মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ?

মাল্টিমিডিয়া কি : আমাদের এই পোস্টে আপনাকে জানাব মাল্টিমিডিয়া কি? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি এই সম্পর্কে। আপনি যদি মাল্টিমিয়ার বিষয়ে সকল তথ্য পেতে চান। তাহলে নিচে দেওয়া লেখা গুলো মনযোগ দিয়ে পড়ুন।

মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ?
মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি?

মাল্টিমিডিয়া শব্দ এর মধ্যে দুইটি আলাদা আলাদা শব্দের বিশ্রণ আচে। সেটি হলো Multi আর Media. এখানে Multi শব্দ এর অর্থ হচ্ছে একের অধিক মানে একাধিক আর Media শব্দের অর্থ হচ্ছে মাধ্যম।

তার জন্য আমরা বলতে পারি যে, মাল্টিমিডিয়া এমন একটি প্রযুক্তি যার দ্বারা তথ্য গুলো কে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গাতে বিভিন্ন মাধ্যমে প্রেরণ করা সম্ভব হয়।

আরো যদি অন্যভাবে বলা যায় তাহলে মাল্টিমিডিয়া হচ্ছে একটি যোগাযোগ এর মাধ্যম। যেখানে বিভিন্ন প্রকার বিষয় বস্তু গুলো যেমন- টেক্সট, অডিও, ইমেজ, অ্যানিমেশন কিংবা ভিডিও ইত্যাদি গুলোকে একত্রিত করে বা একসাথে করে একক ইন্টারেক্টিভ প্রেজেন্টেশন তৈরি করা হয়।

তো চলুন এখন জেনে নেয়া যাক মাল্টিমিডিয়া কি এই সম্পর্কে।

মাল্টিমিডিয়া কি ? (What is Multimedia Meaning)

মাল্টিমিডিয়া হচ্ছে মিডিয়ার বিভিন্ন রুপ বা গঠন এর একটি ইন্টিগ্রেশন বা মিশ্রণ। এখানে টেক্সট, ইমেইজ, অডিও, ভিডিও, গ্রাফিক্স ইত্যাদির মতো বিভিন্ন বস্তু গুলো আছে।

মনে করুন আপনি নিজের অফিসিয়াল কাজ করার জন্য একটি প্রেজেন্টেশন তৈরি করেছেন সেখানে অডিও, ভিডিও গুলোর সামিল আছে। এই ক্ষেত্রে আপনার তৈরি করার প্রেজেন্টেশন কে বলা হবে একটি মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশন।

তাই এরকম ভাবে একটি Educational Software যেখানে অ্যানিমেশন, সাউন্ড, টেক্সট ইত্যাদি থাকে। এই ক্ষেত্রে উক্ত সকল সফটওয়্যার গুলো কে বলা হয় মাল্টিমিডিয়া সফটওয়্যার।

তাছাড়া সিডি এবং ডিভিডি গুলোকে বলা হয় মাল্টিমিডিয়া ফরম্যাট। তার কারণ এ গুলোর মধ্যে বিভিন্ন মাল্টি মিডিয়ার উপাদান গুলোকে কিংবা ডাটা গুলোকে স্টোর করে রাখা যায়।

প্রযুক্তি এত বেশি উন্নয়ন এবং ব্যবহারের ফলে আজ মাল্টিমিয়িা িএকটি অনেক সাধারণ শব্দতে পরিনত হচ্ছে। যার বিষয়ে সকলেই কম বেশি জানেন।

বর্তমানে আমরা যে কোন জায়গায় মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার গুলো দেখতে পায়। তার কারণ এর ব্যবহার করা অনেক সহজ ও সকল একটি উপায়।কিন্তু আগের সময় গুলোতে মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার এতটা সহজ ছিল না।

আপনি যদি যদি উক্ত আলোচনা অনুসরণ করে থাকেন। তাহলে আপনি বুঝে গেছেন যে মাল্টিমিডিয়া আসলে কি। আপনাকে যদি আরো সহজ করে বলা যায় তাহলে মাল্টি মিডিয়া হলো এক ধরণের কম্পিউটার তথ্য বা ডিজিটাল তথ্য যেগুলোকে অডিও, ভিডিও এবং অ্যানিমেশন ইত্যাদি উপাদান গুলোর মাধ্যমে প্রতিরূপ করা হয়।

কিন্তু এর সাথৈ প্রায়োজন হিসেবে বিভিন্ন ট্র্যাডিশনাল মিডিয়া গুলো টেক্সট, গ্রাফিক্স, ইমেজ ইত্যাদির ব্যবহার অবশ্যই থাকে। তবে আশা করি এখন আপনি পুরোপুরি ভাবে মাল্টিমিডিয়া কি এই বিষয়ে ‍বুঝে গেছেন।

আরও দেখুনঃ

মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট গুলো কি কি ?

মাল্টিমিডিয়ার অনেক বৈশিষ্ট রয়েছে। তারমধ্যে আমরা যতটুকু পারি সেটি আপনাকে জানানোর চেষ্টা করব। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট সম্পর্কে।

  • মাল্টিমিডিয়া সিস্টেম গুলো অবশ্যই কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত হয়।
  • মাল্টিমিডিয়া সিস্টেম বা তার উপাদান গুলো একসাথে হয়ে থাকে।
  • মাল্টিমিডিয়া দ্বারা যে তথ্য গুলো পরিচালনা করা হয়। সে গুলো যাতে ডিজিটাল মাধ্যমে প্রতিনিধিত্ব করা হয়ে থাকে।
  • মাল্টিমিডিয়া ডাটা গুলো বিভিন্ন প্রকার মিডিয়া ফরম্যাট গুলোর মাধ্যমে গঠিত হয়। যেমন- jpeg, mid, avi, wav, doc, png, giv ইত্যাদি।
  • মাল্টিমিডিয়া এপ্লিকেশন এর কথা বলতে গেলে ইনপুট এবং আউটপুট অবিচ্ছিন্ন ও দ্রুত হয়।
  • মাল্টিমিডিয়া এপ্লিকেশন গুলো ডেভেলপ করার জন্য বিভিন্ন প্রকার সফটওয়্যার টুলস গুলো যেমন- প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ, মাল্টিমিডিয়া এডিটিং সফটওয়্যার, গ্রাফিক্স সফটওয়্যার ইত্যাদি দরকার হয়।

মাল্টিমিডিয়ার উপাদান কয়টি কি কি?

মাল্টিমিডিয়ার অনেক উপাদান থাকতে পারে। কিন্তু নিচের অংশে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ও মূল উপাদান ও প্রকার গুলোর বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

বর্তমান সময়ে বেশির ভাগ কনটেন্ট যে, গুলো আমরা নিয়মিত দেখে বা ব্যবহার করে থাকি। সেগুলো  সহজেই ব্যবহার করা যায়। যেমন-

টেক্সট

আপনি যদি মাল্টিমিডিয়া তৈরি করতে চান। তাহলে আপনার প্রথম যে, উপাদানটি দরাকার হবে সেটি হলো টেক্সট। কারণ টেক্সট ব্যাতিত আপনি কোন ভাবেই মাল্টিমিডিয়া করতে পারবেন না।

কারণ আপনি কোন শিক্ষনীয় প্রেজেন্টেশন তৈরি করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই টেক্সট ব্যবহার করতে হবে। আর টেক্সট ব্যবহার করার ফলে আপনি খুব সহজে আপনার প্রয়োজনী এনিমেশন গুলো তৈরি করতে পারবেন।

আর এই ভিডিও গুলা তৈরি করার জন্য আপনাকে অবশ্যই টেক্সট ব্যবহার করতে হবে। আর টেক্সট যুক্ত করে আপনার যে কোন এনিমেশন সহজেই তৈরি করতে পারবেন।

তাই আপনি মাল্টিমিডিয়া উপাদান হিসেবে প্রথমে টেক্সট ব্যবহার করতে হবে। তো টেক্সট ব্যবহার করার পরে আপনাকে আরো অনেক বিষয় জানতে হবে। সেই বিষয়ে জানার জন্য নিচে দেওয়া তথ্য গুলো অনুসরণ করুন।

অডিও ফাইল

আপনি যখন কোন মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশন তৈরি করবেন তখন আপনাকে অবশ্যই টেক্সট এর পাশাপাশি অডিও ফাইল যুক্ত করতে হবে। আর অডিও ফাইল যুক্ত করার পরে আপনি প্রেজেন্টেশনটি আরো সুন্দর করে সাজাতে পারবেন।

তাই টেক্সট এর পরে আপনাকে গুরুত্ব দিতে হবে অডিও মিউজিক গুলোর উপার বা ভয়েজ এর উপর। আপনার মাল্টিমিডিয়াতে যত ভালো কোয়ালিটির অডিও সাউন্ড থাকবে তত আকর্ষণীয় হবে।

ভিডিও প্রেজেন্টেশন

এছাড়া আপনি যখন কোন মাল্টিমিডিয়া প্রস্তুত করবেন তখন আপনাকে উক্ত টেক্সট এবং অডিও ফাইলের পাশাপাশি ভালো ভালো ভিডিও যুক্ত করতে হবে। আর একটি মাল্টিডিয়াতে ভিডিও যুক্ত করার ফলে আপনি অনেক ভালো একটি প্রেজেন্টেশন তৈরি করতে পারবেন।

আর সেই মাল্টিমিডিয়া অনেক আকর্ষণীয় করার জন্য আপনাকে আরো কিছু উপাদান ব্যবহার করতে হবে। সেটি জানতে নিচের তথ্য গুলো দেখুন।

ইমেজ

আপনি যখন উক্ত উপাদান গুলো ব্যবহার করবেন তার পাশাপাশি কিছু ছবি যুক্ত করার ফলে, আপনার মাল্টিমিডিয়া গুলো সুন্দর করার জন্য অবশ্যই ইমেজ/ ছবি/ ফটো ব্যবহার করতে হবে।

উক্ত উপাদান গুলো ছাড়া আরো অনেক উপাদান যুক্ত করে আপনার মাল্টিমিডিয়া অনেক সুন্দর করে উপস্থাপন করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার 

বর্তমানসময়ে ছোট ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে ছাত্র ছাত্রী এবং ব্যবসায়া ক্ষেত্রে সকলেই মাল্টিমিডিয়া ব্যবহার করে বিভিন্ন উন্নতি সাধন করার জন্য। তো চলুন পুরোপুরি ভাবে জেনে নেওয়া যাক মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার কোথায় করা হয়। যেমন-

  • ব্যবসা ক্ষেত্রে
  • শিক্ষা ক্ষেত্রে
  • বিনোদনের ক্ষেত্রে
  • সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে
  • গবেষণার উন্নয়নের ক্ষেত্রে
  • বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে ইত্যাদি।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা এই পোস্টে আপনি জেনে নিতে পারলেন মাল্টিমিডিয়া কি? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট এবং উপাদান গুলোর বিষয়ে। আপনি যদি মাল্টিমিডিয়া নিয়ে উপস্থাপনা করতে চান। তবে উক্ত নিয়ে শুরু করে দিতে পারেন।

ট্যাগঃ মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ? মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ? মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ?

মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ? মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ?মাল্টিমিডিয়া কি ? মাল্টিমিডিয়ার বৈশিষ্ট্য এবং উপাদান গুলো কি ?

আমাদের দেওয়া আর্টিকেল আপনার কাছে কেমন লাগলো অবশ্যই একটি কমেন্ট করে জানাবেন। আর এই সাইট থেকে নিয়মিত আর্টিকেল পড়তে চাইলে ভিজিট করুন ধন্যবদা।

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap