ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার সহজ মাধ্যম

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় (earn with Instagram)  কথাটি শুনে অবাক হয়ে যাবেন অনেকেই। ভাববেন, নতুন পোশাক পরে, নতুন রেসিপি রান্না করে বা ভালো কোনো রেস্তোরাঁয় গেলে অথবা নতুন কোনো জায়গায় ঘুরতে গেলে প্রায়শই মানুষ ইনস্টাগ্রামে ছবি বা ভিডিও পোস্ট করে। সেখানে, পরিচিত মানুষেরা লাইক, কমেন্ট করে। 

এই লাইক, কমেন্ট সাময়িকভাবে সুখ দিলেও, আর্থিক দিক থেকে তার কোনো মূল্য নেই। কিন্তু, সেখানে অর্থ উপার্জন করা যায় কীভাবে? 

আজ আমরা সেই ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করা সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দিবো। এরপর থেকে আপনিও চাইলে, সেই পদ্ধতি অবলম্বন করে আয় করতে পারবেন। 

Instagram থেকে আয় করুন
Instagram থেকে আয় করুন

ইন্সটাগ্রাম কি (what is Instagram):

ইনস্টাগ্রাম হল একটি সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্ক/ওয়েবসাইট। অনেকেই এটাকে ছবি শেয়ারিং ওয়েবসাইট বলে থাকে। এককথায় ইনস্টাগ্রাম হল একটি সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট যেখানে মানুষ ছবি, ভিডিও, ও অন্যান্য স্ট্যাটাস শেয়ার করে থাকে। বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়স্বজন সেই ছবি ভিডিও স্ট্যাটাস কে কমেন্ট শেয়ার লাইক করে থাকে এটাই হলো ইনস্টাগ্রাম (instagram)।

ইনস্টাগ্রাম ওয়েবসাইটটি পূর্বে আলাদা একটি ওয়েবসাইট থাকলেও বর্তমানে facebook.com ইনস্টাগ্রাম কে কিনে নিয়েছে এবং এটাকে ফেসবুকের একটি পার্টনার হিসেবেও বলে থাকেন। ইনস্টাগ্রাম ফেসবুকের মতোই আরেকটি সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট। আরও পড়ুন:  বাংলা লিখে অনলাইনে আয়  করুন

ইনস্টাগ্রাম ও ফেইসবুকের মধ্যে পার্থক্যঃ

ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুকের মধ্যে ব্যবহারের দিক থেকে কোন পার্থক্য না থাকলেও বেশ কিছু পার্থক্য রয়েছে।

ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুক দুটোই সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট। এবং এখানে যার যার মতামত ছবি ভিডিও শেয়ার করে থাকে।

ফেসবুকে বিশেষ করে, বিভিন্ন ধরনের স্ট্যাটাস এবং ছবি শেয়ার করা হয়। পক্ষান্তরে ইনস্ট্রাগ্রামে ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করা হয়। এটাকে ইমেজ শেয়ারিং সোশ্যাল মিডিয়া বলে থাকে।

ইনস্টাগ্রাম থেকে কিভাবে আয় করা যায় এ ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো:

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার জন্য শুরু করবেন কীভাবে?

ইনস্টাগ্রামে প্রতি ঘন্টায় লাখ লাখ মানুষ ছবি বা ভিডিও পোস্ট করছেন। কিন্তু, তাই বলে কি সবাই এখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারছে? পারছে না। কেননা, সবাই জানে না কী কী করলে ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করা যায়। সে সম্পর্কে আপনারা জানতে পারবেন, তা আমরা বলবো একটু পরে। কিন্তু, তার আগে আপনাকে একটি কার্যকর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

প্রথমে একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট খুলুন 

অ্যাপ স্টোর, প্লে স্টোর থেকে ফ্রিতে ইনস্টাগ্রাম অ্যাপটি নামানো যায়। তাই আপনি চাইলেই এখান থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন। তারপর, সেখান থেকে নিজের একটি প্রোফাইল তৈরি করতে পারবেন। এজন্য, আপনার একটি স্মার্টফোনের পাশাপাশি দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংযোগের প্রয়োজন হবে। তবে, আপনার অ্যাকাউন্ট খোলার সময় খেয়াল রাখবেন, আপনার ইউজার নেম যেনো আপনার প্রোফাইলকে যথাযথভাবে উপস্থাপন করে।

আরও পড়ুন:

একটি নির্দিষ্ট বিষয় বেছে নিন 

আপনি কী করতে ভালোবাসেন? যদি ছবি তুলতে কিংবা ভিডিও করতে কিংবা লিখতে ভালোবাসেন, তা পোস্ট করুন আপনার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে। এর মাধ্যমে আপনি বেশ কিছু ফলোয়ার পেতে পারেন। কিন্তু, এর মাধ্যমে কোন গ্রাহক তৈরি হবে না। 

ইনস্টাগ্রামে আপনার কিছু টার্গেটেড অডিয়েন্সের সাথে সংযুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে একটি নির্দিষ্ট বিষয় বেছে নিতে হবে। এক্ষত্রে ভ্রমণ, রান্না, ফ্যাশন, যোগ ব্যায়াম ইত্যাদির থেকে আপনি যেকোনো একটি বিষয় বেছে নিতে পারেন। এমনকি আপনার যদি লেখালেখি বা প্রোগ্রামিংয়ের মতো বিষয়ে বিশেষ দক্ষতা থাকে; তবে তাকেও আপনি আপনার বিষয় হিসাবে বেছে নিতে পারেন।

এছাড়া, আপনার যদি নিজস্ব ব্যবসা থাকে; আপনি চাইলে সেই ব্যবসাকেই আপনার প্রোফাইলের বিষয় বানাতে পারেন। 

একবার আপনি আপনার বিষয় নির্ধারণ করে ফেললে, ঐ বিষয়ে তখন থেকেই ইনস্টাগ্রামে পোস্ট দেওয়া শুরু করবেন। এতে, ঐ বিষয়ে আগ্রহী অন্য ব্যক্তিরা আপনার প্রোফাইলের সাথে যুক্ত হওয়া শুরু করবে।

পেশাদারিত্বের সাথে তৈরি করুন আপনার প্রোফাইল

আপনার প্রোফাইল খুললেন। সেখানে, আপনার পছন্দের বিষয় নিয়েও কাজ শুরু করলেন। কিন্তু, আপনার প্রোফাইল যদি পেশাদারিত্বের পরিচয় না দেয়, তবে কোনো লাভ নেই। কেননা, আপনার প্রোফাইল পেশাদারিত্বের পরিচয় না দিতে পারলে, তালআপনার পরিচিত মানুষজন ছাড়া অন্য দর্শকদের আকৃষ্ট করার ক্ষমতা রাখবে না। 

কীভাবে প্রফেসনাল  প্রোফাইল তৈরি করবেন

ইনস্টাগ্রামে অ্যাকাউন্ট খোলার সময় আপনার বেশ কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। সাধারণত, প্রোফাইল তৈরির সময় প্রোফাইল পিকচার, ওয়েবসাইটের নাম, ব্যবহারকারীর নাম, এবং বায়োসহ বেশ কয়েকটি অপশন অ্যাড করার সুযোগ পাবেন। একটি আকর্ষণীয় ইনস্টা প্রোফাইল তৈরির জন্য এর সবগুলো অপশনই খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ। উদাহরণস্বরূপ, ইনস্টার সার্চ অপশন থেকে আপনার প্রোফাইল কিংবা প্রোফাইলের কোন বিষয়বস্তু ব্যবহারকারীরা যেনো সহজে খুঁজে নিতে পারে, সেজন্য একটি উপযুক্ত ইউজারনেম বেছে নিবেন, যেটি খুবই আকর্ষণীয় এবং আগে কখনো কেউ ব্যবহার করেনি।

এরপর, যদি আপনার কোনো ব্যক্তিগত বা ব্যবসায়িক ওয়েবসাইট থেকে থাকে; তবে, তার লিংক ইনস্টাগ্রামে সংযুক্ত করে ফেলুন। তারপর, বায়ো লেখার বিভাগে নিজের সম্পর্কে সংক্ষেপে কিছু আকর্ষণীয় কথা বাক্য লিখুন। এর ফলে দর্শকেরা আপনার ব্যক্তিত্ব, জ্ঞান এবং বিভিন্ন অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে পারবে।

শুরু করুণ দর্শকদের বিশ্বাস অর্জন করার মাধ্যমে

ইনস্টাগ্রামে প্রতিদিন কয়েক লাখ মানুষ ছবি বা ভিডিও পোস্ট করে। কিন্তু, এদের মাঝে খুব কম সংখ্যক মানুষই এই প্লাটফর্ম থেকে আয় করতে পারে। 

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার জন্য আপনি কতগুলো লাইক বা কমেন্ট পেলেন তা কোনো গুরুত্বই বহন করবে না, যদি দর্শকরা আপনার পোস্টে বিশ্বাস স্থাপন করতে সক্ষম না হলে।

কিভাবে অর্জন করবেন দর্শকদের বিশ্বাস?

দর্শকের বিশ্বাস অর্জনের জন্য অন্যতম প্রধান উপায় হল মানসম্পন্ন কন্টেন্ট তৈরি করা। উদাহরণ হিসেবে দেখা যাক, ডিজিটাল মার্কেটিং। এক্ষেত্রে, আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং সংক্রান্ত ভিডিও বা তথ্যবহুল কন্টেন্ট দর্শকের সামনে তুলে ধরতে হবে। সেক্ষেত্রে, অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে, দর্শক যেনো আপনার কাছ থেকে নতুন কিছু শিখতে পারে। পাশাপাশি, আপনার কন্টেন্ট উপস্থাপন যেনো বিরক্তিকর না হয়। 

আপনার এসব কন্টেন্টই দর্শকদের আপনার প্রোফাইলের প্রতি আকৃষ্ট করবে। এরপর, তারা সবগুলো কন্টেন্ট ঘুরে দেখবে। আর এভাবেই প্রতিটা কন্টেন্ট দেখতে দেখতে তারা আপনার প্রোফাইলের প্রতি বিশ্বাস অর্জন করে ফেলবে।

হ্যাশট্যাগ যোগ করুন কীওয়ার্ডের সাথে

নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ছবি বা ভিডিও পোস্ট করার সময়, পোস্ট এর সাথে প্রাসঙ্গিক কিছু কীওয়ার্ড যোগ করবেন। তবে, কন্টেন্টের নিচে কীওয়ার্ডগুলো যোগ করার সময় হ্যাশট্যাগ দিতে ভুলবেন না।

উদাহরণস্বরূপ, ইনস্টাগ্রামে আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কিত কোন কিছু পোস্ট করেন, তবে কন্টেন্টের শেষে ‘#ডিজিটালমার্কেটিংটিপস’ লিখে যোগ করে দিবেন।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করবেন কীভাবে?

যখন সফলতার সাথে আপনি মূল্য সংযোজন সামগ্রীর পাশাপাশি অরগ্যানিক ফলোয়ার সমৃদ্ধ একটি পেশাদার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল তৈরি করতে সক্ষম হবেন, তখনই আপনার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল অর্থ উপার্জনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার জন্য স্পন্সরকে আকর্ষণ করুন

ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে যখন যথেষ্ট সংখ্যক ফলোয়ার হয়ে যাবে, তখন আপনার স্বনামধন্য বিভিন্ন ব্রান্ডের সাথে স্পনসরড পোস্টের জন্য অংশীদারী চুক্তি করতে আবেদন করতে হবে।  আপনার আবেদন গৃহীত হলে আপনি স্পনসরড সামগ্রী ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে পোস্ট করে টাকা আয় করতে পারেন। 

এক্ষেত্রে, স্পন্সরকে আকর্ষণ করার জন্য নিজের ইনস্টাগ্র্ম প্রোফাইলকে বিশ্বাসযোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। এর ফলে স্পন্সর যেনো বুঝতে পারেন, আপনি যা দেখাবেন বা বলবেন দর্শক তা শোনার ও গ্রহণ করার জন্য মুখিয়ে আছে।

প্রচারণা করুন আপনার স্থানীয় ব্যবসার

আপনার নিজস্ব কোনো ব্যবসা থাকলে, দর্শকদের কাছে সহজেই নিজের পণ্যের প্রচারণা চালানোর জন্য ইনস্টাগ্রাম অসাধারণ একটি মাধ্যম। ফেসবুকের মতোই ইনস্টাগ্রামও অনলাইনে নিজের ব্যবসায়ের প্রচারণা চালানোর জন্য একটি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। তবে, এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে, প্রোফাইল তৈরি করার সাথে সাথেই সেখানে পন্য বিক্রি করার চেষ্টা না করাই সবচেয়ে ভালো।

ইনস্টাগ্রাম থেকে আয় করার জন্য বিক্রি করুন আপনার ডিজিটাল পণ্য 

আপনার কি নিজের কোনো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বা অনলাইন ব্যবসা নেই? নেই স্পন্সরড পোস্ট দেয়ার জন্য যথেষ্ট সংখ্যক ফলোয়ার সংখ্যা? তারপরও, আপনি ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা আয় করতে চান? 

শুনতে অবিশ্বাস্য হলেও, এটিও সম্ভব। এক্ষেত্রে, আপনাকে পণ্য বিক্রয়ের পরিবর্তে, আপনার নিজস্ব দক্ষতা বিক্রি করতে হবে।

যেমন ধরুণ: আপনার ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে দক্ষতা আছে। এক্ষেত্রে, এই সংক্রান্ত ভিডিও ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে মানুষকে বিনামূল্যে তা শেখার সুযোগ করে দিতে পারেন। তারপর, ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়ে আরও উন্নত কৌশলগুলো ভিডিও সিরিজ চালু করে টাকার বিনিময়ে শেখাতে পারেন।

পরিশেষে

ইনস্টাগ্রাম যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ছবি/ভিডিও শেয়ারিং মাধ্যম। এটি বিশ্বের প্রায় সকল ধর্ম, বর্ণ, এবং বয়সের মানুষদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। তাই, এটিকে শুধুমাত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসাবে ব্যবহার করা ছাড়াও, জীবিকার উপায় হিসেবে ব্যবহার করা যায়। তাই, আর অপেক্ষা কেনো? আজই যথাযথ পন্থা অবলম্বন করে ইনস্ট্রাগ্রাম থেকে আয় করে জীবিকা স্থিতিশীল করে ফেলুন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

You May Like

Leave a Comment