজন মতো চিনি ও দুধ দিয়ে খাবার উপযোগ করতে হবে।

আপনি যদি উক্ত নিয়ে কাজ করেন তাহলে সহজেই চা বানাতে পারবেন। এখন আপনি উক্ত নিয়ম অনুসরণ করলে বুঝে যাবেন যে, চা তৈরি করার অ্যালগরিদম এটিই।

আর এই প্রক্রিয়া অনুসরণ করে, কম্পিউটার সাইন্স এর অনেক সমস্যার সমাধান করে অ্যাগরিদম। অ্যাগরিকদমের কাজ হলো কোন সমস্যা সহজেই সমাধান করা এবং সমাধান খুজে বের করা।

আরও দেখুনঃ

অ্যাগরিদম কিভাবে তৈরি করতে হয়

অ্যালগরিদম তৈরি করার জন্যে কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হয়। শুরুতে কোন প্রোগ্রামের সমস্যার বিষয়ে নির্ধারণ করতে হয় এবং উক্ত বিষয়ে একটি শিরোনাম দিতে হয়।

তারপরে ভালো ভাবে বিশ্লেষণ করে, সেটির সমাধঅন করার রাস্তা বের করতে হয়। সমস্যা যদি বড় হয় তাহলে ছোট ছোট স্টেপে সমাধান করার চেষ্টা করতে হবে।

অ্যালগরিদম এর সকল স্টেপ খুব সাবধানতার সাথে নির্ধারণ করতে হবে। ভালো অ্যালগরিদম এর চারটি শর্ত দেওয়া থাকে। সেগুলো হলো-

  • অ্যাগরিদম সহজ বোধ্য হতে হবে।
  • কোন ধাপ জটিল ও কঠিন হবে না, স্পষ্ট হতে হবে।
  • সসিম সংখ্যক স্টেপ সমস্যার সমাধান করতে হবে।
  • অ্যাগরিদমকে ব্যাপক ভাবে প্রয়োগ করার সম্ভাবনা থাকতে হবে।

অ্যালগরিদম এর বৈশিষ্ট্য

উক্ত আলোচনাতে অ্যালগরিদম এর বিষয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জেনে নেওয়া গেল। এখন আপনাকে জানাব অ্যালগরিদমের বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে। তো চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

Input : সকল অ্যালগরিদম এর মধ্যে 0 যা 0 থেকে অধিক সঠিক স্টেপ লাগে।

Output : যে ভাবে অ্যাগরিদমের ইনপুট স্টেপ হয় সেরকম ভাবে তার আউটপুর স্টেপ হওয়া জরুরী। আর আউটপুট এ সেটি আসা জরুরী যার জন্য অ্যালগরিদম লিখছেন।

Unambiguous : আপনি যখন কোন অ্যালগরিদম লিখবেন তখন যাতে স্পষ্ট ও সঠিক হয়। এর সাথৈ সকল স্টেপ বা লাইনের কিছু মিনিং থাকে।

Finiteness : সকল অ্যালগিরদমের কিছু সীমিত স্টেপের মাধ্যমে শেষ হয়। আর সকল স্টেপ সীমিত পরিমানের রিপিট হওয়া লাগে।

Effectiveness : টাইম ও স্পেসের মাধ্যমৈ কার্যকারিতা অনুমান করা সম্ভব হয়। যদি অ্যালগরিদম অল্প টাইমে ও অল্প স্পেস এর মধ্যে লেখা হয়। আর অল্প সময়ে এক্সিকিউট হয়েছে ও কম স্পেস এ রান হয়েছে তাহলে তাকে Effectiveness বলা হয়।

ফ্লোচার্ট কি?

অ্যালগরিদমকে চিত্রের মাধ্যমে প্রকাশ করা হলেঅ কতগুলো জ্যামিতর আকার এর ছবি যা থেকে বোঝা যায় একটি প্রোগ্রামে কোন স্টেপ এর পর কোন স্টেপ সম্পূর্ণ করতে হয়।

অ্যালগরিদমের সকল স্টেপ চিত্রের মাধ্যমৈ বুঝানোকে প্লোচার্ট বলে। কিছু আলাদা আলাদা জ্যামিতিক চিত্র ব্যবহার করে, ফ্লোচার্ট তৈরি করা হয়। ফ্লোচার্ট এর মাধ্যমৈ প্রোগ্রামের প্রকৃতি বুঝাতে সহায়তা করে। উক্ত ফ্লোচার্টের উপর ভিত্তি করে প্রোগ্রাম লেখা হয়।

অ্যাগরিদম এবং ফ্লোচার্টের মধ্যে পার্থক্য কি?

  • কোন সমস্যার সমাধান সুনির্দিষ্ট স্টেপ গুলো কে অ্যাগরিদম বলে। আর অ্যালগরিদমের চিত্রকে ফ্লোচার্ট বলে।
  • অ্যাগরিদমের ভিত্তিতে ফ্লোচার্ট তৈরি করা হয় আর ফ্লোচার্টের ভিত্তিতে প্রোগ্রাম রচনা করা হয়।
  • অ্যালগরিদম বর্ণনা মূলক আর ফ্লোচার্ট নিত্র নির্ভর।

এই হলো অ্যালগরিদম এবং ফ্লোচার্টের মধ্যে থাকা কিছু পার্থক্য।

অ্যালগরিদম এর ব্যবহার

প্রোগ্রামিং এর জন্য অ্যালগরিদম অনেক পরিমাণের ব্যবহার করা হয়ে থাকে। যে বিষয় গুলোতে অ্যালগরিদম ব্যবহার করা হয় সে গুরো হলো।

  • কম্পিউটার প্রোগ্রামিং
  • ফ্লোচার্ট
  • সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার
  • কম্পিউটার সাইনটিস্ট
  • মেশিনিয়াল সমস্যার সমাধান
  • অল স্পেস রিসার্স ইত্যাদি।

উক্ত মাধ্যম গুলো ছাড়া আরো অনেক কাজে অ্যাগরিদমকে ব্যবহার করা হয় সকল প্রকার সমস্যার সমধান পাওয়ার জন্য।

আরো পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাকে জানানো হলো অ্যালগরিদম কি? অ্যালগরিদম এর কাজ কি। আপনি যদি উক্ত আলোচনা মনযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে আজ থেকে অ্যালগরিদম নিয়ে আর কোন দ্বিধা দন্দ থাকবে না।

কারণ আমি এখানে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা উপস্থাপন করেছি। আশা করি আপনিও সহজ ভাবে এই সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেছেন। তার প্রেক্ষিতে আমাদের পোস্টে আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

ট্যাগঃ অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন) অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন) অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন)

অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন) অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন) অ্যালগরিদম কি ? অ্যালগরিদম এর কাজ কী? (এখানে দেখুন)

আমাদের এই ওয়েবসাইটে আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন। তাহলে নিয়মিত নতুন নতুন টিপস এন্ড ট্রিক্স জানতে ভিজিট করুন ধন্যবদা।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap