গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার উপায়

গুগল এডমব (google admob) থেকে ইনকাম  বর্তমানে খুবই জনপ্রিয় এবং লাভজনক একটি উপায়। বর্তমানে অনলাইন থেকে আয়ের এতো এতো উপায় রয়েছে যে আপনি দ্বিধায় পরে যাবেন কোন উপায়ে আপনি আয় করবেন।

বর্তমান বিশ্বে মোবাইল ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে।  ছোট থেকে বৃদ্ধ প্রায় সব বয়সের লোকের হাতেই এখন একটা করে মোবাইল ফোন তো থাকেই। আর এই সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন এপস ডেভেলপাররা তৈরি করছেন কত-শত এপস।

এখন মানুষের কোনো বিষয় জানার হলে কিংবা যেকোনো বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে সোজা চলে যান গুগল প্লে স্টোরে। সেখান থেকে নিজেদের প্রয়োজন মতো এপস ডাউনলোড করে ব্যবহার করা শুরু করে দেন।

তবে এই সুযোগটাকে কিন্তু কাজে লাগাচ্ছেন অনেক ব্যবসায়ী।  আপনি যেকোন এপস ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে গেলেই নিশ্চয়ই বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপনের মুখোমুখি হোন?

এই বিজ্ঞাপনগুলো মূলত দেখানো হয় গুগল এডমবের মাধ্যমে।  আর এ থেকেই অনেকে আয়  করে নিচ্ছেন লাখ লাখ টাকা।

আপনিও নিশ্চয়ই গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার উপায় খুঁজছেন? তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই। আমরা এই আর্টিকেলে গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার যাবতীয় নিয়ম বিস্তারিতভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

গুগল এডমোব থেকে আয় করার উপায়
গুগল এডমোব থেকে আয় করার উপায়

গুগল এডমব কি? ( What Is Google AdMob In Bangla?)

গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার পূর্বে জেনে নেয়া যাক গুগল এডমব আসলে কি?

Google AdMob হচ্ছে গুগলের একটি advertising platform  যার মাধ্যমে “iOS” বা “android ” মোবাইল এপসগুলোতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করানো হয়ে থাকে।

চলুন একটু সহজভাবে জেনে নেয়া যাক। আচ্ছা আপনি যখন আপনার মোবাইলে কোনো এপস ডাউনলোড করে ইনস্টল করে ব্যবহার করতে যান, তখন কি এপসগুলোতে বিভিন্ন বিজ্ঞাপনের (advertisements)  মুখোমুখি হোন না?

এই যে বিজ্ঞাপনগুলো দেখতে পান এই বিজ্ঞাপনগুলোই গুগল এডমবের মাধ্যমে দেওয়া হয়। আর যখন কেউ কোনো এপস ইনস্টল করে ওপেন করেন তখন গুগল এডমব দ্বারা বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করানো হয়।  মূলত এইভাবেই আয় হয় গুগল এডমব থেকে।

এডমবে দুই ধরনের এড বেশি নজর কাড়ে মানুষের। একটি হচ্ছে ব্যানার এড যেটি application  এর স্কিনেই প্রদর্শিত হয়ে থাকে। যার সাইজ সাধারণত ৩২০ বাই ৫০ পিক্সেল হয়ে থাকে।

অপরদিকে ইন্টারস্টিসিয়াল এড পুরো স্কিন জুড়ে  প্রদর্শিত হয় যখন আমরা এপসটির পেইজ পরিবর্তন করি কিংবা এপসটি থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময়।

আরও পড়ুনঃ

গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার পদ্ধতি

আপনি যদি গুগল এডমব থেকে আয় করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই সঠিক ধাপ অনুসরণ করতে হবে। চিন্তার কিছু নেই। আপনাদের সুবিধার্থেেই এখন আমরা গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার উপায়গুলো step by step তুলে ধরবো।

১ Mobile application.

গুগল এডমব থেকে ইনকাম করার জন্য আপনার অবশ্যই একটি application  বা এপসের প্রয়োজন পরবে। application  এর কথা শুনে ভয় পেয়ে গেলেন নাকি। ভয় পাওয়ার কিছু নেই।

বর্তমানে এমন অনেক ভালো ভালো এপস ডেভেলপার আছেন যারা খুব সহজেই আপনাকে একটি এপস বানিয়ে দিতে পারবেন।  তবে এর জন্য আপনাকে শুরুতে একটা কাজ করতে হবে। খুবই সহজ একটি কাজ। আপনি কোন বিষয়ের উপর আপনার এপসটি বানাতে চান সেটি ভেবে নিবেন।

ব্যাস, এরপর একজন ভালো ডেভেলপারের কাছে গিয়ে আপনি আপনার এপস বানানোর বিষয় বা আইডিয়াটা বলবেন। উনিই আপনাকে আপনার আইডিয়ামতো এপসটি বানিয়ে দিবেন।

এছাড়াও আপনার নিজেরই যদি এপস বানানোর দক্ষতা থাকে তাহলে তো হয়েই গেলো। নিজেই বানিয়ে নিবেন পছন্দমতো ইউনিক একটি এপস।

২. AdMob account

গুগল এডমব থেকে ইনকাম করতে হলে নিশ্চয়ই আপনার একটি গুগল এডমব একাউন্ট থাকা লাগবে, তাই তো?

এখন প্রশ্ন হলো এই গুগল এডমব একাউন্টটি কী করে খুলবেন? খুবই সহজে উপায়েই আপনি কাজটি করে ফেলতে পারবেন।

এর জন্য আপনাকে প্রথমে গুগল থেকে গুগল এডমবের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। গুগলের সার্চ বাটনে গুগল এডমব লিখে সার্চের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনি গুগল এডমবের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারবেন।

এরপর নিজের একটি গুগল একাউন্ট কিংবা জিমেইল দিয়ে খুব সহজেই সাইনআপ করে নিতে পারবেন এই গুগল এডমবে। ব্যস, আপনার একাউন্ট খোলা হয়ে গেলো।

৩. Add your first app

আপনি যখন আপনার গুগল এডমব একাউন্টটি খোলে ফেলবেন তখন এর উপরে বামদিকে Dashboard  দেখতে পারবেন। এতে  “apps”   নামে একটি অপশন পাবেন। আপনার কাজ হলো এই অপশনটিতে ক্লিক করা।

আপনি apps অপশনটিতে ক্লিক করার সাথে সাথে “add your first app ” নামে একটি অপশন পাবেন।  ব্যস, এই অপশনটিতেই আপনি আপনার application  টি এডমবে জমা করে দিবেন।

৪. Create ads unit

আপনি আপনার এপস বা application  টি এডমবে জমা দেওয়ার পর “create ad unit ” নামক একটি অপশন পেয়ে যাবেন।

এই অপশনটির মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ধরনের এড যেমন banner,  interestial, native advanced  ইত্যাদি  বানিয়ে আপনার এপসে লাগাতে পারবেন।

Google AdMob  থেকে আয় হবে কিভাবে?

উপরের কাজগুলো সম্পন্ন হয়ে যাওয়া মানে আপনার কাজ প্রায় শেষ। এখন যখনই কেউ আপনার application  টি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে যাবে তখনই গুগল এডমব স্কিনে বিজ্ঞাপন দেখাবে। যার মাধ্যমে আয় হবে আপনার।

এখন প্রশ্ন হলো, মানুষ আপনার এপসটি কোথায় পাবে? যদি মানুষ আপনার এপসটি খুঁজেই না পায় তাহলে আপনার ইনকামই বা হবে কিভাবে?

হা হা, ঘাবড়ে গেলেন? ভয় পাবেন না। আচ্ছা আমাকে একটা উত্তর দিন তো। আপনার যখন কোনো এপসের প্রয়োজন পরে তখন কোন জায়গায় গিয়ে ডাউনলোড করেন? নিশ্চয়ই গুগল প্লে স্টোরে?

আরও পড়ুন:

আপনার মতোই প্রায় সবাই এই কাজটাই করে থাকেন। কারণ গুগল প্লে স্টোর বর্তমানে এপস ডাউনলোড করার সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি প্লাটফর্ম।  বিশ্বের প্রায় সব মানুষই তাদের যেকোনো এপসের প্রয়োজন পরলেই চলে যান গুগল প্লে স্টোরে।

আর এই সুবর্ণ সুযোগটাই কিন্তু কাজে লাগান গুগল এডমব থেকে যারা ইনকাম করেন। আপনিও এই গুগল প্লে স্টোরে নিজের এপসটি জমা দিয়ে পেয়ে যেতে পারেন আপনার এপস ব্যবহারকারী।

এখন প্রশ্ন আসতে পারে, কিভাবে নিজের এপসটি Google play store  এ জমা দেবো? চিন্তার কিছু নাই। এই আর্টিকেলে আমরা গুগল প্লে স্টোরে আপনার এপস জমা দেওয়ার নিয়ম ও তুলে ধরবো।

আরও পড়ুনঃ গুগল এডসেন্স থেকে আয় করার উপায়

Google play store  এ application জমা দেওয়ার উপায়

১. এর জন্য প্রথমেই আপনাকে একটি ” google play console account ”  খুলতে হবে। গুগল প্লে স্টোরে গিয়ে নিজের একটি Gmail account  দিয়ে খুব সহজেই signup করতে পারবেন।

২.  এ পর্যায়ে আপনি আপনার application  টি গুগল প্লে স্টোরে জমা দিতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে গুগলকে $25 ডলার পে করতে হবে।

৩.   যখন আপনার application  টি গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০০০ জন users দ্বারা ডাউনলোড করা হয়ে যাবে, তখন আপনি গুগল এডমবে গিয়ে একটি  publisher একাউন্ট তৈরি পারবেন।

এখন যেকেউ যখনই আপনার এপসটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ইনস্টল করে ব্যবহার করতে যাবে, তখনই গুগল এডমব দ্বারা বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করানো হবে। আর আপনার একাউন্টে জমা হবে টাকা।

শেষ কথা

গুগল এডমব থেকে ইনকাম খুবই জনপ্রিয় একটি আয়ের মাধ্যম। অনেকেই এটিকে তাদের আয়ের মাধ্যম হিসেবে গ্রহণ করছেন।

আপনিও চাইলে খুব সহজেই গুগল এডমব থেকে আয় করতে পারবেন।  এই আর্টিকেলে দেওয়া গাইডলাইনটি আশা করি এক্ষেত্রে আপনাদের কাজে আসবে।

এছাড়াও যদি গুগল এডমব নিয়ে আপনাদের কোনো কিছু জানার থাকে তাহলে আমাদেরকে কমেন্ট করতে ভুলবেন না কিন্তু!

আরও পড়ুন

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap