ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়

বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষ আজ অনলাইনের মাধ্যমে নিজের ক্যারিয়ার গড়েতে ইউটিউব এর প্রতি ঝুকছে। আপনিও যদি তাদের মতো একজন ইউটিউবার হয়ে থাকেন। এবং ইউটিউব থেকে আয় করেন। তাহলে আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি দুষ্ট লোকদের কাছ থেকে সুরক্ষিত রাখতে হবে।

কারণ আমাদের মধ্যে এমন অনেক ইউটিউবার আছে। যারা তাদের ইউটিউব চ্যানেল কোন সিকিউরিটি না ব্যবহার করার ফলে হ্যাক হওয়ার মতো সমস্যার সম্মুখিন হয়।

ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়
ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়

তাই আজ আমি আপনাদের সুবিধার জন্য এই পোস্টে আলোচনা করব ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায় নিয়ে। আপনি যদি এই বিষয়ে বিস্তারিত ধরণা নিতে চান। তাহলে নিচে দেওয়া তথ্য গুলো শেষ পর্যন্ত অনুসরণ করুন।

বর্তমান সময়ে যে কারো ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া কোন অস্বাভাবিক ঘটনা নয়। তার কারণ ইউটিউব চ্যানেল প্রতিনিয়ত হ্যাক হওয়ার ঘটনা ঘটে যাচ্ছে। আপনি যদি কোন জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল এর মালিক হয়ে থাকেন। তাহলে আপনিও হ্যাকিং এর রিস্ক থেকে কিন্তু মুক্ত না। আপনার চ্যানেল যত জনপ্রিয় আপনার রিস্ক ঠিক ততটা বেশি থাকে।

ইউটিউব হ্যাকার’রা সাধারণত কোন সাধারণ চ্যানেল গুলো হ্যাক করে না। তাদের মূল টার্গেট থাকে জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল গুলো। যে চ্যানেল এর সাবস্ক্রাইবার বেশি ও ভিউ বেশি। এই সকল ইউটিউটিব চ্যানেল এর মালিক গুলোকে বিপদে ফেলে দেয়। অনেক হ্যাকার আছে যারা বন্ধুদের সাথে মজা করে হ্যাক করে। আবার অনেক প্রফেশনাল হ্যাকরা’রা বড় বড় ইউটিউব চ্যানেল গুলো মোটা টাকা খাওয়ার জন্য হ্যাক করে থাকে।

ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকার যে উদ্দেশ্যে হ্যাক করুক না কেন আপনি নিশ্চয় চান না যে, আপনার জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেলটি হ্যাক হয়ে যাক। আপনার চ্যানেল কে রক্ষা করা আপনার দায়িত্ব। আমার দায়িত্ব হচ্ছে আপনাকে জানানো যে কিভাবে আপনার ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকারদের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেন।

তো চলুন ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায় গুলো জেনে নেওয়া যাক।

ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষার উপায়

আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই কিছু বিষয় এর উপর নজর দিতে হবে। আমরা এখানে সঠিক কিছু নিয়ম যুক্ত করেছি। যে গুলো অনুসরণ করলে আপনি যে কোন ইউটিউব চ্যানেল হ্যাকারদের হাত থেকে রক্ষা করতে পারবে।

তো চলুন ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষার উপায় গুলো জেনে নেওয়া যাক।

আরও দেখুনঃ

শক্তিশালী পাসওয়ার্ড সেট করুন

আপনি যখন কোন একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন। সেই সময় আপনাকে অবশ্যই একটি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে হয়। মানে আপনি যে ইমেইল দিয়ে ইউটিউব একাউন্ট তৈরি করবেন সেই একাউন্ট শুরুতেই একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

অনেক লোক নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার জন্য সাধারণ একটি ইমেইল মানে সহজ পাসওয়ার্ড দিয়ে তৈরি করে থাকে। মানে অনেক লোক আছে যারা ইমেইল এর পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে মোবাইল নম্বর, জন্ম তারিখ, কেউ বা আবার প্রেমিক/ প্রেমিকার নাম দিয়ে পাসওয়ার্ড যুক্ত করে।

আর আপনি যদি উক্ত নিয়ম অনুযায়ী পাসওয়ার্ড যুক্ত করেন তাহলে আপনার রিস্কির মধ্যে থাকতে হবে। কারণ হ্যাকার’রা প্রথম দিকে এই গুলো দিয়ে একাউন্ট লগইন করার চেষ্টা করে থাকে।

তাই হ্যাকারদের হাত থেকে ইউটিউব চ্যানেল রক্ষা করতে চাইলে স্ট্রং/ শক্তিশারী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে হবে। আপনি অনলাইন জগতে যে কোন একাউন্ট তৈরি করতে গেলে অবশ্যই শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন যেমন- #$!&^% এরকম চিহ্ন দিয়ে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। তাহলে আপনার পাসওয়ার্ড গুলো অনেক শক্তিশালী হবে। যাতে করে কোন হ্যাকার কোন ভাবে আপনার ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক করতে পারবে না।

এখন আপনার প্রশ্ন হতে পারে যে, এই সকল চিহ্ন ব্যবহার করে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করলে তো মনে থাকবে না। আপনার প্রশ্নের উত্তরে বলব। আপনার যে কোন একাউন্টে তৈরি করার জন্য পাসওয়ার্ড ব্যবহার করলে আপনার ব্যক্তিগত ডাইয়েরি বা আপনার ইমেইল এড্রেসে সেভ করে রাখতে পারেন। তাহলে মনে রাখতে সহজ হবে।

টু স্টেপ ভেরিফিকেশন সেট করুন

আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেল সারা জীবন হ্যাকারদের কাছ থেকে রক্ষা করতে চান। তাহলে আপনাকে অবশ্যই টু স্টেপ ভেরিফিকেশন সেট করতে হবে।

আপনি যখন একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন। তখন আপনাকে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন করার একটি অপশন দেওয়া হবে। উক্ত টু স্টেপ সেট করার জন্য আপনার একটি মোবাইল নম্বর দরকার হবে।

আর সেই মোবাইল নম্বর দিয়ে টু স্টেপ ভেরিভাই করতে পারবেন। উক্ত ভেরিভাইড করার ফলে, আপনি নিজেও যদি ইউটিউব চ্যানেলে প্রবেশ করতে চান। সেক্ষেত্রে আপনার মোবাইলে মেসেজ কোড চলে যাবে।

সেই কোড টু স্টেপ বক্সে যুক্ত করার পরে আপনি ইউটিউব চ্যানেলে প্রবেশ করতে পারবেন। এছাড়া আপনার ইউটিউব চ্যানেল যদি কোন ব্যক্তি লগইন করতে চাই তাহলে আপনার মোবাইলে নোটিফিকেশন চলে আসবে। আর আপনি বুঝতে পারবেন আপনার ইউটিউব চ্যানেলে কেউ প্রবেশ করতে চাইছে।

আপনি যতখন পর্যন্ত টু স্টেপ ভেরিফিকেশন কোড না দিবেন সেই পর্যন্ত অন্য কোন ব্যক্তি বা আপনি নিজেও ইউটিউবে প্রবেশ করতে পারবেন না।

তাই আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেল সব সময়ের জন্য সুরক্ষিত রাখতে চান। তাহলে টু স্টেপ স্টেপ করে নিন।

মাল্টিপল অ্যাক্সেস বন্ধ করে দিন

আপনি যদি একাধিক ব্যক্তির সাথে আপনার ইউটিউব চ্যানেল এক্সেস শেয়ার করেন। তাহলে নিশ্চিত হয়ে নিন যে, যারা এখন আর আপনার চ্যানেলে সাথে যুক্ত নেই। তাদের এক্সেস বন্ধ করে দিয়েছে।

এটি খুব স্বাভাবিক যে, আপনার চ্যানেলটির যথাযথ পরিচালনার জন্য আপনি একাধিক লোকদের সাথৈ এক্সেস দিয়েছে। তবে এটি অত্যন্ত অস্বাভাবিক যে, আপনি আর কখনও তাদের এক্সেস বন্ধ করেন নাই। যারা এখন আর আপনার চ্যানেলের সাথে সম্পৃক্ত নাই।

এখন আপনি বুঝতেই পারছেন একাধিক মানুষ এর এক্সেস থাকা চ্যানেল হ্যাকিং এর জন্য অত্যন্ত সহায়ক। তার জন্য আপনার উচিত অন্যান্য সকল এর এক্সেস এখনই বন্ধ করে দেওয়া। বিশেষ যারা এখনও আর আপনার চ্যানেল এর জন্য কাজ করছে না।

এছাড়া কাজ করার প্রয়োজন মনে করছে না। হতেই পারে এক সময় তারা আপনার বন্ধু ছিল কিন্তু এখন আর নাই। বন্ধু থেকে শক্রু হয়ে যেতে কতখন।

আপনি উক্ত বিষয়টি অনুসরণ করে আপনার ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারবেন।

অন্যের কম্পিউটার ইউটিউব লগইন করবেন না?

আপনি যদি ইউটিউব নিয়ে কাজ করে থাকেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে অনেক ভাবে সতর্ক থাকতে হবে চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে। সেই প্রেক্ষিতে আপনি কোন কারণে আপনার ইউটিউব চ্যানেল যদি আপনার পরিচিত বা অপরিচিত কোন ব্যক্তির দোকান বা বাসায় গিয়ে লগইন করেন। তাহলে আপনার চ্যানেল হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কারণ আপনি যে ব্রাউজার দিয়ে ইউটিউব চ্যানেল লগইন করবেন। সেই ব্রাউজারে হিস্ট্রোরি হিসেবে জমা থাকে। চাইলেই সেই ইতিহাসে প্রবেশ করে আপনার ইউটিউব পাসওয়ার্ড জেনে নেওয়া যাবে। তাই আপনি কোন সময় আপনার ইউটিউব চ্যানেল অন্যের কম্পিউটারে লগইন করবেন না।

আরও পড়ুনঃ

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা, আজ আমাদের এই আর্টিকেল আপনাকে জানানো হলো ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়। আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেলের মালিক হয়ে থাকেন। এবং সেই চ্যানেল থেকে আয় করেন। তাহলে আপনাকে উক্ত সকল পদক্ষেপ গুলো অনসুণ করে কাজ করতে হবে। তাহলেই আপনি ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারবেন।

আমাদের দেওয়া আর্টিকেল আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আর এই পোস্ট আপনার বন্ধুদের জানিয়ে দিতে একটি শেয়ার করুন।

ট্যাগঃ ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায় ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায় ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়

ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায় ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায় ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়

এছাড়া, এই ওয়েবসাইট থেকে নিয়মিত নতুন নতুন টিপস এন্ড টিক্স পড়তে চাইলে নিয়মিত ভিজিট করুন ধন্যবাদ।

আরও পড়ুন

5 thoughts on “ইউটিউব চ্যানেল হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করার উপায়”

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap